,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আত্মপ্রকাশের আগেই দল থেকে বহিস্কার ববি হাজ্জাজ

লাইক এবং শেয়ার করুন

আনুষ্ঠানিকভাবে আত্মপ্রকাশের আগে বহিস্কার, পাল্টা বহিস্কারে মেতে উঠেছে জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন (এনডিএম)। ৩ ফেব্রুয়ারি দলের চেয়ারম্যান ববি হাজ্জাজ বরিস্কার করেন পার্টির মহাসচিব এটিএম গোলাম মাওলা চৌধুরীকে। একই সঙ্গে দলের ভাইস চেয়ারম্যান আবু সৈয়দকেও অব্যাহতি দেয়া হয় দল থেকে। দুই দিন পর সোমবার পল্টনের দলীয় কার্যালয়ে কার্যনির্বাহী কমিটির এক জরুরি সভায় দলের ভাইস চেয়ারম্যান আবু সৈয়দের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় কার্যনির্বাহী কমিটির ১৬ সদস্যের মধ্যে মহাসচিবসহ ১০ জন উপস্থিতিতে সর্বসম্মতিক্রমে দলের চেয়ারম্যান ববি হাজ্জাজসহ ছয়জনকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন, দলের মহাচিব এটিএম গোলাম মাওলা চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান মনতাজুল করিম, নুরুল কাদের চৌধুরী, আব্দুল্লাহ আল মামুন, মাওলানা নুরুল কাদের, জহিরুল ইসলাম, যুগ্ম মগাসচিব হারুনুর রশিদ, ইশতিয়াক আহমেদ প্রমুখ।

সোমবার দলের ভাইস চেয়ারম্যান আবু সৈয়দ স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয়, এনডিএম এর চেয়ারম্যানের স্বৈরতান্ত্রিক ক্ষমতা প্রয়োগ, বিশেষ সহকারী (চেয়ারম্যানের ক্ষমতা ব্যবহারের ক্ষমতা প্রদান) নামে ববির চাপিয়ে দেয়া খসড়ায় গঠনতন্ত্রে অগণতান্ত্রিক পদ সৃষ্টি, এক নায়কতন্ত্র ব্যবস্থা চালুর চেষ্টা, বিশেষ উপদেষ্টা হতে অর্জিত বিশেষ ক্ষমতা ব্যবহারে উৎসাহী হওয়া, শুরুতে জনগণের গণতন্ত্র উল্লেখ করে অল্প দিনেই মহাসচিবসহ অন্যদের কোনো ধরনের মতামত ব্যতীত, বিশেষ সহকারীর বিশেষ সহায়তায় মত পাল্টিয়ে জবাবদিহিমূলক গণতন্ত্র দলীয় মূল চারনীতির নামকরণে পরিবর্তন আনা, একই কায়দায় ঘন ঘন মত পাল্টিয়ে আগের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসা, ব্যক্তিগত সহকারীকে দিয়ে নেতাকর্মীদের হুমকি-ধমকির স্বরে কথা বলা, সাংবাদিকদের কটাক্ষ করে কথা বলা, কানকথা আমলে নেয়া, এক শ্রেণীর হলুদ সাংবাদিকের কূ-পরামর্শ শোনা, রাজনৈতিক কর্মীদের প্রতি কর্মচারীর মতো আচরণ করা।

সভায় আরো অভিযোগ করা হয়, জমিদারী শাসনামলের মতো অফিসে শাহজাদার পাদুকা ব্যবহার আর বাকিদের প্রজাদের মতো খালি পায়ে হাটার জন্য বাধ্য করা, দল গঠনের আগেই কর্মীদের অনুদান সংগ্রহে বাধ্য করা, দলে আসতে প্রাথমিক উৎসাহীদের জোর করে সদস্যপত্র পূরণ করা, মাল্টিলেবেল কোম্পানির মতো ওরিয়েন্টেশনের নামে রাজনৈতিক দলকে ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি বানিয়ে ব্যক্তিগত ফায়দা লোটা, কর্মচারীর দ্বারা নেতাকর্মীদের শপথ বাক্য পাঠ করানো, স্বপ্নের দেশ নামে নাগরিক ক্ষমতায়নের ব্যানারে বিদেশ হতে অবৈধ অর্থ স্থান্তান্তরের পায়তারা করাসহ বিভিন্ন অনিয়মের তীব্র প্রতিবাদ জানায় জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলনের (এনডিএম) কার্য নির্বাহী কমিটি।

সভায় বলা হয়, এসব অনিয়মের প্রতিবাদ করায় এ টি এম গোলাম মাওলা চৌধুরী ও দল গঠনের আরেক অন্যতম পরিকল্পনাকারী ভাইস চেয়ারম্যান আবু সৈয়দকে সম্পূর্ণ অগণতান্ত্রিক ও স্বৈরাচারী কায়দায় অব্যাহতি দেয়ার ঘটনায় তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি আমরা। ২ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার, সাপ্তাহিক বৈঠকে কেক কেটে ভাইস চেয়ারম্যান আবু সৈয়দ এর জন্মদিন পালন, ফুলেল শুভেচ্ছা এবং মিষ্টান্ন আপ্যায়ন শেষে সাংগঠনিক কাজে মহাসচিব ও ভাইস চেয়ারম্যান কক্সবাজার সফরে থাকাকালে ৩ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার পরাজিত ইংরেজদের দোসর- মীর জাফরী কায়দায় আক্রমণ চালিয়ে পত্র-পত্রিকায় উভয় নেতার অব্যাহতির প্রেস বিজ্ঞপ্তি পাঠানো হয়। যা দুর্বল চিত্তের মানুষের পরিচয়।

সভায় স্বেচ্ছাচারী রাজনৈতিক প্রতারক ও ঠকবাজ, স্বাধীনতাযুদ্ধে বির্তকিত ভূমিকা ও সময়ের সমালোচিত ব্যবসাীয় মূসা বিন শমসেরপুত্র ববি হাজ্জাজকে জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলনের (এনডিএম) চেয়ারম্যান পদ থেকে বহিস্কার করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সেই সঙ্গে কার্য নির্বাহী কমিটিতে স্থান দেয়া “স্বপ্নের দেশ” নামে সংগঠনের ব্যানারের ব্যক্তিগত কর্মচারী, এশিয়ান ইউনির্ভাসিটির শিক্ষক আবদুল্লাহ এম তাহের, যমুনা টেলিভিশনের অনুষ্ঠান উপস্থাপিকা সৈয়দা সাদিয়া মেহেজাবীন, খালিদ ইমতিয়াজ ও এস কে সিয়াম আলীকেও সর্বসম্মতিক্রমে বহিস্কার করা হলো।কার্য নির্বাহী কমিটির এসব সিদ্ধান্ত ৬ ফেব্রুয়ারি সোমবার হতে কার্যকর হয়েছে বলে বিবার্তাকে জানান দলের ভাইস চেয়ারম্যান ববি আবু সৈয়দ।

<

p style=”text-align: right;”>বিবার্তা


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও অন্যান্য সংবাদ