,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

নেতাদের বাসায় খালেদার ‘ঈদ উপহার’

লাইক এবং শেয়ার করুন

ঢাকাসহ সারা দেশের কারাগারগুলোতে থাকা বিএনপি ও এর অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের আর্থিক সহায়তা ও ঈদ উপহার পাঠিয়েছেন দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। কেন্দ্রীয় ও জেলা নেতাদের তত্ত্বাবধানে কারাগারে থাকা নেতাকর্মী কিংবা তাদের পরিবারের কাছে দলের পক্ষ থেকে পৌঁছে দেয়া হয়েছে এ উপহার।

কোথাও আর্থিক সহায়তা, আবার কোথাও ঈদ উপহার সামগ্রী দেয়া হয়েছে। তবে কোথাও গোপনে দেয়া হয়েছে এ সহায়তা। অনুকূল পরিবেশ না থাকায় আবার কোথাও এ সহায়তা দেয়াই সম্ভব হয়নি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির এক যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘খুশির বার্তা নিয়ে আসা ঈদ বিএনপির অনেক নেতার কাছেই বিষাদে পরিণত হয়েছে, বিশেষ করে যারা কারাগারে রয়েছেন। তবে ঈদকে সামনে রেখে এসব নেতাকর্মীদের জন্য নেত্রীর পক্ষ থেকে ঈদ উপহার পৌঁছে দেয়ায় কারাগারে থাকলেও তাদের মনোবল দৃঢ় ও চাঙ্গা হবে।’

এটিকে ভালো উদ্যোগ দাবি করে এ জন্য বেগম খালেদা জিয়াকে ধন্যবাদ জানান তিনি। এ ধরনের উদ্যোগ অব্যাহত রাখার দাবি জানান বিএনপির এই নেতা।

বিষয়টি স্বীকার করে বিএনপির সহ-দপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু বলেন, ‘ঈদ উপলক্ষে কারাগারে থাকা বিএনপি এবং এর অঙ্গ-সহযোগী নেতাকর্মীদের দলের পক্ষ থেকে কম-বেশি আর্থিক সহায়তা প্রদান ও ঈদ উপহার সামগ্রী দেয়া হয়েছে। কোথাও আর্থিক সহায়তা আবার কোথাও ঈদ উপহার সামগ্রী দেয়া হয়েছে। এটা আসলে পরিবেশ-পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করে। অনেক জায়গায় আবার আমাদের দেয়ার সুযোগই দেয়া হয়নি।

ঠিক কতজনকে এ ধরনের সহায়তা দেয়া হয়েছে, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘সারা দেশের কারাগারগুলোতে থাকা আমাদের নেতাকর্মীদের প্রকৃত সংখ্যা বলা কঠিন। তবে সব মিলিয়ে কয়েক হাজার নেতাকর্মী কারাগারে রয়েছে।’

এদিকে, বিএনপির বিগত আন্দোলন-সংগ্রামে সারাদেশে গুম-খুন ও পঙ্গুত্ব বরণকারী নেতাকর্মীদের পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন বিএনপির বেগম খালেদা জিয়া এবং লন্ডনে চিকিৎসাধীন দলটির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান। তাদের নির্দেশনায় গত ২৪ জুন থেকে জেলা পর্যায়ের নেতারা এসব পরিবারের কাছে গিয়ে ঈদ শুভেচ্ছা কার্ডসহ ‍উপহার সামগ্রী পৌঁছে দেন।

সূত্র মতে, এসব উপহার সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে-একটি জায়নামাজ, তাসবীহ, আঁতর এবং ঈদের জন্য বিস্কুট, সেমাই, দুধ, চিনি আর চকোলেট। সারাদেশের প্রায় আট শতাধিক পরিবারের কাছে এ উপহার সামগ্রী পৌঁছে দেয়া হয়।

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্বাপর আন্দোলন এবং ২০১৫ সালের সরকার বিরোধী আন্দোলনে যেসব নেতাকর্মী নিহত, গুম ও পঙ্গু হয়েছেন, তাদের তালিকা করে এবারই প্রথম তাদের পাশে দাঁড়ানোর উদ্যোগ নেয় বিএনপি। তৃণমূলের নেতাকর্মীরা দলের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ফেনী জেলা বিএনপির এক নেতা বাংলামেইলকে বলেন, ‘ঈদকে সামনে রেখে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের এ উদ্যোগ তৃণমূলের নেতাকর্মীদের কাছে প্রশংসিত হয়েছে। তবে এ উদ্যোগ অব্যাহত রাখতে হবে। তাহলে তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মনোবল চাঙ্গা থাকবে। দলের ভবিষ্যৎ আন্দোলনও গতি পাবে।’

ঈদকে সামনে রেখে এসব নেতাকর্মীদের পাশে দাঁড়াতে সারাদেশের দলীয় নেতাকর্মীদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন তারেক রহমান। সম্প্রতি নয়াপল্টনের বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে তারেক রহমানের পক্ষে দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এ অনুরোধ জানান।  একইসঙ্গে ঈদে তৃণমূল নেতাকর্মীদের পাশে দাঁড়াতে দলের শীর্ষ নেতাদের নির্দেশ দেন চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

এদিকে, গত ২৯ জুন রাজধানীর গুলশানের একটি হোটেলে বিগত আন্দোলন-সংগ্রামে ঢাকা ও এর আশপাশের এলাকা থেকে গুম ও খুনের শিকার হওয়া চল্লিশটি পরিবারের স্বজনদের সঙ্গে ইফতার করেন খালেদা জিয়া। ইফতার শেষে তাদের হাতে ঈদ উপহার সামগ্রী ও আর্থিক সহায়তা তুলে দেন খালেদা জিয়া।

এ ছাড়া জাতিসংঘ ঘোষিত আন্তর্জাতিক নির্যাতনবিরোধী দিবস উপলক্ষে গত ২৬ জুন রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বিএনপি আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে গুম ও খুনের শিকার হওয়া ২৫টি পরিবারকে আর্থিক সহায়তা এবং ৫ কেজি করে খেঁজুর দেয়া হয়। রমজানে খালেদা জিয়ার জন্য সৌদি সরকারের তরফ থেকে এ খেজুর পাঠানো হয়েছে বলে দলের এক নেতা দাবি করেন।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও অন্যান্য সংবাদ