,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

সন্ত্রাসীদের বিচারের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আস্থা আছে : বিতর্কিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন

লাইক এবং শেয়ার করুন

সোমবার ফেসবুকে দেয়া এক পোস্টে তিনি এ মন্তব্য করেন। সাম্প্রতিক হত্যাকান্ডের বিষয়ে তসলিমা নাসরিন লিখেন, “হাসিনার ছেলে জয়কেও যদি এখন কুপিয়ে মেরে ফেলা হয়, হাসিনা বলবেন, ‘জয়ও ভেতরে ভেতরে হয়তো নাস্তিক ছিল। আমরা জানতাম না। নাস্তিক না হলে বা মুক্তমনা না হলে সন্ত্রাসীরা ওকে মারবে কেন’। সন্ত্রাসীদের বিচারের প্রতি আস্থা দেশের প্রধানমন্ত্রীরও আছে। আস্থা আছে বলেই প্রধানমন্ত্রী খুনীদের শাস্তি দেয়ার পক্ষে নন। তিনি বরং মুক্তমনাদের উপদেশ দিচ্ছেন মনকে মুক্ত না করে বদ্ধ করতে। জটিল লেখালেখি বন্ধ করতে।”
 
এর আগে ফেসবুক ও টুইটারে একাধিক পোস্টে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জঙ্গিদের সঙ্গি বলে অভিহীত করেছিলেন তিনি। এতে উল্লেখ করেছিলেন, জুলহাজ মান্নান ও মাহবুব তনয় হত্যাকারিদের সিসিটিভি ফুটেজ থাকা সত্ত্বেও এদের গ্রেফতার করা হচ্ছে না। এছাড়া সাম্প্রতিক সময়ে ধারাবাহিক হত্যাকান্ডগুলোর কোনো কিনারা করতে পারেননি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি জঙ্গিদের বাঁচাতে চাচ্ছেন।
 
সোমবারের পোস্টে তসলিমা লিখেন, “পুরো বিশ্ব জানে বাংলাদেশে নাস্তিকদের কুপিয়ে মারছে ইসলামী সন্ত্রাসীরা। এখন কোনো আস্তিককে মেরে ফেলা হলেও বলা হবে, ও ব্যাটা নির্ঘাত নাস্তিক ছিল”
 
“হত্যাকারীদের, আক্রমণকারীদের, ঘৃণাকারীদের বিচারের ওপর মানুষের আস্থা অসম্ভব বেশি। তাদের বিচার আর আদালতের বিচারের মধ্যে মানুষ পার্থক্য দেখে না। ‘ওকে যখন খুন করা হয়েছে, খুনের পেছনে নিশ্চয়ই কোনো কারণ আছে। কারণ না থাকলে ওরা খুন করবে কেন!’ এ কথা প্রধানমন্ত্রীও যেমন বলেন, আমজনতাও বলেন। ইসলামী সন্ত্রাসীরা নাস্তিক খুন শুরু করার পর থেকে নাস্তিকদের যত-না অপরাধী ভাবতো মানুষ, তার চেয়ে বেশি অপরাধী ভাবছে। নাস্তিকরা খুন হওয়ার মতো অপরাধ করে বলেই ধারণা জন্মেছে।”


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও অন্যান্য সংবাদ