,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আশুগঞ্জ বিএনপি’র হালচাল

লাইক এবং শেয়ার করুন

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার প্রবেশ দ্বার ভৌগলিক ভাবে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ জেলা আশুগঞ্জ। ঢাকা-চট্রগ্রাম , ঢাকা – সিলেট রেললাইন, ঢাকা – সিলেট, ঢাকা – আগরতলা, মহাসড়ক, এশিয়ান হাইওয়ে, আশুগঞ্জ নৌ বন্দর, একাধিক ভারী শিল্প এলাকার জন্য প্রসিদ্ধ আশুগঞ্জ উপজেলা।কে পি আই জোন আশুগঞ্জ খ্যাত ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার একটি গুরুত্ব পূর্ণ উপজেলা আশুগঞ্জ। এ উপজেলায় জন্ম নিয়েছে একাধিক প্রতিষ্ঠিত লোকের বসবাস। আন্দোলন সংগ্রামের জন্য একটি গুরুত্ব পূর্ণ উপজেলা আশুগঞ্জ। দীর্ঘ দিন যাবত আশুগঞ্জের বিএনপির রাজনীতিতে স্বাভাবিকতা বিরাজ করেছিল।বিএনপির অর্থ লোভী একটি সিন্ডিকেটের চোখ পড়ে আশুগঞ্জের উপর এই সিন্ডিকেটের উপর আর এই সিন্ডিকেটের নেতৃত্ব দেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মুশফিকুর রহমান, সাবেক যুগ্ম মহাসচিব মোঃ শাহজাহান, নির্বাহী কমিটির সদস্য বেলাল, জেলা বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব হাফিজুর রহমান মোল্লা কচি। শুধু মাত্র অর্থের লোভে দীর্ঘ দিনের ত্যাগী নেতাদের সরিয়ে নেতৃত্বে নিয়ে আসেন আওয়ামী ঘরনার ব্যবসায়ী আবু আসিফ আহমেদকে.২০১৪ সালের ডিসেম্বর থেকেই আশগঞ্জ উপজেলার রাজনীতিতে অস্থিরতা সৃষ্টি শুধু মাত্র অনৈতিক সুবিধা নেওয়ার জন্য মুশফিকুর রহমান, মোঃ শাহজাহান, হাফিজুর রহমান মোল্লা কচি।

এই সিণ্ডিকেট নিয়মিত মাসিক ভাতা নেয় আশুগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি আবু আসিফের নিকট থেকে। সরজমিনে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আশুগঞ্জে সবচাইতে আলোচিত বিষয় দুই ব্যবসায়ীর নিকট থেকে কে কে ঈদ বোনাস পেয়েছে কে পায়নি? আশুগঞ্জ উপজেলা কমিটি পূর্ণগঠন সময়ের দাবী। আন্দোলন সংগ্রামে আশুগঞ্জ উপজেলা বিএনপিকে সক্রিয় করতে হলে উপজেলা বিএনপি যুবদল ছাত্রদল পূর্ণগঠন এখন সময়ের দাবী। তৃণমূল নেতাকর্মীদের দাবী বিকৃতমনা আবু আসিফ মুক্ত বিএনপি চাই। আবু আসিফের একের পর এক কেলেঙ্কারি প্রকাশের পর উনি দারস্থ হন আরেক ব্যবসায়ী নাছির আহমেদের একমাত্র নাছির আহমেদই পারে তাকে রক্ষা করতে। পলাস তোমাকে তথ্য উপাত্ব দেয়ার জন্য ধন্যবাদ।

তৃণমূল নেতাকর্মীরা এখন জেলার নেতাদের বিস্বাস করেন না, বিস্বাস করেন না মুশফিকুর রহমান, সাবেক যুগ্ম মহাসচিব মোঃ শাহজাহান কে ও। তৃণমূল নেতাকর্মীরা এখন চাচ্ছেন দীর্ঘ দিন যাবত যারা মুল ধারার রাজনীতি করেন সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাকির হোসেন,সিনিয়র যুগ্ন সম্পাদক সাবেক ছাত্রনেতা শাহজাহান সিরাজ, সাবেক যুগ্ন সম্পাদক ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে প্রকাশিত একুশে আলো সম্পাদক মোঃ সেলিম পারভেজ, উপজেলা যুবদলের সভাপতি মোঃ ফায়জুর এবারের ইউপি নির্বাচনে সামান্য ভোটে পরাজিত হতে হয়েছে আবু আসিফের বিরুধিতার কারনে।ওদের মধ্য থেকেই আশুগঞ্জ উপজেলা বিএনপির নেতৃত্ব নির্বাচন করতে হবে। তাহলেই আগামী দিনে আন্দোলন সংগ্রামে কার্যকর হবে আশুগঞ্জ উপজেলা বিএনপি। হালের গড ফাদারদের উচিৎ ব্যবসায়ীদের কেন্দ্রে বা জেলায় নিয়ে আশুগঞ্জ উপজেলা বিএনপিকে নির্ভেজাল রাখুন।

কেন্দ্রের একাধিক নেতার সাথে আলাপ করে জানা যায় জেলার সিণ্ডিকেট আওয়ামীলীগের সাথে আতাত করে শুধু আশুগঞ্জ উপজেলা নয় জেলার প্রতিটি উপজেলায় বেহাল দশা করে রেখেছে। ঈদের পরই ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। একটি মিডিয়া হাউজ থেকে ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সার্বিক প্রতিবেদন জমা পড়েছে। আমরা শীঘ্রই ব্যবস্থা নেব। কেন্দ্রের সিণ্ডিকেট ভেঙ্গে তছনছ হয়ে গেছে আর জেলার সিণ্ডিকেট।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও অন্যান্য সংবাদ