,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

শনিবার ঝিনাইদহের ১৫টি ইউনিয়নে নির্বাচন, ১৪৪টি কেন্দ্র ব্যাপক ঝুকিপূর্ণ

লাইক এবং শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহ # পাল্টাপাল্টি হামলা, সংঘর্ষ, ভোট কেন্দ্রে পোলিং এজেন্ট দিতে বাধা, বাড়ি বাড়ি হুমকী ধমকীসহ নির্বাচন আচরণ বিধি লংঘনের মধ্য দিয়ে শনিবার ঝিনাইদহের ১৫টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। নির্বাচনে ১৪৪টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে সবকটি অধীক ঝুকিপূর্ণ হিসেবে ঘোষনা করা হয়েছে।

বিএনপি ও আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরা অভিােগ করেছেন, ভোট কেন্দ্রে তাদের কোন পোলিং এজেন্ট দিতে দিচ্ছে না। সদর উপজেলার কালিচরণপুর ইউনিয়নে বিএনপি প্রার্থীর এজেন্টদের হুমকী দেওয়া হচ্ছে। পোড়াহাটী, নলডাঙ্গা, হরিশংকরপুর, দোগাছী ও পদ্মাকর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী ও বিএনপি প্রার্থীরা এজেন্ট সংকটে পড়েছে। হরিণাকুন্ডুর কাপাশহাটিয়া ইউনিয়নের শিতলী ও ভালকীসহ চারটি কেন্দ্রে বিএনপির পোলিং এজেন্টদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে নৌকার সমর্থকরা হুমকী দিয়েছে। ফলে এই চারটি কেন্দ্রে বিএনপি কোন পোলিং এজেন্ট দিতে পারছে না। দৌলতপুর ইউনিয়নের রিশখালী, হিঙ্গেরপাড়া ও সোনাতনপুর কেন্দ্র দখল করে ভোট কেটে নেওয়ার প্রকাশ্যে হুমকী দিচ্ছে নৌকার প্রার্থী সাবদার হোসেন।

দৌলতপুর ইউনিয়নে বিএনপি প্রার্থী আব্দুল লতিফ মাষ্টার ও আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বুড়ো মেম্বর অভিযোগ করেন, তাদের কোন এজেন্ট দিতে দিচ্ছে না। ১৫টি ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থীরা ভয় ভীতি দেখাচ্ছে যাতে ভোটাররা কেন্দ্রে না আসে। তবে জেলা প্রশাসক মাহবুব আলম তালুকদার ও পুলিশ সুপার আলতাফ হোসেন নির্বাচন সুষ্ঠ করতে কঠোর অবস্থান নিয়েছেন । নির্বাচন নিয়ে টম আর জেরির মতো কোন খেলা মেনে নেওয়া হবে না বলেও তারা সাফ জানিয়ে দিয়েছেন।

এদিকে ঝিনাইদহ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, শনিবার ঝিনাইদহ সদর উপজেলার ৮টি ও হরিণাকুন্ডু উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। শুক্রবার সকাল থেকেই দুই উপজেলার ১৪৪টি কেন্দ্রে নির্বাচনী সরঞ্জাম পাঠানো হয়েছে। ১৫টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৬৭ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। এর মধ্যে ১৯টি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছে। নির্বাচন কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর হোসেন আরো জানান,
ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পুর্বাঞ্চলে ৮টি ইউনিয়নে ৩০ জন ও হরিণাকুন্ডুর ৭টি ইউনিয়নে ৩৭ জন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। নির্বাচন সুষ্ঠ করতে কেন্দ্রে কেন্দ্রে নির্বাহী ও জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে বিজিবি, পুলিশ, র‌্যাব, স্ট্রাইকিং ফোর্স মোতায়েন করা হয়েছে।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও অন্যান্য সংবাদ