,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

পয়লা বৈশাখে কঠোর নিরাপত্তাবলয়

লাইক এবং শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক : পয়লা বৈশাখে বর্ষবরণ অনুষ্ঠান নির্বিঘ্নে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে রাজধানীতে কঠোর নিরাপত্তাবলয় গড়ে তুলছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। ইতিমধ্যেই বিশেষ গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করা হয়েছে। পুলিশ, র‌্যাবের গোয়েন্দাসহ বিভিন্ন সংস্থার সাদা পোশাকধারী গোয়েন্দারা অনুষ্ঠানস্থল ও আশপাশের এলাকায় তৎপরতা শুরু করেছে। রমনা বটমূল, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলো আনা হচ্ছে সিসি ক্যামেরার আওতায়। রমনা বটমূলে গত বছরের মতো এবারো থাকছে পুলিশের টু হুইলার। যার মাধ্যমে পুলিশ অনুষ্ঠানস্থল টহল দেবে। সেই সঙ্গে নববর্ষের সকালে নির্বিঘ্নে মঙ্গল শোভাযাত্রা আয়োজনে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে।

টিএসসিসহ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও ঢাকা শহরের অন্যান্য জায়গায়, সন্ধ্যার পরে হেঁটে বেড়াতে, গল্প করতে, বৈশাখের রঙ-বেরঙের পোশাক পরে জনগণ আনন্দ উৎসব করবে, আমরা পরিপূর্ণ নিরাপত্তা দেব সেক্ষেত্রে কোনো বিধি-নিষেধ নেই। রমনা বটমূলে অনুষ্ঠানস্থলে প্রবেশ ও বাহির পথে আর্চওয়ে, তল্লাশি, ৯টি ওয়াচ টাওয়ার, তিনটি কন্ট্রোল রুম (পুলিশ কন্ট্রোল রুম: ৯৫৫৯৯৩৩, ৯৫৫১১৮৮, ৯৫১৪৪০০, ০১৭১৩-৩৯৮৩১১, ডিএমপি ফোন নং-৯৯৯। রমনা থানা : ০১৭১৩৩৭৩১২৫, শাহবাগ থানা : ০১৭১৩৩৭৩১২৭, ধানমন্ডি থানা : ০১৭১৩৩৭৩১২৬), বোমা ডিসপোজাল ইউনিট, সোয়াত টিম, ফুট পেট্রোল টিম, নিরাপত্তা ব্যবস্থা সক্রিয় থাকবে।

জানা গেছে, পয়লা বৈশাখ উদযাপন কেন্দ্র করে রাজধানীতে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রযুক্তি নির্ভরতাসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। জনসাধারণের নিরাপত্তার স্বার্থে বুধবার বিকেল সাড়ে ৫টার মধ্যে সাধারণ জনগণকে রমনা ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ত্যাগ করার আহ্বান জানানো হয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিট্রন পুলিশের পক্ষ থেকে। নগরবাসী যাতে নিরাপদে আনন্দমুখর পরিবেশে বৈশাখের অনুষ্ঠান উদযাপন করতে পারে সেজন্য পুলিশ ও র‌্যাবের তরফ থেকে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। তবে সন্ধ্যার পরে নিরাপত্তার ঝুঁকি থেকে যায় বলে সন্ধ্যার আগেই শুক্রবারের পয়লা বৈশাখের অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করা নিরাপদ বলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা জনিয়েছেন।

রাজধানীতে নিরাপত্তা জোরদারের অংশ হিসেবে রমনা বটমূল ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানকে কেন্দ্র করে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। পুরো এলাকা সিসি ক্যামেরার আওতায় থাকবে। যা ডিএমপির সদরদপ্তর থেকে মনিটরিং করা হবে। এ ছাড়া রমনা পার্কে একটি আলাদা মনিটরিং সেল থাকবে। ইউনিফর্ম ও সাদা পোশাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা কয়েক স্তরে নিরাপত্তা বলয় গড়ে তুলবে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নির্ধারিত করে দেওয়া পথ দিয়েই প্রত্যেককে মেলা বা অনুষ্ঠানস্থলে যেতে হবে। অনুষ্ঠানস্থলে প্রবেশ ও বাহির পথে আর্চওয়ে, তল্লাশি, বোম ডিসপোজাল ইউনিট, সোয়াত টিম, ফুট পেট্রোল টিম, ওয়াচ টাওয়ার প্রভৃতি নিরাপত্তা ব্যবস্থা সক্রিয় থাকবে।

নিরাপত্তার স্বার্থে অনুষ্ঠানস্থলে কোনো প্রকার ব্যাগ, সন্দেহজনক বস্তু, অস্ত্র, ছুরি, নেলকাটার, লাইটার নিয়ে কেউ প্রবেশ করতে পারবে না। এ ছাড়া এবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী মোটরসাইকেলে দুজন বসতে পারবে না।
র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখা সূত্রে জানা গেছে, র‌্যাবের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ডগ স্কোয়াড, বোমা ডিসপোজাল ইউনিট, গোয়েন্দা শাখা ইতিমধ্যেই কাজ শুরু করেছে।
পয়লা বৈশাখের সার্বিক নিরাপত্তার বিষয়ে বুধবার সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, বাংলা নববর্ষের প্রথম দিন পয়লা বৈশাখ শান্তিপূর্ণ পরিবেশে উদযাপনে সারা দেশে কঠোর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।
তিনি বলেন, পয়লা বৈশাখ শান্তিপূর্ণ পরিবেশে উদযাপনের জন্য নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সব ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। রমনা পার্ক এলাকা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস, শাহবাগ এবং সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও ধানমন্ডি লেক এলাকায় এই দিনে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে আমরা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছি।

এদিকে গত ১০ এপ্রিল ডিএমপি কমিশনার এম আসাদুজ্জামানের সভাপতিত্বে ডিএমপি সদরদপ্তরে নিরাপত্তা বিষয়ক এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বিস্তারিত নির্দেশনা দেন বলেও জানা গেছে। ওই বৈঠকের সিদ্ধান্তের বিষয়ে পরবর্তী সময়ে ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া জানান, ৫টার পর উন্মুক্ত স্থানে কোনো কনসার্ট, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান বা নৃত্যানুষ্ঠান করা যাবে না। তবে ইনডোরে, সুরক্ষিত স্থানে রাতে বা সন্ধ্যার পরও বৈশাখী অনুষ্ঠান করা যাবে। রাজধানীতে বর্ষবরণ আয়োজনের মূলকেন্দ্র সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের সব ফটক বিকেল সাড়ে ৪টার পর বন্ধ করে দেওয়া হলেও শহরের রাস্তায় বেড়াতে বা আনন্দ উদযাপনে কোনো বাধা নেই বলে পুলিশ কমিশনার জানান।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আরও অন্যান্য সংবাদ