,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

২০১৭ সালের প্রাথমিকের বই ছাপা হলো ভারতে

লাইক এবং শেয়ার করুন

২০১৭ সালের বিনামূলে প্রাথমিক শিক্ষার বই বিতরণের জন্য ভারত থেকে ছাপিয়ে আনা হচ্ছে বই। দেশে বই ছাপাতে দ্বিগুণ খরচ হওয়ায় ভারত থেকে ছাপানো হচ্ছে বই। উৎসব আনুষ্ঠানিকতায় ১ জানুয়ারি ২০১৭ বিনামূল্যের বই বিতরণ করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এজন্য আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে আসছে প্রাথমিক শিক্ষার দেড় কোটি পাঠ্যবই। ২০ লাখ ১৩ হাজার ৬শ পিস বই বন্দর গোডাউনে প্রবেশ করেছে। দুটি চালানে ২১ হাজার ৫শ প্যাকেজ বইয়ের চালান খালাস করা হয়েছে বলে জানান বন্দর পরিদর্শক জাবেদ এ বিল্লাহ।

রাত-দিন চলছে বই খালাসের কাজ। ডিসেম্বরের মধ্যে ভারত থেকে আমদানি করা বই দেশের অভ্যন্তরে পৌঁছে যাবে বলে জানান বেনাপোল ট্রান্সপোর্ট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও ট্রাক মালিক সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আজিম উদ্দিন গাজি। বন্দরে ২৭ ও ২৮ নং শেডে চলছে খালাসের কাজ। বন্দর হ্যান্ডলিং শ্রমিকরা ব্যস্ত সময় পার করছেন বই খালাসে। বই ছাড়ানো ও সরবরাহের কাজ করছেন বেনাপোলের ভৈরব ট্রান্সপোর্ট মালিক আজিম উদ্দিন গাজি। যার আমদানিকারক- ন্যাশনাল কারিকুলাম এন্ড টেক্সট বুক বোর্ড মতিঝিল ঢাকা। রফতানিকাক ভারতের কলকাতার কৃষ্ণা ট্রেডার্স। বেনাপোলের সিএন্ডএফ এজেন্ট এসটিএম ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল।

বেনাপোল ট্রান্সপোর্ট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও ট্রাক মালিক সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আজিম উদ্দিন গাজি ও ট্রান্সপোর্ট প্রতিনিধি আবু মুসা বলেন, দ্রুত সময়ে বন্দর থেকে বই খালাস করে স্ব-স্ব গন্তব্যে পাঠানো হচ্ছে। রাত-দিন কাজ করছেন তারা। নির্দিষ্ট সময়ে যাতে বই হাতে পায় শিক্ষার্থীরা এজন্য আন্তরিকভাবে বই সাপ্লাইয়ের কাজ করছেন বন্দর ব্যবহারকারীরা।

মঙ্গলবার থেকে খালাস শুরু হয়েছে বই। ২ দিনে গেছে ২১ ট্রাক বই। প্রতি ট্রাকে ৩ থেকে ৪শ প্যাকেজ বই যাচ্ছে বিভিন্ন উপজেলা সদরে। ১৫ থেকে ২০ ডিসেম্বরের মধ্যে সব বই ভারত থেকে বাংলাদেশে চলে আসবে বলে জানান বন্দর কর্মকর্তারা। পর্যায়ক্রমে এসব বই বেনাপোল থেকে পাঠানো হবে বিভিন্ন উপজেলায়Ñ জানান তারা। জাবেদ এ বিল্লাহ, বন্দর পরিদর্শক, বেনাপোল স্থলবন্দর বলেন, ইনভয়েজ অনুযায়ী দ্রুতগতিতে আসছে ভারত থেকে ছাপানো বই। বন্দর গোডাউনে খালাসের পর কাগজপত্র দ্রুত সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করে বই খালাস দেওয়া হচ্ছে। আগামী সপ্তাহের মধ্যে সিংহভাগ বই বন্দরে প্রবেশ করতে পারে বলে জানান তিনি।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও অন্যান্য সংবাদ