,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

মেসির ফেরার ম্যাচে বার্সার বড় জয়

লাইক এবং শেয়ার করুন

দুই ব্রাজিলিয়ান নেইমার ও রাফিনিয়া আলো ছড়ালেন শুরু থেকেই। বদলি নেমে জ্বলে উঠলেন লিওনেল মেসি, গোলের উল্লাসে মাতেন লুইস সুয়ারেসও। আক্রমণভাগের এমন দাপুটে পারফরম্যান্সে হেসেখেলেই জয়ের পথে ফিরেছে বার্সেলোনা। লা লিগায় শনিবার বিকালে দেপোর্তিভো লা করুনাকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বার্সেলোনা। জোড়া গোল করেন রাফিনিয়া, একটি করে গোল করেন মেসি ও সুয়ারেস। নেইমার গোল না পেলেও দুটি গোলে অবদান রাখেন। গত রাউন্ডে সেল্তা ভিগোর মাঠে ৪-৩ গোলে হারা কাতালান ক্লাবটির লিগে এটি পঞ্চম জয়। বাকি তিন ম্যাচে দুটিতে হেরেছে ও একটিতে ড্র করেছে তারা।

চোট কাটিয়ে উঠা লিওনেল মেসিকে বেঞ্চে রেখে মাঠে নামা বার্সেলোনা ম্যাচের শুরুতেই এগিয়ে যাওয়ার সহজ সুযোগ পেয়েছিল। কিন্তু নেইমারের জোরালো ভলি ক্রসবারে লাগার পর ফিরতি বলে সুয়ারেসের হেড একটুর জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। প্রথম গোলের জন্য স্বাগতিকদের অবশ্য বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি। ২১তম মিনিটে লুইস সুয়ারেসের সঙ্গে একবার বল দেওয়া নেওয়া করে ডান দিক থেকে কোনাকুনি শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন রাফিনিয়া। সাত মিনিটের ব্যবধানে আরও দুবার বল জালে জড়িয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় বার্সেলোনা।

৩৬তম মিনিটে জেরার্দ পিকের হেড আর্জেন্টাইন গোলরক্ষক জের্মান লাক্স ঠেকিয়ে দিলেও ফিরতি বল পেয়ে সহজেই নিজের দ্বিতীয় গোলটি করেন চোটের কারণে গত মৌসুমে অনেকটা সময় বাইরে থাকা ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার রাফিনিয়া। ৪৩তম মিনিটে নেইমারের রক্ষণচেরা পাস ধরে সঙ্গে লেগে থাকা এক জনকে এড়িয়ে লক্ষ্যভেদ করেন সুয়ারেস। পরের মিনিটে সুয়ারেসের কোনাকুনি শট গোলরক্ষককে পরাস্ত করলেও পোস্টে লাগে। ৫৫তম মিনিটে সের্হিও বুসকেতসকে বসিয়ে মেসিকে নামান লুইস এনরিকে। মাঠে নামার তৃতীয় মিনিটেই স্কোরশিটে নাম লেখান পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার। নেইমারের দারুণ একটি পাস ছয় গজ বক্সের সামনে পেয়ে প্রথম শটেই লক্ষভেদ করেন তিনি।

৬৫তম মিনিটে বল দখলের সময় নেইমারকে কনুই দিয়ে আঘাত করায় সরাসরি লাল কার্ড দেখেন অতিথিদের অধিনায়ক স্প্যানিশ ডিফেন্ডার লাউরে। ১০ জনের দলের বিপক্ষে ৬৯ ও ৭১তম মিনিটে সহজ দুটি সুযোগ নষ্ট করে বার্সেলোনা। আরেক বদলি খেলোয়াড় পাসো আলকাসের কাছ থেকে ফাঁকায় বল পেয়ে লক্ষ্যভ্রষ্ট শট নেন আর্দা তুরান। পরে মেসির দারুণ ক্রসে কাছ থেকে গোলরক্ষক বরাবর হেড করেন স্পেনের ফরোয়ার্ড আলকাসের। বাকি সময়ে তারা আরও কয়েকটি সুযোগ নষ্ট না করলে স্কোরলাইন হতে পারতো আরও বড়। এই জয়ে আট ম্যাচে বার্সেলোনার পয়েন্ট ১৬। দিনের প্রথম ম্যাচে লেগানেসেকে ৩-২ গোলে হারানো সেভিয়ার পয়েন্ট ১৭।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আরও অন্যান্য সংবাদ