AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

ভারত-ইংল্যান্ড সিরিজে ঘুরে ফিরে আসছে বাংলাদেশ

লাইক এবং শেয়ার করুন

ভারতের বিপক্ষে নিজেদের ‘আন্ডারডগ’ই ভাবেন অ্যালিস্টার কুক। বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ সমতায় রেখে এসে এ ছাড়া অন্য কিছু ভাবার উপায়ও বোধ হয় নেই কুকের। বাংলাদেশের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্ট জিতলেও সে টেস্টে জয়টা এসেছে কোনোমতে। বাংলাদেশি স্পিনারদের কাছে নাস্তানাবুদ হয়ে শেষ পর্যন্ত জয় পেয়েছে বেন স্টোকসের নৈপুণ্যে। ঢাকার দ্বিতীয় টেস্টেও আবার নাস্তানাবুদ। এই টেস্টে ‘স্টোকসের মতো’ কেউ ছিলেন না। তাই হারতেই হয়েছে তাদের।

ভারতে সর্বশেষ টেস্ট সিরিজটা ২-১-এ জিতে নিয়ে গিয়েছিল ইংল্যান্ড। এই ইংল্যান্ড দল অতটা শক্তিশালী নয় ঠিকই, কিন্তু সর্বশেষ ১০ সিরিজের মাত্র একটিতে হারা ইংল্যান্ড এবার ভারতে সবগুলো টেস্টে হেরে যেতে পারে, এমন কথাও উঠছে। কারণ আর কিছুই নয়। বাংলাদেশের বিপক্ষে ২ ম্যাচের সিরিজে বেশির ভাগ সময় স্পিনের সামনে তাদের কাঁপা কাঁপি। বুধবার শুরু সিরিজটা ভারত বনাম ইংল্যান্ড হলেও ঘুরে ঘিরে তাই বাংলাদেশের প্রসঙ্গ আসছে।

বাংলাদেশের কন্ডিশনে নিজেদের দুর্বলতা যেভাবে প্রকট হয়ে দেখা দিয়েছে, তাতে ভারতের মাটিতে এসে আহামরি কিছু তারা করে ফেলবেন—এমনটি ভাবা বাড়াবাড়ি। বাংলাদেশের স্পিনাররা যেভাবে ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের সামর্থ্যের সর্বোচ্চ পরীক্ষা নিয়েছে, তাতে ভারতে রবিচন্দ্রন অশ্বিনেরা ইংল্যান্ডে-বধে উৎসাহিত হতেই পারেন। ভারতও স্পিন-বিষ মাখা উইকেট বিছিয়ে রাখছে নিশ্চয়ই। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে যেমনটা করেছিল তারা। বাংলাদেশের তরুণ স্পিনার মেহেদী মিরাজের বিপক্ষেই তো ঘাম ছুটে গিয়েছিল ইংল্যান্ডের! টেস্ট সেরা স্পিনার অশ্বিনের আঙুল তো নিশপিশ করবেই!

কুকের সংবাদ সম্মেলনেও উঠল বাংলাদেশ প্রসঙ্গ। কুক জানিয়েছেন, বাংলাদেশের বিপক্ষে ঢাকা টেস্টে হারের ধাক্কাটা সামলে ওঠার চেষ্টা করে যাচ্ছে তাঁর দল। রাজকোটে ৯ নভেম্বর ভারতের বিপক্ষে প্রথম টেস্ট শুরু হওয়ার আগেই সে ধাক্কা সামলানো যাবে।

ভারতের বিপক্ষে সিরিজ বেশ কঠিনই হবে বলে বিশ্বাস কুকের, ‘ভারত টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বর দল। র‍্যাঙ্কিংয়ের এক, দুই নম্বর দলগুলোর বিপক্ষে তাদের নিজেদের মাঠে খেলাটা খুব কঠিন। কারণ নিজেদের মাঠে তারা বেশ স্বাচ্ছন্দ্য। সুতরাং ভারতের বিপক্ষে খেলাটা বিরাট বড় চ্যালেঞ্জ।’

বাংলাদেশের বিপক্ষে দুই টেস্টের সিরিজের দলটিতে বেশ কিছু পরিবর্তন নিয়েই মাঠে নামতে হবে কুকের। এটিও বড় চ্যালেঞ্জ, ‘আমাদের দল নির্বাচন নিয়ে বড় কিছু সিদ্ধান্ত নিতে হবে। (বাংলাদেশে) এমন দুটি ম্যাচ হয়ে যাওয়ার পর কিছু পরিবর্তন তো আপনাকে আনতেই হবে।’

তবে কী ভারতে কোনোই আশা নেই ইংল্যান্ডের। কুক মনে করেন, দলের তুলনামূলক অনভিজ্ঞ খেলোয়াড়দের যে চ্যালেঞ্জর মুখেই ঠেলে দেওয়া হোক না কেন তাদের ভালো খেলতে হবে। আমরা যেহেতু চ্যালেঞ্জের মুখে আছি, তাই নিজেদের “আন্ডারডগ” ভাবতে আপত্তি নেই।’

<

p style=”text-align: left;”>সূত্র: পিটিআই


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও অন্যান্য সংবাদ