,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আইপিএলের পর বিগ ব্যাশে মুস্তাফিজকে নিয়ে টানাটানি

লাইক এবং শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেকের মাত্র এক বছর পূর্ণ হয়েছে মুস্তাফিজুর রহমানের। অল্প সময়ের মধ্যে খুব কম খেলোয়াড়ই এত সাড়া ফেলতে পেরেছেন ক্রিকেট বিশ্বে। গত বছর জাতীয় দলের জার্সি গায়ে দুর্দান্ত নৈপুণ্যের পর ভারতের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি প্রতিযোগিতা, আইপিএলেও বাজিমাত করছেন বাংলাদেশের এই বাঁহাতি পেসার। ডাক পেয়েছেন ইংল্যান্ডের ঘরোয়া প্রতিযোগিতা কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপেও। এবার অস্ট্রেলিয়ার টি-টোয়েন্টি প্রতিযোগিতা বিগ ব্যাশেও মুস্তাফিজকে নিয়ে টানাটানি শুরু হয়ে যেতে পারে বলে জোর গুঞ্জন উঠেছে।

আইপিএলের দলগুলোতে দেখা যায় অনেক বিদেশি খেলোয়াড়কে। প্রতি ম্যাচে প্রথম একাদশে থাকতে পারেন চারজন বিদেশি খেলোয়াড়। কিন্তু বিগ ব্যাশে প্রতিটি দলে থাকতে পারেন শুধু দুজন বিদেশি খেলোয়াড়। ফলে অনেক বিচার-বিশ্লেষণ করেই এই দুজন খেলোয়াড় নির্বাচন করে বিগ ব্যাশের দলগুলো। আর কঠিন এই প্রতিদ্বন্দ্বিতার মধ্যে উঠে আসছে মুস্তাফিজের নাম। অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটবিষয়ক ওয়েবসাইট ক্রিকেট ডট কম ডট এইউর একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিগ ব্যাশ লিগে অনেকেরই আগ্রহ আছে ‘ফিজ’কে নিয়ে।

বিগ ব্যাশের পরবর্তী মৌসুমের জন্য দুজন বিদেশি খেলোয়াড় নির্বাচন করে ফেলেছে শুধু মেলবোর্ন স্টার্স। তারা দলে ভিড়িয়েছে দুই ইংলিশ ক্রিকেটার লুক রাইট ও কেভিন পিটারসেনকে। আর তাদের নগর প্রতিদ্বন্দ্বী মেলবোর্ন রেনেগেডসের নজর আছে মুস্তাফিজের দিকে। আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের কোচের দায়িত্ব পালনের সুবাদে মুস্তাফিজকে খুব কাছ থেকে দেখছেন টম মুডি। তিনিই বিগ ব্যাশের দল মেলবোর্ন রেনেগেডসের ডিরেক্টর। ফলে আইপিএলের পর বিগ ব্যাশেও মুস্তাফিজকে দলে ভেড়াতে পারেন মুডি। রেনেগেডসের কোচ ডেভিড সাকেরও চাইছেন একজন বিদেশি বোলারকে দলে ভেড়াতে। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‘সত্যি কথা হলো আমাদের হয়তো একজন বিদেশি বোলার প্রয়োজন হতে পারে।’ আর এই মুহূর্তে মুস্তাফিজই যে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সেরা বোলার, তা নতুন করে বলার অপেক্ষা রাখে না। প্রথম আসরের শিরোপাজয়ী সিডনি সিক্সার্সও হাত বাড়াতে পারে মুস্তাফিজের দিকে। এই দলের অধিনায়ক মোইসেস হেনরিকে এখন হায়দরাবাদের হয়ে খেলছেন মুস্তাফিজের সঙ্গে।

আইপিএলের নয়টি ম্যাচ খেলে এখন পর্যন্ত মুস্তাফিজ নিয়েছেন ১৩টি উইকেট। সেই সঙ্গে তাঁর ইকোনমি রেটটাও নজর কাড়ার মতো। মাত্র ৬.১৫। আইপিএলে অন্তত ১০ ওভার বল করেছেন, এমন বোলারদের মধ্যে মুস্তাফিজই এখন পর্যন্ত সবচেয়ে কৃপণ বোলার। ফলে তাঁকে নিয়ে যে ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি লিগগুলোর আগ্রহ থাকবে, তাতে অবাক হওয়ার কিছুই নেই। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের ক্রিকেটার হিসেবে শুধু সাকিব আল হাসানই খেলেছেন বিগ ব্যাশ লিগে। ২০১২ ও ২০১৪ সালে তিনি খেলেছিলেন অ্যাডিলেড স্ট্রাইকার্স ও মেলবোর্ন রেনেগেডসের হয়ে।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও অন্যান্য সংবাদ