,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

বাংলাদেশের টাকা দিয়ে তৈরি হচ্ছে উ. কোরিয়ার পরমাণু বোমা!

লাইক এবং শেয়ার করুন

হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে বাংলাদেশসহ কয়েকটি দেশের টাকা চুরি করে পরমাণু বোমা কার্যক্রম চালাচ্ছে উত্তর কোরিয়া। রাশিয়ার সাইবার নিরাপত্তা-সংক্রান্ত প্রতিষ্ঠান ক্যাস্পারস্কি ও কয়েকজন নিরাপত্তা বিশ্লেষকের বরাত দিয়ে তথ্যটি জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন। প্রতিবেদন অনুযায়ী, ১৮টি দেশের বিভিন্ন ব্যাংকে সাইবার আক্রমণ চালিয়ে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে উত্তর কোরিয়া। আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা বিশ্লেষকদের মতে, ওই অর্থ ব্যবহৃত হচ্ছে উত্তর কোরিয়ার পরমাণু অস্ত্র উন্নয়নে।

বিভিন্ন ব্যাংক ও নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা দাবি করেন, এর আগে বাংলাদেশসহ ইকুয়েডর, ফিলিপাইন ও ভিয়েতনামের বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা চালানো হয়। তবে ক্যাস্পারস্কির দাবি, লাজারুস নামে ওই হ্যাকার দলের সাইবার আক্রমণের শিকার শুধু এই চারটি দেশ নয়। এ ছাড়া কোস্টারিকা, ইথিওপিয়া, গেবন, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, ইরাক, কেনিয়া, মালয়েশিয়া, নাইজেরিয়া, পোল্যান্ড, তাইওয়ান, থাইল্যান্ড ও উরুগুয়ের বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠানও উত্তর কোরিয়ার করা এই সাইবার হ্যাকিংয়ের শিকার হয়।

প্রতিবেদনে ক্যাস্পারস্কি জানায়, নিজেদের অবস্থান লুকাতে হ্যাকাররা ভিন্ন ভিন্ন আইপি (নেটওয়ার্কের সঙ্গে সংযুক্ত থাকা কম্পিউটারের স্বতন্ত্র নম্বর) ও ঠিকানা ব্যবহার করেছে। এই হ্যাকার দল ফ্রান্স, দক্ষিণ কোরিয়া ও তাইওয়ানের বিভিন্ন ঠিকানা ব্যবহার করে হামলা চালায়। তবে ছোট্ট একটা ভুল করে ফেলে হ্যাকাররা। হ্যাকিংয়ের সময় একবার উত্তর কোরিয়ার আইপি ঠিকানা ব্যবহার করা হয়েছিল। আর ওই সূত্র ধরে নিরাপত্তা বিশ্লেষকদের জালে ধরা পড়ে ওই হ্যাকার দলটি।

এর আগে ২০১৪ সালে বিনোদনমূলক প্রতিষ্ঠান সনি পিকচার্সে সাইবার হামলার জন্য উত্তর কোরিয়াকে দায়ী করে যুক্তরাষ্ট্র। এ দুটি হামলার সঙ্গে হ্যাকার দল ‘লাজারুস’কে যুক্ত করা হয়। ২০১৫ সালে উত্তর কোরিয়া তাদের হ্যাকিংয়ের লক্ষ্যবস্তু পরিবর্তন করে। আক্রমণ করা শুরু করে বিশ্বের অন্য দেশগুলোর নিরাপত্তা ও ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠানগুলোতেও। এ তথ্য জানিয়েছে নিরাপত্তাবিষয়ক সংস্থা বিএই সিস্টেম, ফায়ারআই ও সিমেনটেক।

গত মার্চে ক্যাস্পারস্কির করা এক পর্যবেক্ষণে বলা হয়, সর্বশেষ ভিয়েতনামের একটি ব্যাংকে সাইবার হামলা চালায় উত্তর কোরিয়া। এ ছাড়া গেবন ও নাইজেরিয়ায় বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠানেও হামলা চালানো হয়। ওই অর্থ উত্তর কোরিয়ার পরমাণু অস্ত্র উন্নয়নে খাটানো হতে পারে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের অর্থ চুরির ঘটনার তদন্তকারী যুক্তরাষ্ট্রের আইনজীবীরা।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আরও অন্যান্য সংবাদ