AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

কলেজছাত্রী বুশরা হত্যায় খালাস পেলেন এম এ কাদের ও তার স্ত্রী রুনা আক্তার

লাইক এবং শেয়ার করুন

কলেজছাত্রী বুশরা হত্যা মামলায় খালাস পেলেন মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত এম এ কাদের ও তার স্ত্রী রুনা আক্তার। মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ এই রায় দেন। একই সঙ্গে নিম্ন আদালতে মৃত্যুদণ্ড পাওয়া ও পরে হাইকোর্টে খালাস পাওয়া আরও দুজনের খালাস আদেশ বহাল রয়েছে। তারা হলেন, শেখ শওকত আহমেদ ও শেখ কবির আহমেদ। তারা দুজনেই এম এ কাদেরের শ্যালক। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল খোন্দকার দিলিরুজ্জামান। আসামিপক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন।

দিলিরুজ্জামান জানান, রায়ের কপি পাওয়ার পর পর্যালোচনা করে রিভিউয়ের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। হাইকোর্ট শেখ শওকত আহমেদ ও শেখ কবির আহমেদকে খালাস দিয়েছিলেন। এই খালাস আদেশের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ আপিল করেছিল। এই আপিল খারিজ করে দিয়েছেন সর্বোচ্চ আদালত। রায়ের পর ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল খোন্দকার দিলিরুজ্জামান বলেন, হাইকোর্ট মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুজনকে খালাস দিয়েছিলেন। এর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ আপিল করেছিলেন। তা খারিজ হয়েছে। ফলে দুজনের খালাস আদেশ বহাল রয়েছে।

অন্যদিকে হাইকোর্টে মৃত্যুদণ্ড বহাল থাকা এম এ কাদের ও যাবজ্জীবন পাওয়া রুনা আক্তার আপিল করেছিলেন। তাদের আপিল মঞ্জুর করেছেন আদালত। ফলে তারাও খালাস পেলেন। ২০০৩ সালের ৩০ জুন বুশরা হত্যা মামলায় বিচারিক আদালত রায় দেন। রায়ে তিনজনকে মৃত্যুদণ্ড ও রুনা আক্তারকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়। ওই রায়ের বিরুদ্ধে আসামিরা আপিল করেন।

ডেথ রেফারেন্স শুনানির জন্য হাইকোর্টে আসে। ২০০৭ সালের ২৯ জানুয়ারি হাইকোর্ট রায় দেন। রায়ে শওকত আহমেদ ও কবির আহমেদ খালাস পান। অপর দুজনের দণ্ড বহাল থাকে। ২০০০ সালে কলেজছাত্রী বুশরাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়। নিজের শোয়ার ঘর থেকে তাঁর লাশ উদ্ধার করা হয় ।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও অন্যান্য সংবাদ