,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

লাউহাটরি পাচুরয়িা গ্রামরে মানুষ নজিরোই পাল্টে দচ্ছিে নজিদেরে এলাকার চত্রি

লাইক এবং শেয়ার করুন

 

মোঃনাজমুল হাসান: একজন সুনাগরকিইই পাড়ে তাদরে নজিদেরে সমস্যার সমাধান করত।ে সম্প্রতি টাঙ্গাইলরে দলেদুয়ার উপজলোর লাউহাটি ইউনয়িনরে পাচুরয়িা গ্রামরে মানুষ তাদরে নজিদেরে উদ্যোগে এবং সর্ম্পূণ নজিদেরে র্অথায়নে তরৈী করছে র্দীঘ দুই কলিোমটিার রাস্তা।রাস্তাটি নমিাণরে প্রধান উদ্যোগক্তা জাকরি হোসনে স্বপন,যার প্রচষ্টোয় এবং গ্রাম বাসীদরে স্মনতি প্রচষ্টোয় রাস্তা তরৈীর কাজ এগয়িে চলছ।ে পাচুরয়িা গ্রামটি ধলশ্বেরী নদীর তীরর্বতী হওয়ায় প্রতবিছরই ক্ষতগ্রিস্থ হয় গ্রামটি সে জন্য এখনো গ্রামটতিে উন্নয়নরে ছোয়া লাগনে।িপ্রায় র্দীঘ দুই যুগ ধরে বন্দী অবস্থায় জীবন-যাপন করছে তারা।রাস্তা না থাকার কারনে প্রতনিয়িত তারা র্দুভোগে দনি কাটাচ্ছ।ে কখনো ধলশ্বেরী নদীর পাড় দয়িে কখনো আবার মানুষরে বাড়রি উপর দয়িে বাঁশ ঝাড় ঝোপ জঙ্গল দয়িে যতেে হয় তাদরে।
আর বৃষ্টি হলে দুঃখে সীমা থাকে না মানুষ গুলোর।র্বষা মৌসুমে একটানা ২০-২৫ দনি পানি বন্দি থাকতে হয়।প্রতি দনি এই এলাকা থকেে শত,শত শক্ষিাথী লাউহাটি আস।েরাস্তা ঘাট না থাকায় চরম র্দুভোগ প্রহাতে হয় এসব এলাকার শক্ষর্িাথীদরে।এ এলাকায় যানবাহন তে দূররে কথা সাইকলে নয়িে যাওয়া কঠনি ব্যাপার। এলাকার বশেরি ভাগ মানুষ কৃষরি ওপর নর্ভিশীল ফলে প্রতদিনি তাদরে কৃষপিণ্য নয়িে যাতায়াতে কষ্ট বপিাকে পড়তে হয়।রাস্তা ঘাট না থাকায় এ এলাকায় মানুষ আত্মীয়তা করতে অনহিা প্রকাশ কর।েঅনকে সময় জরুরী রোগীদরে নয়িে বপিদে পড়তে হয়।
এলাকাবাসী আজাদ খান জানায় রাস্তা না থাকার কারণে আমরা র্অথনতৈকি ভাব,ে সামাজকি ভাবে অন্য সব এলাকার থকেে পছিয়িে আছ।িশুধু মাত্র রাস্তা না থাকার কারণে আমাদরে ছলেে মদেরে ভাল জায়গায় বয়িে দতিে পারি না,কউে এলাকার সাথে আত্মীতা করতে চায় না।মজ্জমে নামে একজন জানায়,আমরা কৃষি কাজ কর,িপ্রতদিনি কৃষি র্পণ্য নয়িে আমাদরে বাজারে যতে হয়, এতে করে আমাদরে চরম র্দুভোগে পড়তে হয়।ফজল নামে আরকে জন জানায়, রাস্তার কারণে র্বষা মৌসুমে আমাদরে পানতিে ভাসতে হয়,রাস্তাটি হলে র্বষা কালনি সময় আমরা অনায়াসে যাতায়াত করতে পাড়ব।হারুন ও সজবি নামে দুই শক্ষর্িাথী জানায় তাদরে চরম র্দুভোগরে কথা।আফছাড় নামে এক জন জানায়,আমরা সবার জন্য রাস্তা তরৈী করছ,িরাস্তাটি হলে আমরা সবাই মুক্তি পাবো।আর যার উদ্যোগে রাস্তাটি হচ্ছে সইে জাকরি হোসনে (স্বপন) র্অথায়ন সম্পকে জানায়,রাস্তাটি আমারা এলাকাবাসী ধন-িগরবি সবাই মলিে করছ,িএলাকাবাসীর কউে,কউে আমাকে দুই হালি ডমিরে পয়সাও দয়িছে।েতনিি আরো জানায়, আমাদরে ক্ষদ্রি র্অথায়নে রাস্তাটি করা কঠনি তবু আমরা চষ্টো করছ,িযদি জলো প্রশাসন কনিংবা বসেরকারি সহযোগতিা পতোম তবে সুন্দর ভাবে কাজটি সম্পূণ করতে পাড়তাম।
এই রাস্তাটি হলে তাদরে র্দীঘ দনিরে বন্দী অবস্থার মুক্তি মলিবে তারা স্বাধনি ভাবে চলা-চল করতে পাড়ব।েরাস্তাটি হলে শুধু পাচুরয়িা গ্রাম নয় আশপোশরে দশ হাজার মানুষরে চলাচলরে সুবধিা হব। এলাকাবাসী বলছে তাদরে ক্ষুদ্র র্অথায়নে রসস্তার পুরো কাজ করাটা কঠনি, তবে সরকারি সহযোগতিা পলে এ রাস্তা করা সহজ হব।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আরও অন্যান্য সংবাদ