AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

কুরবানির গরুর জবাই করা পশুর সেলফি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড়

লাইক এবং শেয়ার করুন

জবাই করা কুরবানির গরুর ওপর উঠে ছবি তোলায় সামাজিক মাধ্যমে (সোশ্যাল মিডিয়া) তোলপাড় শুরু হয়েছে। এমন উদ্ভট আচরণে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীরা লজ্জিত, অবাক এবং মর্মাহত বলে মন্তব্য করেছেন। কুরবানির পশু গরু জবাইয়ের পর তার ওপর বসে ছবি তুলে ফেসবুকে প্রকাশ করায় কয়েকটি ছবি ভাইরাল হয়েছে। তবে এসব ছবির মধ্যে দুটি ছবি নিয়ে আলোচনা বেশি হয়েছে। ছবি দুটি নিয়ে অনেকের মতো সিলেট (সাংবাদিক) উদয় জুয়েল ফেসবুকে একটি লাইভ ভিডিও প্রকাশক করেছেন ।
তিনি লাইভ ভিডিও তে বলেন : দেখেন মানুষ নামে অমানুষের বাচ্চাদের কাণ্ডজ্ঞান। নিথর অবলার গায়ে একপাল পশুই সাক্ষ্য দিচ্ছে, পশুত্বের কুরবানি হয়নি।ত্যাগ ও ইবাদত কবুলের ঈদ হলো ঈদুল আজহা। ত্যাগের মহিমায় মুসলমানদের তাকওয়ার পরিচয় দিতেই পশু জবাই করা হয়। কুরআন এবং হাদিসে বলা হয়েছে, মহান আল্লাহর কাছে কুরবানির পশুর রক্ত, মাংস কিছুই পৌঁছে না। পৌঁছে শুধু নিয়্ত এবং তাকওয়া।

জিলহজ মাসের ১০ তারিখ ঈদুল আজহা উদযাপিত হলেও পরের দুদিন অর্থাৎ ১১ ও ১২ জিলহজও পশু কুরবানির বিধান রয়েছে। রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অনেকে ওই দুদিনও পশু কুরবানি করে থাকেন। কুরবানির মধ্য দিয়ে নিজের ভেতরের পশুত্বকে পরিহার করা ও হজরত ইব্রাহিম (আ.)-এর মহান আত্মত্যাগের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে মঙ্গলবার সকালে মুসল্লিরা ঈদুল আজহার দুই রাকাত ওয়াজিব নামাজ আদায় করেছেন। কিন্তু কুরবানির ঈদের এই দিনে পশু জবাই করার পর এবং জবাই করার সময় পশুকে কে কষ্ট দেওয়া হয়েছে মহান আল্লাহ ক্ষমা করবেন কিনা তিনিই ভালো জানেন। এসব বিষয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে এমন ছবি আপলোড করা ন্যক্কারজনক।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও অন্যান্য সংবাদ