বাকেরগঞ্জের এসএম পলাশের কবিতা ‘ফিরে এসো মানবতা’ আজ লাখো মানুষের মুখে মুখে

৩৯ বার পঠিত

অপূর্ব লাল সরকার, বরিশাল # কবি, গল্পকার, চিত্রশিল্পী, সাংবাদিক ও সংগঠক এসএম পলাশের বিখ্যাত কবিতা ‘ফিরে এসো মানবতা’ বাকেরগঞ্জসহ বরিশালের লাখো মানুষের মুখে মুখে ফিরছে। বাকেরগঞ্জের কৃতী সন্তান এসএম পলাশ এ পর্যন্ত তার লেখা কবিতামালার মধ্যে জীবনের শ্রেষ্ঠ কবিতা মনে করেন এটিকে। গত তিন মাস আগে কবিতাটি প্রথম ইউটিউব এবং ফেইসবুকে আপলোড করা হয়। ফেইসবুকে বর্তমানে যার ভিউয়ার্স সংখ্যা পাঁচ সহস্রারাধিক, শেয়ার প্রায় তিন’শ’। অনলাইনে প্রকাশ হওয়ার পর থেকেই দেশ বিদেশ থেকে অগণিত কবিতাপ্রেমীরা কবি পলাশকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানাতে থাকে।

পরে বাকেরগঞ্জবাসীকে কবিতাটি শোনার ও দেখার জন্য স্থানীয় স্বাধীন বাংলা ক্যাবল নেটওয়ার্কে সম্প্রচার করা হয়। দর্শকদের অনুরোধে দু’মাস পর্যন্ত ‘ফিরে এসো মানবতা’ কবিতাটি আবৃত্তির সম্প্রচার চলছে। একাধিক দর্শক জানান, এসএম পলাশের এই কবিতাটি বর্তমান সময়ের প্রেক্ষাপটে শ্রেষ্ঠ আবেদন। আমরা প্রতিদিন অন্তত: একবার এই কবিতাটি শুনতে চাই। বাকেরগঞ্জের যেখানে কোন অনিয়ম ঘটে সেখানেই পলাশের মানবতা কবিতার কথা উল্লেখ করা হয়। এ পর্যন্ত যারা কবিতাটি শুনেছেন তাদের প্রত্যেকের মন্তব্য একই- ‘ফিরে এসো মানবতা’ কবিতায় কবি পলাশ বর্তমান বিশ্বের নানান অসঙ্গতি তুলে ধরে মানবতার যে আকুতি প্রকাশ করেছেন তা অসাধারণ। তার এ কবিতাটি জাতীয় সম্প্রচার মাধ্যমে প্রচার করে দেশের প্রত্যেকটি মানুষকে জানাতে পরলে সুপ্ত মানবতা বোধ জাগ্রত হবে বলে মনে করেন এলাকার সুশীল সমাজ।

বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী এসএম পলাশ লেখালেখি শুরু করেন ২০০০ সাল থেকে। তার প্রথম কাব্য প্রকাশিত হয় ২০০৫ সালে। এরপর ২০১২ সালে ‘রক্তচোষা’ লিখে সাহিত্য অঙ্গনে ব্যাপক আলোচনার ঝড় তোলেন এই তরুণ। বইটি রেকর্ড সংখ্যক বিক্রিও হয়েছে। শিল্প সাহিত্যের সকল শাখায় তার অবাধ বিচরণ রয়েছে। ছবি পেইন্টিং, কারু শিল্প, অভিনয়, আবৃত্তি, কম্পিউটার গ্রাফিক্স, ইন্টারনেট, সম্পাদনাসহ নানান কাজে তার দক্ষতার প্রতিফলন ঘটিয়েছেন। সম্পাদনা করেছেন সাহিত্য পত্রিকা ‘গ্রামীণ কন্ঠ’। দেশীয় ফ্যাশন ডিজাইনের আড়ালে থেকে কাজ করেছেন দেশের নামী দামী ফ্যাশন হাউজে। তার নিজের হাতে তৈরী কারুপণ্য বিক্রি করেছেন ঢাকার নিউ মার্কেট ও চন্দ্রিমা মার্কেটে। ২০০৭ সালে বাকেরগঞ্জের বোয়ালিয়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর বৃহৎ ছবি পেইন্টিং করে এলাকায় আলোড়ন তৈরী করেন।

অবাক হওয়ার বিষয় এসএম পলাশের কোন প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা নেই। তিনি স্বশিক্ষায় শিক্ষিত আলোকিত একজন মানুষ। তিনি জানান, আজ পর্যন্ত যা করেছেন তা তিনি শিখেছেন বিভিন্ন বই-পত্রিকা পড়ে, চারপাশের মানুষের যাপিত জীবন দেখে। হাতে টাকা থাকলে ভালো খাবার কিংবা পোশাক না কিনে বই কিনেছেন। ঢাকায় থাকতে রঙ্গীন আলোর শপিং কমপ্লেক্সে না ঘুরে নীলক্ষেতে বইয়ের দোকানে দোকানে ঘুরে বেড়িছেন। এমনও দিন গেছে রাতে খাবার টাকা দিয়ে বই কিনে নিয়ে এসেছেন। নাম-সুনাম কিম্বা অর্থকড়ি নয়, মানবিক দায়িত্ববোধ থেকেই লিখে চলছেন অরিরাম। সভ্য সুন্দর স্বদেশ গড়ার লক্ষে কাজ করে যাওয়াই তার স্বপ্ন এবং সাধনা।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

অপূর্ব লাল সরকার, বরিশাল প্রতিনিধি #

01912-346484

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com