কানাইঘাটে স্বামীকে সুস্থ করতে শিশু কন্যা হত্যার দায়ে মা গ্রেফতার

১৫ বার পঠিত

জুনায়েদ চৌধুরী জীবন,সিলেট :: সিলেটের কানাইঘাট উপজেলায় কবিরাজের কথা শুনে অসুস্থ স্বামীকে সুস্থ করে তুলতে নিজের গর্ভজাত ৩৫ দিন বয়সী কন্যা সন্তানকে পুকুরের পানিতে ডুবিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে মায়ের বিরুদ্ধে। পুলিশ ৫ সন্তানের জননী সুফিয়া বেগমকে (৩৬) গ্রেফতার করেছে। উপজেলার লক্ষীপ্রসাদ পূর্ব ইউনিয়নের কাড়াবাল্লা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এলাকায় এ নিয়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

পুলিশ সূত্র জানায়, কাড়া বাল্লা গ্রামের আব্দুর রহিমের স্ত্রী সুফিয়া বেগমের ৩৫ দিনের শিশু কন্যা তাহমিনা জান্নাত মাইশার লাশ পুকুরে পড়ে রয়েছে-এমন সংবাদের ভিত্তিতে কানাইঘাট থানার ওসি হুমায়ুন কবিরের নেতৃত্বে একদল পুলিশ বাড়ি থেকে তার লাশ উদ্ধার করে। এ সময় পুলিশ মাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদে সুফিয়া বেগম একেক সময় একেক কথা বলে। সুফিয়া বেগমের বরাত দিয়ে ওসি জানান, তার(সুফিয়া) স্বামী আব্দুর রহিম দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ। স্বামীকে সুস্থ করে তুলতে কবিরাজের কথা মতো সে মাইশাকে পুকুরে ফেলে হত্যা করে থাকতে পারে। শিশু মাইশার পায়ের তালুর এক টুকরো মাংস নেই বলে ওসি স্থানীয় সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

শিশু মাইশার লাশ ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। জিডিমূলে সুফিয়াকে আটক করে মঙ্গলবার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। প্রয়োজনে তাকে রিমান্ডে নেয়ার আবেদন জানানো হবে। সুফিয়া বেগম জানিয়েছেন, রোববার গভীর রাতে তিনি স্বপ্নে দেখেন-তার মেয়ে তাহমিনা জান্নাত মাইশার লাশ বাড়ীর পুকুরে পড়ে রয়েছে। স্বপ্ন দেখে ঘুম থেকে জেগে শোর চিৎকার শুরু করলে তার মেয়ের লাশ পুকুর থেকে উদ্ধার করেন স্থানীয় লোকজন।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com