জমে উঠছে ছেলেদের ঈদ বাজার

২৪ বার পঠিত

উদয় জুয়েল : সিলেট নগরীর মার্কেট এবার  ছেলেদের বাহারি পোশাকের মেলা, ঈদে সাধারনত নগরীর মেয়েদের কেনাকাটা স্বাভাবিকের তুলনায় একটু বেড়ে যায়। তবে ছেলেদের কেনাকাটা বিভিন্ন উদযাপনে জমে উঠেছে এবারের ঈদ বাজার।  ঈদ যতোই ঘনিয়ে আসছে ততোই যেনো নগরীর বিভিন্ন মার্কেট ও শপিং মলগুলোতে ছেলেদের কেনাকাটা জমে উঠছে। বন্ধুদের নিয়ে মাকের্টের এদিক ওদিক ঘুরে বেড়াচ্ছে আর পছন্দ হলে দাম কষাকষি করে কিনেছে ঈদ সেরা পোশাকটি।

ছেলেদের প্রধান ও অন্যতম ঈদ পোশাক পাঞ্জাবি। নতুন পাঞ্জাবি পড়ে সিলেট ঈদগাহ না গেলে যেনো ঈদের সকাল মাটি হয়ে যায়। তাই স্বাভাবিকভাবে ছেলেদের ভিড় পাঞ্জাবি দোকান ও নগরীর  বিভিন্ন মাকের্টে। এবার ঈদে নগরীতে বিভিন্ন ডিজাইন ও রঙের শার্ট, টি শার্ট ও প্যান্টে রয়েছে ছেলেদের শপিং তালিকায়। সেজন্য বিভিন্ন নামি দামি হাউজগুলোতে ঘোরাঘুরি করে নিজের পছন্দের সেরা জিনিসটি কিনে বাড়ি ফিরে যাচ্ছেন তারা।

স্টাইলের কথা মাথায় রেখে বিভিন্ন শপিংমল, মাকের্ট এবং ফ্যাশন হাউজগুলো পরিবর্তনের নতুন ছোঁয়ায় সাজানো হয়েছে। বর্তমানে ‘হট লুক’ আনতে রঙ্গিন প্যান্ট এখন ফ্যাশন তরুণদের প্রথম পছন্দ। অন্যদের চেয়ে একটু আলাদা ও স্মার্ট সাজাতে নামদামি ব্র্যান্ডের পণ্য কিনতে ভিড় করছে এখানে সেখানে।

সিলেট নগরীর কোথায় হাতের নাগালেন মধ্যে ছেলেদের ঈদ পোশাকটি পাওয়া যাবে?

ব্লু-ওয়াটার : দেশি বিদেশি পোশাকে সেজেছে নগরীর জিন্দাবাজারের ব্লু-ওয়াটার শপিং সেল্ফি শার্ট ২৪০০ টাকা , প্যান্ট ৭০০ টাকা থেকে ১২৫০ হাজার টাকা, ফতুয়া সাড়ে ৩০০ টাকা থেকে ১২০০ টাকা, পাঞ্জাবি ১২০০ টাকা থেকে সাড়ে ৪ হাজার টাকা, শেরোয়ানি ২ হাজার থেকে সাড়ে ১৪ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে

আল-হামরা : শার্ট ৫০০ টাকা থেকে ২ হাজার টাকা, প্যান্ট ৭০০ টাকা থেকে ১ হাজার ৮৫০ টাকা, ফতুয়া সাড়ে ৩০০ টাকা থেকে ১২০০ টাকা, পাঞ্জাবি ১২০০ টাকা থেকে সাড়ে ৪ হাজার টাকা, শেরোয়ানি ২ হাজার থেকে সাড়ে ১৪ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে

শুকরিয়া : দেশি বিদেশি পোশাকে সেজেছে নগরীর জিন্দাবাজারের শুকরিয়া মার্কেট  শার্ট ৬০০টাকা থেকে ২৪০০ টাকা , প্যান্ট ৭০০ টাকা থেকে ১২৫০ হাজার টাকা, ফতুয়া সাড়ে ৩০০ টাকা থেকে ১২০০ টাকা, পাঞ্জাবি ১২০০ টাকা থেকে সাড়ে ৪৫ হাজার টাকা, শেরোয়ানি ২ হাজার থেকে সাড়ে ১৪ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে

সিলেট নগরীর জিন্দাবাজারস্থ ব্লু-ওয়াটার মাকেটের  ৫ তলায় ফাস্ট চয়েজ স্বত্বাধীকারী জুনেদ আহমদ জানান, দিন দিন ক্রেতাদের ভীড় বাড়ছে। স্কুল-কলেজ ছুটি থাকায় এখন থেকেই মার্কেটগুলোতে তরুণীদের ভিড় বাড়ছে।  তরুণদের পোশাক বিক্রি হচ্ছে বেশি। এসব পোশাকে বৈচিত্রও বেশি। পোশাকের রঙ, কাট ও আবহাওয়ার সঙ্গে মানানসই কাপড়ের প্রাধান্য পেয়েছে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শহীদুর রহমান জুয়েল, সিলেট ব্যুরো #

শহীদুর রহমান জুয়েল (উদয় জুয়েল), সিলেট ব্যুরো ০১৭২৩৯১৭৭০৪

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com