সিলেট নগরীতে আশংকাজনক হারে বাড়ছে যানজট

এই সংবাদ ১৭ বার পঠিত

বাংলাদেশের তৃতীয় বৃহত্তর নগরী সিলেট ৭০০ বছরের পুরোনো শহরটি ক্রমেই পরিণত হচ্ছে বড় একটি নগরীতে, বাড়ছে মানুষজনের বসতি, বাড়ছে ব্যস্ততা। আর এরই সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে নগরীর যানজট। যানজট নিরসনে সিলেট সিটি কর্পোরেশন, জেলা প্রশাসন ও ট্রাফিক পুলিশ প্রশাসনের সমন্বিত উদ্যোগে গৃহিত হয়েছে নানা পদক্ষেপ, তবে ক্ষেত্রবিশেষে এ সকল পদক্ষেপ নগরীকে আরো বেশি যানজটের দিকে ঠেলে দিচ্ছে।
নগরীর অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট রিকাবীবাজার কাজী নজরুল ইসলাম চত্ত্বর। এ চত্বরের পাশেই জেলা পুলিশের কার্যালয়, কবি নজরুল অডিটোরিয়াম, সিলেট জেলা স্টেডিয়ামসহ নগরীর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কিছু স্থাপনা। এ পয়েন্টের ব্যস্ততার কমাতে নেয়া পদক্ষেপ আরো বেশি যানজট লাগাচ্ছে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা।

মুন্সীপাড়ার বাসিন্দা রুবেল আহমদ কুয়াশা বলেন, জেলা পুলিশের কার্যালয়ের সামনেই একটা ওয়ান ওয়ে পাসিংকে নিয়ন্ত্রণের জন্য বাঁশ দিয়ে বেরিকেড দেয়া হয়েছে যেনো কোন গাড়ি পয়েন্ট না ঘুরে এদিক দিয়ে যেতে না পারে। কিন্তু কে মানে কার নিয়ম, বরং আরো সময় নিয়ে এ বাঁশের বেড়ার এপাশ ঘুরে ওপাশের ওয়ানওয়েকে টুওয়ে রোড বানাচ্ছে সবাই, ফলে এ পয়েন্টের যানজট আরো বাড়ছে।

এদিকে রিকাবীবাজার চৌহাট্টা সড়কের মাঝখানে দাড়িয়াপাড়া প্রবেশের জন্য ক্রসকাটটি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে, এর ফলে গলির মধ্যে যানজট একটু কমলেও বেড়ে গেছে লামাবাজার-রিকাবীবাজার এলাকার যানজট।

কাজিরবাজার সেতুর উদ্বোধনের পর রিকাবীবাজার-লামাবাজার সড়কের ব্যস্ততার বেড়েছে বহুলাংশে। ছোট গাড়ি ও রিক্সা জিন্দাবাজারে যাওয়া জন্য আগে দাড়িয়াপাড়া সড়ক ব্যবহার করলেও বর্তমানে এ ক্রসকাটের এন্ট্রি বন্ধ থাকায় সবাইকে লামাবাজার পয়েন্ট ঘুরেই যেতে হচ্ছে। এছাড়াও সড়ক সংস্কারের কারণে ভাতালিয়া গলি দিয়েও যাতায়াত করছে না কোন যানবাহন, এতে রিকাবীবাজার ও লামাবাজার সড়কের উপর চাপ বেড়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এ সড়কে প্রায় সারাক্ষণ যানজট লেগে থাকতে দেখা গেছে।

এদিকে নগরীর মদিনা মার্কেট পয়েন্টে বাগবাড়ির সড়কের প্রবেশ পথে লোহার বার দিয়ে ক্রসকাট প্রবেশ বন্ধ করা হয়েছে। এতে মদিনা মার্কেটে জ্যাম বেড়েছে আরো বেশি, ভোগান্তি বেড়েছে বাগবাড়ি এলাকার বাসিন্দাদের, এমন অভিযোগ স্থানীয় ব্যবসায়ী ও জনসাধারণের।পার্শ্ববর্তী সালাম টাওয়ারের স্বত্ত্বাধিকারী মাহিদ আল সালাম বলেন, আমার বিল্ডিংটি মদিনা মার্কেট পয়েন্ট সংলগ্ন। কিন্তু এখানে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণের জন্য দেয়া ব্যারিকেডের কারণে আমাদের বিল্ডিং সামনে একটা মুহূর্তের জন্য যানজট মুক্ত থাকে না।

একই অবস্থা নগরীর অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ প্রতিটি সড়কেরই। আম্বরখানা, চৌহাট্টা, জিন্দাবাজার, বন্দরবাজার, নয়াসড়ক, নাইওরপুল, মিরাবাজার, ঈদগাহ, শিবগঞ্জ, সোবহানীঘাট, উপশহর, টিলাগড়, শেখঘাটসহ নগরীর প্রত্যেকটি গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ও পয়েন্টে যানজট প্রবল হয়ে উঠছে। এ প্রসঙ্গে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সিলেট সিটি কর্পোরেশন, জেলা প্রশাসন ও ট্রাফিক পুলিশ প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন নগরবাসী।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শহীদুর রহমান জুয়েল, সিলেট ব্যুরো #

শহীদুর রহমান জুয়েল (উদয় জুয়েল), সিলেট ব্যুরো ০১৭২৩৯১৭৭০৪

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com