আজ বৃহস্পতিবার, ৬ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং, ২৯শে জিলহজ্জ, ১৪৩৮ হিজরী, শরৎকাল, সময়ঃ দুপুর ১২:৫৪ মিনিট | Bangla Font Converter | লাইভ ক্রিকেট

রাজাপুরে এবার নকলের পক্ষে শিক্ষার্থীদের বাধ্য করে মানববন্ধন করানোর অভিযোগ !

রাজাপুর (ঝালকাঠি) প্রতিনিধি ঃ ঝালকাঠির রাজাপুরের আদাখোলা মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এবার নকলের পক্ষে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ওই মানববন্ধনে পরীক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে বাধ্য করারও অভিযোগ উঠেছে কথিত এক সাংবাদিকের বিরুদ্ধে। পরে বিষয়টি সমালোচনার মুখে পড়লে পরীক্ষার্থীরা মানববন্ধন বয়কট করে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার আদাখোলায় এ ঘটনা ঘটে।
শিক্ষার্থীরা জানায়, মঙ্গলবার দুপুরে পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে মনিরুজ্জামান খান নামে একজন কথিত সাংবাদিক পরীক্ষা হলে প্রবেশ করে সকল শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা শেষে একটি মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করতে হবে বলে জানান। এসময় শিক্ষকদের প্রশ্নের জবাবে পরীক্ষা হল রক্ষা করতে হলে এ মানববন্ধন করা জরুরী বলে ওই কথিত সাংবাদিক তাদের জানান। দুপুর ১টায় পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর তিনি নিজে একটি ব্যানার বের করে পরীক্ষার্থীদের হাতে তুলে দিয়ে তাদের লাইনে দাঁড় করিয়ে দেন। ওই ব্যানারে পরীক্ষা হলে সাংবাদিকদের প্রবেশ করে যাতে ছবি তুলতে না পারে সে বিষয়ে উল্লেখ ও এমনকি সাংবাদিকরা ওই কেন্দ্রে নকলের ছবি তুলে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করেছে বলেও উল্লেখ করা হয়। পাঁচ মিনিটের এ ঝটিকা মানববন্ধনের ব্যানার ও বিষয়বস্তু জেনে শিক্ষকসহ এলাকাবাসী হতবাক হয়ে যান। এসময় এলাকাবাসী ও সচেতন মহল ওই মানববন্ধনে প্রতিবাদ করলে তিনি সদলবলে সটকে পড়েন।
এ বিষয়ে ওই কেন্দ্রের এক কক্ষ পরিদর্শক জানান, ‘নকলের পক্ষে কোন মানববন্ধন এখানে হয়নি। হঠাৎ করে কয়েকজন লোক কেন্দ্রে এসে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে আমাদের বলে যে, মানববন্ধন করতে হবে না হলে আপনাদের কেন্দ্র বাতিল হয়ে যাবে। পরে তার ব্যক্তিগত স্বার্থ হাসিলের বিষয়টি আমরা বুঝতে পারি। তবে মানববন্ধনে আমরা কাউকে যেতে বলিনি।’
এ বিষয়ে নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক পরীক্ষার্থী বলেন, আমাদের মানববন্ধনে জোর করে ডেকে আনা হয়েছে। এমনকি পরীক্ষা শেষে অন্যদের টেনে টেনে মানববন্ধনে দাঁড় করিয়ে দেন মনির নামে একজন সাংবাদিক। এসময় তার সাথে থাকা আরো ৪-৫জন নিজেরাও লাইনে দাঁড়িয়ে মানববন্ধনে অংশ নেয়।
প্রসঙ্গত, এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হওয়ার পর গত ৫ এপ্রিল আদাখোলা মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে বিজনেস ম্যানেজমেন্ট শাখার ইংরেজি বিষয়ের পরীক্ষায় সাংবাদিকরা ওই কেন্দ্রে অনিয়মের কিছু সংবাদ প্রকাশ করে। এরপরেই নাম সর্বস্ব সাংবাদিক মনির তার ব্যক্তি স্বার্থ চরিতার্থ করার উদ্দেশ্যে ও নকলের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়া সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্যা, বানোয়াট ও কুরুচিপূর্ন বক্তব্য প্রদান করে আসছে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com