আজ শুক্রবার, ৭ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং, ১লা মুহাররম, ১৪৩৯ হিজরী, শরৎকাল, সময়ঃ রাত ১০:৫৯ মিনিট | Bangla Font Converter | লাইভ ক্রিকেট

হালুয়াঘাটে প্রেমিক যুগল আটক; ৩০ হাজার টাকায় ধামাচাপা

হালুয়াঘাটের  উপজেলার শাকুয়াই উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীর সাথে প্রেমের খেসারত হিসেবে প্রেমিক আলামিনের ৩০ হাজার টাকার বিনীময়ে  ধামাচাপা দিয়েছে একটি অসাধু চক্র। পাশাপাশি এই টাকা স্থানীয় এক মাতব্বর বাবুল (সাবেক) মেম্বার আত্বসাৎ করেছেন বলে মেয়ের পিতা ও মাতা অভিযোগ করেছেন। ঐ শিক্ষার্থী শাকুয়াই ইউনিয়নের ফনিয়া গ্রামের এক হতদরিদ্র মাঝির কন্যা। সরেজমিনেনে তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করে জানা যায়, শিক্ষার্থী সমলা খাতুনের  ( ছদ্ধনাম) সাথে প্রায় ৮ মাস পুর্বে থেকে মোবাইল ফোনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে হালুয়াঘাট উপজেলার ধারা বাজারের আলহাজ্ব গিয়াসউদ্দিনের পুত্র আলামিনের (২২) সাথে।

এরই সুত্র ধরে গত ১১ সেপ্টেম্বর সোমবার সকাল বেলায় শিক্ষার্থী সমলা বাড়ি থেকে স্কুলে যাওয়ার কথা বলে আলামিন কে নিয়ে লাপাত্তা হয়। তাদের উদ্দেশ্য ছিলো ঢাকা যাওয়ার। কিন্তু বাড়ি থেকে ঢাকা যাওয়ার পথে পাশ্ববর্তী উপজেলা ফুলপুর নামক স্থানে সমলার প্রতিবেশি এক যুবক আনারুল তাদের দুজনকে দেখতে পেয়ে পথরোধ করে। পরে আশপাশের কতিপয় লোকের সহযোগিতায় এই প্রেমিক যুগলকে আটক করে সমলার নিজ গ্রাম ফনিয়াই  নিয়ে যায়। খবর পেয়ে প্রেমিক আলামিনের ভাই সোহেল সহ কতিপয় লোক ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। ঐ দিনই রাতের আধারে ঘটে বিচারের নামে রফাদফা। প্রকাশ্যে বাবুল মেম্বারের নেতৃত্বে দরবারে ৩০ হাজার টাকার বিনীময়ে ছাড়া পায় আলামিন। গোপন সুত্রে জানা যায়, এই ত্রিশ হাজার টাকার বাহিরেও আরও ৩০ হাজার টাকা স্থানীয় মাতব্বরগণ আত্বসাৎ করে।

শুধু তাই নয়, প্রকাশ্যে রায়ের ৩০ হাজার টাকাও সমলার পরিবার পাননি বলে জানান। এ বিষয়ে বাবুল মেম্বারের সাথে কথা বললে তিনি ৩০ হাজার টাকা রায়ের কথা অকপটে স্বীকার করেন। তবে এই টাকা মেয়ের পরিবার বুঝে পেয়েছেন কিনা তার সুস্পষ্ট উত্তর তিনি দিতে পারেননি। সমলার পিতা ও মাতা জানান, দরবারের দিন স্থানীয় মাতব্বর সাবেক মেম্বার বাবুল সহ কতিপয় লোক দরবার করে এই ঘটনাটা ৩০ হাজার টাকার বিনীময়ে ফয়সালা করে দিয়েছে। তবে তাকে এখনো পর্যন্ত কোন টাকা দেওয়া হয়নি। এই টাকা বাবুল সহ কতিপয় লোক আত্বসাৎ করার পায়তারা করছে বলে অভিযোগ করেন।

প্রেমিক আলামিনের ভাই নুরা আহাম্মদ বলেন, আলামিনের আটকের খবর পেয়ে তার ভাই সোহেল সহ কয়েকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে আলামিন কে ছাড়িয়ে আনেন। তবে কত টাকা দিয়েছেন তা তিনি বলতে পারেননি। সোহেলকে পরে জিজ্ঞেস করলে পাশ কাটিয়ে যান।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com