আজ বুধবার, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং, ২৮শে জিলহজ্জ, ১৪৩৮ হিজরী, শরৎকাল, সময়ঃ বিকাল ৫:১৪ মিনিট | Bangla Font Converter | লাইভ ক্রিকেট

রাজাপুরে নির্বাচন কর্মকর্তার আচরনে অতিষ্ট উপজেলাবাসী ॥

রাজাপুর(ঝালকাঠি)প্রতিনিধিঃ ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ আবু ইউসুফ এর স্বেচ্ছাচারিতায় চরম দূর্ভোগের মধ্যে রয়েছে উপজেলাবাসী। জাতীয় পরিচয় পত্রের স্থান পরিবর্তন,নাম সংশোধনীসহ কোনো কাজই নির্বাচন কর্মকর্তার স্বাক্ষর ছারা হয়না। অথচ সেই নির্বাচন কর্মকর্তাকে কোন দিনই রাজাপুর উপজেলা নির্বাচন অফিসে গিয়ে পাওয়া যায়না। গত ১ মাস যাবৎ প্রতিদিন একবার এই প্রতিবেদক ঐ নির্বাচন অফিসে যাতায়ত করেও ঐ কর্মকর্তার সাক্ষাত পাননি। যখনই অফিসে যাওয়া হয় তখই অফিস থেকে বলা হয় স্যার পথে আসতেছেন। সে হোক সকাল ১১টা বা দুপুর ২টা। নির্বাচন কর্মকর্তার স্বেচ্ছাচারিতায় চরম দূর্ভোগের মধ্যে রয়েছে রাজাপুর উপজেলাবাসী। ভূক্তভূগী কয়েকজনে অভিযোগ করেন বলেন,সাপ্তাহের পর সাপ্তাহ ঘুরেও কাজ করাতে পারছিনা। অফিসে আসলেই অফিস থেকে বলেন স্যার কাল আসবেন। সামান্য কাজের জন্য এভাবেই সাপ্তাহের পর সাপ্তাহ আমাদের ঘুরতে হয়। আবার কখনো যদি কারো সাথে ঐ কর্মকর্তার দেখা হয় তখন তিনি ঐব্যক্তির সাথে অত্যান্ত খারাপ আচারন করেন বলে একাধীক অভিযোগ রয়েছে। এরকই একজন খায়রুল ইসলাম-তিনি জানান, আমার নামে ১টি ভুল রয়েছে সার্টিফিকেট ও আইডি কার্ডের মধ্যে। আমি ব্যাংক ড্রফটসহ সকল কাগজ পত্রাদী নিয়ে ঐ কর্মকর্তার কাছে যাই। রাজাপুর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার ভাষাযে এতোটা খারাপ আগে বুঝিনি। শেষপর্যন্ত আমার নামের ভুল সংশোধন করাইনি। উপজেলার বাঘরী গ্রামের আবদুল রশিদ খান এর নাম সংশোধন। সে নিয়েও নির্বাচন কর্মকর্তার তাল বাহানা। নামের সংশোধন করাতে আজ অবধী পারেনি তারা।
মোঃ আবু ইউসুফ গত ১৫জুন ২০১৭ রাজাপুর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা হিসাবে যোগদান করেন। যোগদান করার পর থেকে সাপ্তাহে কোনো একদিন এসে প্রয়োজনীয় কাজ করে চলেযান। বার বার তার নাম্বারে ফোন দিলেও সে কখনোই ফোন রিসিভ করেনা। ২৪ আগষ্ট দুপুর ১২ঃ৪০ মিনিট পর্য়ন্ত ৫বার ০১৭১১৫৮৯১৮২ নাম্বারে ফোন দিলেও তা রিসিভ করেনি। মঙ্গবার সকাল ১১ঃ২০মিনিট পর্যন্ত সে অফিসে আসেনি। বুধবার সারাদিনে তিনি অফিসে আসেননি। বৃহস্পতিবার অফিসে আসেনি। বিকাল সাড়ে ৩টায় তার নাম্বারে ফোন দিলে রিসিভ করে বলেন আমি ঝালকাঠিতে আছি। সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে উপরোক্ত বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আবু ইউসুফ সাহেব জেনো তেলে বেগুনে জ¦লে ওঠেন। বলেন আপনি জানার কে ? আপনি যা করতে পারেন করেন। আমি আমার অফিসের সাথে বুঝবো।

 

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com