আজ শুক্রবার, ৭ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং, ১লা মুহাররম, ১৪৩৯ হিজরী, শরৎকাল, সময়ঃ দুপুর ১:৫৭ মিনিট | Bangla Font Converter | লাইভ ক্রিকেট

মরহুম হাজী আকমল আলী সিদ্দিকী কল্যাণ ট্রাস্টের আয়োজিত ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পিং অনুষ্ঠিত

আ,হ,জুবেদ মৌলভীবাজার #  গতকাল ১৮ই মে ২০১৭ইং রোজ বৃহস্পতিবার মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার ভাটেরা ইউনিয়নে মদিনাতুল উলুম সাইফুল-তাহমিনা আলিম মাদ্রাসায় মরহুম হাজি আকমল আলী সিদ্দিকী কল্যাণ ট্রাস্টের উদ্যোগে সারাদিন ব্যাপী ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পিং অনুষ্ঠিত হয়েছে। উক্ত ফ্রি চিকিৎসা ও বিনামূল্যে ঔষধ বিতরণ অনুষ্ঠানে আশাপাশ এলাকার প্রায় দেড় হাজার দরিদ্র ও হত দরিদ্র মানুষদেরকে ঢাকা, সিলেট ও মৌলভীবাজার থেকে আগত ৭ জন অভিজ্ঞ ডাক্তারের মাধ্যমে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়েছে।

 
যুক্তরাজ্য প্রবাসী বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও সংগঠক ট্রাস্টি জুবায়ের সিদ্দিক সেলিমের মাতার মেডিকেল ক্যাম্পিং উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় এই সেবামূলক কার্যক্রম। এদিকে বৈরি আবহাওয়া থাকা সত্ত্বেও উক্ত চিকিৎসা ক্যাম্পিং স্থল লোকে লোকারণ্য ছিল।ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পিং উদ্যোক্তা জুবায়ের সিদ্দিক সেলিম বলেন, আমি উদ্যোগ গ্রহণ করেছিলাম আমার নিজ ইউনিয়নের বাসিন্দা চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত ৪শত দরিদ্র লোককে চিকিৎসা সেবা প্রদান করবো, কিন্তু সেখানে প্রায় দেড় হাজার রোগীকে সেবা প্রদান করতে হয়েছে। ফলে একদিকে যেমন সেবা নিতে আসা  রোগীদেরকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়েছে; ঠিক তেমনই ডাক্তারদেরকেও দীর্ঘ সময় ধরে বিরামহিনভাবে চিকিৎসা সেবা দিতে হয়েছে।
 
তরুণ এই সংগঠক বলেন, আমাদের এই জনকল্যাণ মূলক কাজে আশাপাশ এলাকার মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতি দেখে সমাজ ও সমাজের মানুষের জন্য আরও বেশি ভালো কিছু করার উৎসাহ যুগিয়েছে আমাকে। তিনি বলেন, মানুষ ভুলের উর্ধ্বে কেউই নয়, তাই সদ্য অনুষ্ঠিত ক্যাম্পিং এর মাধ্যমে আমারও হয়তোবা অনিচ্ছাকৃত ভুল হতে পারে কিংবা কেউ আমার মাধ্যমে কষ্ট পেতে পারেন, এজন্য আমি চিকিৎসা সেবা নিতে আসা সকলের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি।
 
প্রবাসী সংগঠক জুবায়ের সিদ্দিক সেলিম বলেন, আমার উদ্দেশ্য ছিল যতগুলো মানুষ চিকিৎসা সেবা নিতে এসেছে তারা কেউ যেনো; চিকিৎসা সেবা না নিয়ে বাড়ি ফিরে। ফলে একসময় যদিও নির্ধারিত রোগীদের সংখ্যা ছাড়িয়ে গিয়েছিল; যেকারণে রোগীদের তুলনায় ঔষধের সল্পতা অনুভব করার সাথে সাথেই আমি আবারো নিকটস্থ ফার্মেসি থেকে একাধিক বার ঔষধ ক্রয় করে নিয়ে এসেছিলাম।
 
কিন্তু তাতেও ঔষধ যথেষ্ট মনে হচ্ছিলনা, শেষে বেশ কিছু সংখ্যক রোগীদেরকে ঔষধের প্রেসক্রিপশন প্রদানের পাশাপাশি নগদ অর্থও প্রদান করেছি।
জুবায়ের সিদ্দিক সেলিম আরো বলেন, আমার মরহুম বাবা এই এলাকার মানুষের সুখেদুঃখে সব সময় পাশে ছিলেন। আমিও চাচ্ছি আমার বাবার মতো এলাকার মানুষের সুখেদুঃখে সবসময় পাশে থাকতে। এলাকায় আমাদের পরিবার থেকে সামাজিক বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের পাশাপাশি একাধিক মসজিদ, মাদ্রাসা সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানেও আমাদের অনুদান প্রদান অব্যাহত আছে।
 
উদীয়মান তরুণ সংগঠক জুবায়ের সিদ্দিক সেলিম বলেন, আমাকে এই ক্যাম্পেইন এ বিভিন্ন ভাবে পরামর্শ দিয়ে ও ডাক্তারদের সাথে যোগাযোগ সহ সার্বক্ষণিক খোঁজখবর রেখে যারা সহযোগিতা করেছেন ঢাকা স্কয়ার হাসপাতালের স্বনামধন্য ডাক্তার ফারহানা মোবিন ,ডাক্তার সাকিব মাহমুদ চৌধুরী ও অগ্রদৃষ্টি মিডিয়া গ্রুপের পরিচালক আ,হ জুবেদ,সাংবাদিক ছাইয়েদুল ইসলাম সহ অনেকে, অবশ্য’ই এই ক্যাম্পিং সফলভাবে সম্পন্ন করার ক্ষেত্রে উনাদের অবদান অনস্বীকার্য, এজন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।
 
এদিকে উক্ত ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পিং চলাকালীন পরিদর্শক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কুলাউড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আ,স,ম কামরুল ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান কাজি মৌ. ফজলুল হক খান সাহেদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নেহার বেগম, কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রেনু, ভাটেরা স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ সিপার উদ্দীন আহমেদ, ভাটেরা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ফিরোজ মিয়া তালুকদার ও কুলাউড়া উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আং শহিদ,ভাটেরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের দফতর সম্পাদক আব্দুল হান্নান সিদ্দিকী,সাংবাদিক বদরুল আলম চৌধুরী সহ ভাটেরা ইউনিয়নের বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক অঙ্গ সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতৃবৃন্দরা।
ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com