ভালুকায় ইউপি চেয়ারম্যান যখন মাটিকাটা শ্রমিক

৮০ বার পঠিত

আবুল বাশার শেখ, ময়মনসিংহ প্রতিনিধি: এটা কোন নাটক কিংবা সিনেমার সুটিং নয় এটা বাস্তব ঘটনা। কবির সেই বিখ্যাত পংক্তির সাথে মিলিয়ে বলতে হয় “আমাদের দেশে হবে সেই ছেলে কবে কথায় না বড় হয়ে কাজে বড় হবে”। সেই ছেলে হিসেবে দৃষ্টান্ত রেখেছে ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার ১০নং হবিরবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তোফায়েল আহাম্মেদ বাচ্চু। যিনি মাথার ঘাম পায়ে ফেলে প্রতিদিন সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত ইউনিয়নের জনসাধারণের সেবায় নিয়োজিত। তাঁর কর্মদক্ষতায় ইতিমধ্যে এলাকায় সফল চেয়ারম্যান হিসেবে সুনাম কুড়িয়ে নিয়েছে।

সোমবার (১০ এপ্রিল) সকালে পাড়াগাঁও বনানী গুচ্ছ গ্রামের ১০ এক জায়গা নিয়ে বিশাল পুকুরের পূর্ব পাশে ভাঙ্গনে ধ্বসে যাওয়া ঈদগাহ মাঠের বিশাল অংশের মাটি ভরাট করার কাজের উদ্যোগ গ্রহণ করেন হবিরবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান তোফায়েল আহাম্মেদ বাচ্চু। তিনি এ সময় স্থানীয় জনগণকে সাথে নিয়ে নিজে লুঙ্গি-গেঞ্জি পরিহিত অবস্থায় খালি পায়ে নিজ হাতে কুদাল দিয়ে মাটি কেটে বস্তায় ভরে তা মাথায় করে ধ্বসে যাওয়া অংশ মেরামত করেন। এ সময় তার সাথে এসে শরীক হন ১নং ওয়ার্ডের সদস্য রফিকুল ইসলাম (ইসমাঈল মেম্বার), ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক জুয়েল রানা।

তার মাথায় বস্তা ও হাতে কুদাল সম্ভলিত কয়েকটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে তা নিয়ে মুখে মুখে আলোচনা ছড়িয়ে পড়ে। এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান তোফায়েল আহাম্মেদ বাচ্চু বলেন, এলাকার একটি ঐতিহ্যবাহী ঈদগাহ মাঠ ধ্বংশের হাত থেকে রক্ষা করা আমার দায়িত্ব। তাই সবাইকে সাথে নিয়ে সেচ্ছাশ্রমে আমি ঐ মাঠটি মেরামত করেছি। এতে আমার কষ্টের চেয়ে আনন্দই লেগেছে বেশি।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com