কুষ্টিয়ার খোকসায় ২৪০ রাউন্ড গুলি ও ৩টি আর্জেস গ্রেনেড উদ্ধার

১০০ বার পঠিত

মোঃ রাজন আমান, কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি# কুষ্টিয়ার খোকসায় একটি পান বরজ থেকে রাইফেলের গুলি, আর্জেস গ্রেনেট ও ককটেল উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল বিকেলে খোকসা  উপজেলার জানিপুর ইউনিয়নের একতারপুর গ্রামে এক স্কুল শিক্ষকের পানের বরজ  থেকে এসব উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় বাসিন্দা সূত্র জানায়, একতারপুর গ্রামের স্কুল শিক্ষক সুকুমার চক্রবর্তী তাঁর পানের বরজে পানি নিষ্কাশনের জন্য দিনমজুর দিয়ে মাটি কেটে নালা তৈরি করাচ্ছিলেন। এক পর্যায়ে এক শ্রমিকের কোদালে মাটির নিচে শক্ত কিছু আটকে যায়। এরপর সেখানে মাটি সরানো হলে গুলি দেখতে পান। এসময় শ্রমিকেরা সুকুমারকে জানায়। মুঠোফোনে সুকুমার ইউএনও ও ওসিকে জানায়। খোকসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল হুদা বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে মাটির উপরিভাগ থেকে প্রায় এক হাত গভীরে পরিত্যক্ত অবস্থায় রাইফেলের ২৪০ রাউন্ড গুলি, তিনটি আর্জেস গ্রেনেড ও দুইটি ককটেল উদ্ধার করা হয়। পরে সেগুলো থানায় নেওয়া হয়। গুলিগুলো এখনো তাজা রয়েছে। গ্রেনেড ও বোমাগুলো ঠিক আছে কিনা তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। এজন্য গ্রেনেড ও বোমা বিশেষজ্ঞদের সহায়তা নেওয়া হবে।

ওসি আরও বলেন, এ ঘটনায় থানায় কোন মামলা হচ্ছে না। উদ্ধার করা গুলি বোমা পুলিশ লাইনে পাঠানো হবে। ধারণা করা হচ্ছে এগুলো ৫/৬ বছর আগে মাটির নিচে পুতে রাখা হয়েছিল। খোকসা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সেলিনা বানু বলেন, খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে যাওয়া হয়েছিল। স্কুল শিক্ষকের স্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে। তারা এ বিষয়ে কিছুই জানে না। ইউএনও আরও বলেন, “জানতে পেরেছি গ্রেনেডগুলো খুবই শক্তিশালী। একটা বিস্ফোরণ হলে আশেপাশের অর্ধশতাধিক মানুষ মারা যেতে পারে।”

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মোঃ রাজন আমান, কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি

১। নাম : মোঃ রাজন আমান (সাংবাদিক)। ২। পিতার নাম : মোহাম্মদ রাহাদ রাজা (সাংবাদিক)। ৩। মাতার নাম : মিসেস্ আমেনা রাহাদ (সাংবাদিক)। ৪। স্থায়ী/বর্তমান ঠিকানা (সকল প্রকার যোগযোগ) : মোঃ রাজন আমান (সাংবাদিক) এম,চাঁদ আলী শাহ্ রোড ভেড়ামারা, কুষ্টিয়া। মোবাইল : ০১৭২৪-৮৮৮১২৫। ৫। বয়স : ২৪ বৎসর। ৬। ধর্ম : ইসলাম (সুন্নী)। ৭। জাতীয়তা : বাংলাদেশী। ৮। শিক্ষাগত যোগ্যতা : বি,এ (পাশ)। ৯। সাংবাদিকতা পেশায় বাস্তব অভিজ্ঞতা : জাতীয় দৈনিক, সাপ্তাহিক, পাক্ষিক, মাসিক পত্রিকায় বাস্তব অভিজ্ঞতা ০৭ বৎসর।

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com