সিংড়ায় ভিজিএফ চালের জন্য এক কাউন্সিলর পেটালেন পৌর সচিবসহ অপর ওয়ার্ড কাউন্সিলরকে

সাইফুল ইসলাম,নাটোর প্রতিনিধি: নাটোরের সিংড়ায় ভিজিএফ চাউল না দেওয়ায় পৌর সচিব আব্দুল মতিন ও ১০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল আওয়াল রিংকুকে পিটুনী দেন ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল জলিল  ও তার সহযোগীরা। এসময় পৌরসভা কার্যালয়ের টেবিল চেয়ারসহ অফিসের কাগজ-পত্র তছনছ করা হয়। বুধবার সিংড়া পৌরসভায় ৯,১০,১১ ও ১২ নম্বর ওয়ার্ডের দুস্থ ও অসহায় মানুষদের মধ্যে ভিজিএফ চাউল বিতরনের সময় এই হামলার ঘটনা ঘটে। এঘটনায় লাঞ্ছিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও ১০ ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক আব্দুল আওয়াল রিংকু বাদী হয়ে সিংড়া থানায় ১০ জনের বিরুদ্ধে এজাহার করেছেন।

ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল আওয়াল রিংকু জানান, আসন্ন ইদুল আযহা উপলক্ষে বুধবার সকালে পৌরসভার ৯,১০,১১ ও ১২ নম্বর ওয়ার্ডের দুস্থ ও অসহায় মানুষদের মধ্যে ভিজিএফ চাল বিতরন শুরু হয়। প্রতিজনকে ১০ কেজি করে চাল দেওয়া শুরু হলে ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল জলিল সচিবের নিকট থেকে চারজনের বিপরীতে কোন কার্ড জমা না দিয়ে প্রায় জোর করেই ৪০ কেজি চাল  নিয়ে যায়। বিষয়টি জানার পর প্যানেল মেয়র শফিকুল ইসলাম ভিজিএফ কার্ড ছাড়া চাউল বিতরন করতে সচিবকে নিষেধ করেন। ওই মৌখিক নির্দেশের পর কাউন্সিলর আব্দুল জলিল তার কয়েকজন স্বজনসহ সহযোগীদের সাথে নিয়ে পৌরসচিবের কাছে গিয়ে আরও পাঁচ জনের নামে ৫০ কেজি চাল দাবী করে। সচিব তার কাছে ভিজিএফ কার্ড চাইলে তারা সচিবের ওপর চড়াও হয়।

তিনি ছুটে গিয়ে সচিবের পক্ষ নিয়ে কথা বললে তার ওপর চড়াও হয় তাকে লাঞ্ছিত করা হয়। কিল চড় থাপ্পরসহ লাথিও মারে তারা। এসময় সচিবকেও মারপিট করে এবং অফিসের চেয়ার টেবিল সহ প্রয়োজনীয় কাগজ-পত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে তছনছ করে। এঘনার পর বেশ কিছু সময় চাল বিতরন বন্ধ থাকে। খবর পেয়ে প্যানেল মেয়র সহ অন্য কাউন্সিলররা ছুটে এসে পরিস্থিতি সামাল দেন। এঘটনার পর থানায় একটি অভিযোগ করেন কাউন্সিলর আব্দুল আওয়াল রিংকু।

পৌর সচিব আব্দুল মতিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, তিনি মেয়রের নির্দেশ পালন করতে গিয়ে লাঞ্ছিত হন। অভিযুক্ত ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল জলিলের ০১৭১২৭৪৯৬৮১ নম্বর মোবাল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তা বন্ধ পাওয়া যায়। প্যানেল মেয়র শফিকুল ইসলাম ঘটনার কথা স্বীকার করে জানান,বিষয়টি তাৎক্ষনিকভাবে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলককে অবগত করা হয়। এছাড়া তাৎক্ষনিক উপস্থিত কাউন্সিলরদের মতামত গ্রহণ করে সিদ্ধান্ত হয় পবিত্র হজ্ব পালনরত মেয়র জান্নাতুল ফেরদৌস দেশে আসার পর বিষয়টি সম্পর্কে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সিংড়া থানার ওসি নাসির উদ্দিন মন্ডল জানান,থানায় এসংক্রান্ত একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
৩১ বার পঠিত
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com