পাঁচবিবিতে একটি বয়স্কভাতার কার্ডের জন্য আর্তনাদ ও বা মোর এটা কাড হবেনা ?

তোহা আলম প্রিন্স ॥ পাঁচবিবি (জয়পুরহাট) প্রতিনিধিঃ জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে একটি বয়স্কভাতার কার্ডের জন্য আর্তনাদ। সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে নূরজাহান বলেন বয়স অনেক হয়েছে। অনেক বলতে কত ? মুই কবা পারোনা। পূবের বড় বড় বান দেকিচো (২৯ সালের বন্যা দেখেছে) পাকিস্তান হিন্দুস্তান হওয়া দেকিচো । জয় বাংলার সময় মুই তিন ছোলের মাও। সোয়ামী মইচে অনেক দিন আগত। ব্যাটা আচে ভাত দিবা চায় ব্যাটার বউটা দেয় না। ব্যাটা ভাত দিলে, বউ ব্যাটাক ধরে মারে। মুই হাটপা চলবা পারোনা চায়ে মাংঙ্গে খাও। আর কদ্দিন বয়েস হলে বস্কো ট্যাকা বিদবা ভাতা পামু বা ?

পাঁচবিবি উপজেলার আওলাই ইউনিয়নের পানিয়াল গ্রামের নূর জাহান ভিক্ষা করে কোন রকমে জীবিকা নির্বাহ করে। শুক্রবার পাঁচবিবি বাজারের ব্যাবসায়ীরা তাদের নির্ধারিত দিনে ভিক্ষা দেন। একটি দোকানে বসে কথা হচ্ছিল নূরজানের সাথে। পাঁচবিবি বাজার থেকে প্রায় ১২ কিলোমিটার দূর থেকে এসেছেন তিনি ভিক্ষা করার জন্য। আজ শুক্রবার বাজারে ভিক্ষা করে দিনে আপনি কত পাবেন। উত্তরে নূরজান বলেন ; হাটপা না পারলে কোত্তে পামু বা। বয়সের ভারে ন্যুয়ে পরা বৃদ্ধা নূরজাহান চলা ফেলা করতে পারেন না। স্বামী মৃত খোকা মিয়া শেষ বয়সে একই পেশায় জীবন কাটিয়েছেন বলে নূরজাহান জানান। তার কথা মতো বয়স অনুমানিক ৯০ পেরিয়েছে ।

কিন্তু এখনো সরকারের দেওয়া বিধবা ও বয়স্ক ভাতা থেকে তিনি বঞ্চিত। অসহায়ভাবে অতি মানবেতর জীবন যাপন করছেন তিনি। ঘরভিটা ছাড়া তার কোন সহায় সম্পদ ও তাকে দেখার মত কেউ নেই। মেম্বর চেয়ারম্যান কেউ তার খোঁজ খবর রাখেনা। এর পরেও তার কোন অভিযোগ নেই। ও বা মোর এটা কাড  হবেনা ? এ ব্যাপারে অত্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান একরামুল হকের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন তালিকা না দেখে এই মূহুর্তে আমি কিছু বলতে পারবনা। পরে জানাব, কিন্তু পরে তাকে আর মোবাইল ফোনে পাওয়া যায়নি।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
৩৯ বার পঠিত
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com