লক্ষ্মীপুর পৌরশহরের মাঝে পাখির এক অভয়ারণ্য

২৫ বার পঠিত

 

কিশোর কুমার দত্ত, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরে চড়ুই পাখির কিচিরমিচির শব্দে মুখরিত হয়ে উঠেছে পৌরশহরের উত্তর তেমুহনী এলাকার কিছু অংশ। বিকাল থেকে ভোর পর্যন্ত ঐ এলাকা মুখরিত করে রাখে পাখির কিচিরমিচির শব্দ। পাখির কোলাহলে ভোরে ঘুম ভাঙে আশপাশের মানুষদের। এসব চড়ুই পাখি কোথা থেকে এসেছে তা জানে না কেউ।

“মোজাম্মেল হক ডিলার” পদ্দা অয়েল পাম্প পাশে ৫টি মেগনি, ১টি আমলাসহ বেশ কিছু গাছ রয়েছে। ৮ মাস থেকে এসব গাছে আশ্রয় নিয়েছে চড়ুই পাখি। এখন এ স্থানটি ‘পাখিদের মিলন মেলা’ নামে পরিচিত। এই মিলন মেলায় যেন পাখিদের নিরাপদ অভয়ারণ্য হিসেবে গড়ে উঠেছে। এখানে পাখির সংখ্যা প্রায় ৫ হাজার। পাখিদের কিচিরমিচির শব্দ শোনার জন্য এবং তাদের রাতে গাছের ডালে ডালে ঘুমিয়ে থাকার দৃশ্য দেখার জন্য মানুষের কৌতূহলও অনেক। গাছের নীচের বৈদ্যুতিক ও ডিসের লাইনের তারেও তাদের আশ্রয়। প্রতিবছরের এসময়ে চড়ুই পাখি ঝাঁক বেঁঁধে এ পাখি বাড়িতে আশ্রয় নেয়। মাস চারেক থাকার পর আবার উধাও হয়ে যায়। ভোরে তারা খাবারের জন্য বেরিয়ে পড়ে। ফিরে আসে বিকেলে।

পাম্পের পাশে পান ও বিড়ি দোকানদার সবুজ জানান, গত আট মাস থেকে দেখে আসছেন চড়ুই পাখিদের এই আসা-যাওয়া। পাখি দেখার জন্য প্রতি রাতে দোকান বন্ধ করে বাড়িতে দেরিতে ফিরেছেন। মাঝে মাঝে কিছু অসাধু লোক চড়ুই পাখি মারার জন্য আসে। সে পাখি মারবে তাদের নিষেধ করছে।

পাশের আরোক দোকানদার জানান, ঝাঁক বেঁধে পাখিদের এক গাছ থেকে অন্য গাছে উড়ার দৃশ্য দেখতে এবং প্রতিদিন বিকেল ও ভোরে কিচিরমিচির শব্দ শোনতে ভালো লাগে। কাউকে পাখি মারতে ও তাড়িয়ে দিতে দিই না।

পদ্দা অয়েল পাম্পের ম্যানেজার জানান, পাখিরা হচ্ছে প্রকৃতির। এরা নিজ ইচ্ছায় আসে, আবার চলেও যায়। যেখানে তাদের নিরাপদ স্থান মনে করে পাম্পের পাশে থাকা গাছ গুলোতে তারা আশ্রয় নেয়। পাখিদের রাতে ঘুমিয়ে থাকার দৃশ্য দেখার জন্য অনেকে আবার তাদের বৌ বাচ্চাদের নিয়ে আসছেন। ‘পাখিদের মিলন মেলার’ দৃশ্য অনেকে ক্যামেরায় এবং মোবাইল ফোনে ধারণ করে কেউ কেউ সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে ছড়িয়ে দিয়েছে। এমনই একজন জানান, ক্যামেরায় ছবি ধারণ করতে তার খুব ভালো লাগে।

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একে. এম সালাহ্ উদ্দিন টিপু জানান, পাখিদের সেখান থেকে তাড়ানো যাবে না। পাখিদের যেন কোনো ক্ষতি না হয় সেটাও দেখতে হবে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সুব্রত দেব নাথ

সিনিয়র নিউজরুম এডিটর

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com