আজ শুক্রবার, ৭ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং, ১লা মুহাররম, ১৪৩৯ হিজরী, শরৎকাল, সময়ঃ সন্ধ্যা ৭:৪৭ মিনিট | Bangla Font Converter | লাইভ ক্রিকেট

আশুগঞ্জে আবাসিক হোটেল উজান ভাটি ও হোটেল আহনাতে রমরমা দেহ ব্যবসা

বিশেষ প্রতিনিধি # আশুগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবু আসিফের মালিকানাধীন হোটেল উজান ভাটি ও ফেরী ঘাটে হোটেল অহনাতে রমরমা দেহ ব্যবসা চলছে।আবু আসিফ প্রভাবশালী ব্যক্তি হওয়ায় প্রশাসনের নাকের ডগায় আবাসিক হোটেল এ দেহ ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন।

সরজমিনে হোটেল বয়দের সাথে আলাপ করে জানা যায়, খদ্দের সাধারণত ঢাকার গাড়ি নিয়ে লং ড্রাইবে এসে এখানে সময় কাটায়। হোটেল উজান ভাটিতে রুম বাড়া ৬৫০০/= এবং অহনাতে ২০০০/=। এর পাশাপাশি নিয়মিত বিদেশী ক্ষদের দের ও মেয়ে সরবরাহ দেয়া হয়। এই সব মেয়ে সাধারনত ভৈরব এবং ঢাকার। এখানে প্রভাবশালী নেতাদের মনোরঞ্জনের ব্যবস্থা ও আছে। অনেক মেয়েই ছেলে বন্ধুর সাথে ঘূরতে যেয়ে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয় লোক লজ্জার ভয়ে কিছু বলতে পারেন।বিকৃতমনা আবু আসিফ বেশীর ভাগ সময়ই কাটান খদ্দের নিয়ে। তাই এই মহলে তার ব্যাপক চেনা জানা আছে। আমাদের প্রতিবেদক এক বর্ডারের সাথে আলোচনা করে জানতে চায়।

এখানে সে রকম কোন ব্যবস্থা আছে কি না? প্রথমে কোন কিছু বলতে রাজী না হলে ও তার হাতে ১০০০/= টাকা ধরিয়ে দিলে নাম গোপন রাখার শর্তে সে সব কিছু বলে। মেয়ে হোটেল থেকে সরবরাহ করলে ১০০০০/= টাকা এবং রুম বাড়া বাবদ ৭০০০/= টাকা মোট ১৭,০০০/= লাগে। আর হোটেল অহনার জন্য মেয়ে বাবদ ১০০০০ টাকা এবং রুম বাড়া বাবদ ৩০০০/= লাগে। একজন জন প্রতিনিধি প্রশাসনের নাকের ডগায় এই অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছেন। সিলেট অঞ্চলের বিএনপির মহিলা নেত্রীরা তার নিয়মিত খদ্দের। এখানে মনোরঞ্জনের জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা আছে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com