জাতীয় আদিবাসী পরিষদ রাজশাহী সংহতি সমাবেশ ও মোমবাতি প্রজ্জ্বলন

৭৩ বার পঠিত
জাতীয় আদিবাসী পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির কতৃক ঘোষিত গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের সাপমারা ইউনিয়নের সাহেবগঞ্জ-বাগদাফার্মের আদিবাসী ও বাঙালিদের উপর রংপুর চিনিকল ও পুলিশের হামলা, মামলা, লুটপাট, খুন, উচ্ছেদ ও হয়রানির প্রতিবাদে এবং ন্যায্য বিচারের দাবিতে সংহতি সমাবেশ ও গুলিতে নিহতদের স্মরণে ভূবন মোহন পার্ক শহীদ মিনারে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়  আজ ৬ ডিসেম্বর ২০১৬, রোজ মঙ্গলবার, বিকাল ৪.৩০ টার সময় রাজশাহী সাহেব বাজার জিরো পয়েন্টে সংহতি সমাবেশ অনুষ্ঠীত হয় এবং রাজশাহী সাহেব বাজার জিরো পয়েন্টে থেকে সোনাদিঘীর মোড় হয়ে ভূবন মোহন পার্ক শহীদ মিনারে এসে সংহতি সমাবেশ ও করে শেষ হয়।
জাতীয় আদিবাসী পরিষদ রাজশাহী জেলা কমিটির সভাপতি বিমল চন্দ্র রাজোয়ার এর সভাপতিত্বে মানববন্ধন সমাবেশে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য অনিল মারান্ডী, খ্রীস্টিনা বিশ্বাস, কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক সূভাষ চন্দ্র হেমব্রম, রাজশাহী জেলা সাধারণ সম্পাদক সুসেন কুমার শ্যামদুয়ার, রাজশাহী মহানগর সভাপতি সুমিলা টুডু, সাধারণ সম্পাদক অন্দ্রিয়াস বিশ্বাস, আদিবাসী যুব পরিষদ রাজশাহী জেুলা যুগ্ম-আহ্বায়ক উপেন রবিদাস, আদিবাসী ছাত্র পরিষদ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি হেমন্ত মাহাতো, সাধারণ সম্পাদক নকুল পাহান, পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের মহানগর কমিটির সাধারন সম্পাদক দিপেন চাকমা প্রমূখ।
সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন, বিশিষ্ট কলামিস্ট প্রশান্ত কুমার সাহা, রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জামাত খান, একাত্তরের ঘাতক দালাল নিমূল কমিটি  রাজশাহী জেলা সভাপতি বরজাহান আলী শাহজাহান, মুক্তিযোদ্ধা বাস্তাবায়ন মঞ্চ রাজশাহী মহানগর সহ সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, বাসদ রাজশাহী জেলা সমন্ময়ক দেবাশিষ রায়, গণ সংহতি রাজশাহী সমন্ময়ক মুরাদ মুরশেদ,  বাংলাদেশ যুবমৈত্রী রাজশাহী মহানগর সহ- সভাপতি  শাহিন শেখ, বিশিষ্ট গবেষক ও লেখক পাভেল পার্থ প্রমূখ।
বক্তারা বলেন, নিহত ও আহত আদিবাসী হত্যা ও হামলার বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করে সুষ্ঠু বিচার নিশ্চিত করতে হবে। সাহেবগঞ্জ-বাগদাফার্মে সংগঠিত সকল মানাবধিকার লংঘনের ঘটনার সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে ঘটনার সাথে জড়িত স্থানীয় সরকার প্রতিনিধি, সাংসদ, প্রশাসন ও চিনিকল কর্তৃপক্ষকে দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক বিচার করতে হবে। সমতলের আদিবাসীদের ভূমি সংকট নিরসনে পৃথক ও স্বাধীন ভূমি কমিশন গঠন করতে হবে। ঘটনার সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে শাস্তি দানি জানান। বাপ -দাদার সম্পওি ফেরত দিতে হবে। অন্যায় আচরণ বন্ধ হোক, ভূমিহীন আদিবাসী ও প্রান্তিক কৃষকের ভূমি অধিকার প্রতিষ্ঠা হোক। সমঅধিকার ও মর্যাদা প্রতিষ্ঠার ভেতর দিয়ে গড়ে ওঠুক মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় এক স্বপ্নময় বাংলাদেশ। পরবর্তী কর্মসূচী আগামী ৬ জানুয়ারীতে ২০১৬ রংপুরে বিভাগীয় সমাবেশ অনুষ্ঠীত হবে।
—————
ধন্যবাদসহ
সূভাষ চন্দ্র হেমব্রম
দপ্তর সম্পাদক
জাতীয় আদিবাসী পরিষদ
ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com