সোয়াট আসলে কি ?

৯৯ বার পঠিত

শুক্রবার সিলেটের দক্ষিণ সুরমার শিববাড়িতে জঙ্গি অবস্থানের খবর পাবার পর সেখানে অভিযান চালাতে ঢাকা থেকে রওয়ানা দেয় সোয়াট। সেই সকাল থেকে সবার মুখে সোয়াট সোয়াট। এসময় অনেকের মনে প্রশ্ন আসে কি এই সোয়াত। এটা কি এমন কোনো অস্ত্র যা দিয়ে জঙ্গিদের কোপকাত করা যাবে? এর রং কেমন , দেখতে কেমন, কিভাবে চালানো হবে? আসলে সোয়াত কোনো যন্ত্র বা অস্ত্র নয়। পুলিশের বিশেষায়িত একটি বাহিনী হচ্ছে সোয়াট।

গোয়েন্দা পুলিশের সর্বাধুনিক প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত টিম, স্পেশাল হুইপন্স অ্যান্ড ট্যাক্টিকসের সংক্ষিপ্ত রূপ (সোয়াট)। সোয়াট গঠন করা হয়েছে মূলত বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ণ কাজ মোকাবিলার জন্য। যেখানে মুখোমুখি গুলিবিনিময় থেকে শুরু করে নানা ধরনের ঝুঁকি থাকে। ইংরেজি Special Weapons And Tactics এর সংক্ষেপ নাম SWAT বা সোয়াট।

বাংলাদেশে ভয়ঙ্কর ঝুঁকিপূর্ণ অভিযান পরিচালনা করতে ২০০৯ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি গঠন করা হয় সোয়াট। শুরুতে এর সদস্য ছিল ২৪ জন। ২০০৮ সালে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের বাছাই করা ২৪ জনের একটি টিমকে বিশেষ প্রশিক্ষণের জন্য আমেরিকা পাঠানো হয়। প্রশিক্ষণ শেষে আমেরিকার পক্ষ থেকে এই টিমের জন্য প্রায় ১২ কোটি টাকা মূল্যের অত্যাধুনিক অস্ত্র, গুলি ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় মূল্যবান সরঞ্জাম দেয়া হয়। দেশে ফিরে প্রশিক্ষণপ্রাপ্তরা সোয়াট নামে গোয়েন্দা পুলিশের একটি বিশেষ ইউনিট গঠন করে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শহীদুর রহমান জুয়েল, সিলেট ব্যুরো #

শহীদুর রহমান জুয়েল (উদয় জুয়েল), সিলেট ব্যুরো ০১৭২৩৯১৭৭০৪

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com