সাতক্ষীরার মুক্তামনি ধাপে ধাপে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরবে

বিরল রোগে আক্রান্ত সাতক্ষীরার ১১ বছরের মেয়ে মুক্তামনির রোগটি শনাক্ত করা হয়েছে। রোগটির নাম ‘লিমফেটিক মেলফরমেশন’। জন্মের পরপরই রোগটির প্রকাশ ঘটে। তবে মুক্তামনিরটা প্রকাশ পেয়েছে তার জন্মের দেড় বছর পর। এটি একটি জন্মগত রোগ (কনজিনেটাল ডিজিস)।ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্তলাল সেন জানিয়েছেন এ তথ্য।

সম্প্রতি সাতক্ষীরার দরিদ্র পরিবারের মেয়েটির বিরল এই রোগের কথা গণমাধ্যমে ওঠে আসে। এতে অনেকেই তার খোঁজখবর নিতে থাকে। এক পর্যায়ে স্থানীয় প্রশাসন নড়েচড়ে বসে। চিকিৎসার দায়িত্ব নেয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। পরে তাকে সাতক্ষীরা থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আনা হয়।

মুক্তামনির চিকিৎসাপদ্ধতির বর্ণনা দিয়ে রবিবার ডা. সামন্তলাল সেন বলেন, অনেকগুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর দেখা গেছে লিমফেটিক মেলফরমেশন রোগে আক্রান্ত মুক্তামনি। যদিও প্রাথমিকভাবে চিকিৎসকরা চারটি রোগের কথা ধারণা করে। তাকে ইতোমধ্যে দুই ব্যাগ রক্ত, এক ব্যাগ প্লাজমা দেয়া হয়েছে। তাকে হাসপাতাল থেকে ডাবল ডায়েট দেয়া হচ্ছে। গত তিন দিনে মুক্তার রক্তের অনেকগুলো পরীক্ষা এবং ইউরিন টেস্ট হয়েছে। হয়েছে সিটিস্ক্যন, এমআরআই, ডুপ্লেক্স ও আলট্রাসোনোগ্রাফি। রক্ত এবং ইউরিনের রিপোর্ট হাতে পেলেও বাকিগুলো আগামীকাল পাবো। যেগুলো পেয়েছি সেগুলো ভালো আছে, বাকিগুলো পেলে তার ওপর ভিত্তি করে পুরো সিদ্ধান্ত নেয়া যাবে।

কতদিনে মুক্তামনি সুস্থ হতে পারে এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, মুক্তার চিকিৎসা সহজ হবে না। এটি নিঃসন্দেহে একটি দীর্ঘমেয়াদী চিকিৎসা। এখানে মূল দায়িত্ব প্লাস্টিক সার্জারির। এর সঙ্গে অর্থোপেডিক, মেডিসিন, ভাসকুলার সার্জারি টিম এরা সবাই জড়িত থাকবে। তবে এটা বলতে চাই চিকিৎসা এক ধাপে চলবে না। ধাপে ধাপে সার্জারি করে তাকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনা যাবে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
৬৭ বার পঠিত

শহীদুর রহমান জুয়েল, সিলেট ব্যুরো #

শহীদুর রহমান জুয়েল (উদয় জুয়েল), সিলেট ব্যুরো ০১৭২৩৯১৭৭০৪

Leave a Reply