সরকারে থাকছে জাপা : রওশন এরশাদ

২৭ বার পঠিত

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ সরকার থেকে বের হওয়ার পক্ষে অবস্থান নিলেও তাতে অসম্মতি জানিয়েছেন তার স্ত্রী ও দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য রওশন এরশাদ। বৃহস্পতিবার মাগরিবের নামাযের বিরতির সময় সংসদ ভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন রওশন এরশাদ। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন জাপা নেতা ও পানিসম্পদ মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু, প্রেসিডিয়াম সদস্য ফখরুল ইমাম, বিরোধীদলীয় প্রধান হুইপ মো. তাজুল ইসলাম চৌধুরী। প্রায় আধাঘণ্টার বৈঠক শেষে নিজের কার্যালয়ে ফেরার পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখে পড়েন রওশন এরশাদ।

 

সাংবাদিকরা বিরোধীদলীয় নেতা রওশনের কাছে জানতে চান, তার দল সরকার থেকে বেরিয়ে আসছে কি না? এর জবাবে এক কথায় ‘না’ উত্তর দেন রওশন এরশাদ। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচ্য বিষয় সম্পর্কে জানতে চাইলে বিরোধীদলীয় নেতা সাংবাদিকদের বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দুটো বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। ময়মনসিংহ বিভাগ এবং অর্থনৈতিক অঞ্চল গঠন নিয়ে আলোচনা হয়েছে। জাতীয় পার্টির চলমান অস্থিরতা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা হয়েছে কি না—এর জবাবে রওশন এরশাদ বলেন, ‘কো-চেয়ারম্যান নিয়োগ আমাদের দলের অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক বিষয়। দলের নেতৃত্বে যে কেউ আসতে পারে। আর এসব বিষয় নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করব কেন?’

 

চলতি মাসের ১৭ তারিখ রংপুরে জেলা কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ তাঁর ছোট ভাই ও প্রেসিডিয়াম সদস্য জি এম কাদেরকে দলের কো-চেয়ারম্যান ঘোষণা করেন। এর পাল্টায় রওশনকে জাতীয় পার্টিরভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ঘোষণা করেন মহাসচিব জিয়াউদ্দিন বাবলু। এরপরই এরশাদ জিয়াউদ্দিন আহমেদকে মহাসচিব পদ থেকে সরিয়ে রুহুল আমিন হাওলাদারকে মহাসচিব করেন। সেইসঙ্গে তিনি জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য রওশান এরশাদকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করা সম্পূর্ণ অবৈধ ঘোষণা করেন।

 

এরপর ২৪ জানুয়ারি দুপুরে এরশাদের ছোট ভাই জিএম কাদের বনানীর কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে জানান, মন্ত্রিসভা ছাড়ার বিষয়ে আলোচনার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে সময় চেয়েছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এরশাদ ও বিরোধী দলের নেতা রওশন এরশাদ। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে রওশনের বৈঠক প্রসঙ্গে জাতীয় পার্টির মহাসিচব রুহুল আমিন হাওলাদার জানান, আমরা জেনেছি দুই জনের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে। কী আলোচনা হয়েছে তা জানি না। তবে দলের চেয়ারম্যান এরশাদও দুই-এক দিনের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করবেন বলে তিনি জানান।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com