শিশুশ্রম নিষিদ্ধ হলেও ক্রমেই বাড়ছে

৭৭ বার পঠিত

শিশুশ্রম নিষিদ্ধ। তবু লক্ষ্মীপুরে দিন দিন বাড়ছে শিশুশ্রম। অভাব অনটনের কারণে, বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ণ পেশায় জড়িত হচ্ছে শিশুরা। প্রায়ই তারা শিকার হয় শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের। এমনকি ন্যায্য মজুরি থেকেও বঞ্চিত তারা।

এ বয়সে বই-খাতা নিয়ে এই শিশুদের স্কুলে যাওয়ার কথা। অথচ তাদের করতে হচ্ছে এ রকম ঝুঁকিপূর্ণ সব কাজ। লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ, রায়পুর, রামগতি ও কমলনগর উপজেলার প্রায় প্রতিটি হাট-বাজারের হোটেল-রেস্তোরাঁ, লেদ মেশিন, ওয়ার্কশপসহ বিভিন্ন শিল্প কলকারখানায় কাজ করছে শিশুরা। ইটভাটার কষ্টকর কাজেও নিয়োজিত শত শত শিশুশ্রমিক।

অভাবের তাড়নায় এই শিশুরা সকাল ৮টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত, ১৪ থেকে ১৬ ঘন্টা কাজ করে। মেলে না ন্যায্য মজুরি। তবে মালিকের নির্যাতন সইতে হয় প্রায়দিনই। শিশু মৃত্যুর ঘটনাও ঘটেছে। গত বছর ৮মে সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জের আনন্দ বেকারিতে, ১৩ বছরের শিশুশ্রমিক আলাউদ্দিনকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়।

আজও মামলার অভিযোগপত্র দেয়নি পুলিশ। বরং হয়রানির শিকার হচ্ছে শিশুটির পরিবার। অমানবিক শিশুশ্রম এবং শিশু নির্যাতন বন্ধ করে, বিকল্প আয়ের ব্যবস্থা করা এবং তাদের স্কুলমুখী করার দাবি শিশুবান্ধব মানুষের। বিষয়টি নজরে আনলে, শিশুশ্রম বন্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে অভিযান চালানো হবে বলে আশ্বাস দেয় প্রশাসন।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

স্টাফ রিপোর্টার

Bogra Offce

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com