মায়ের সাথে কথা বলার বায়না মুফতি হান্নানের

৫৬ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক : গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগারে ফাঁসির সেলে বন্দি মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত হরকাতুল জিহাদের শীর্ষনেতা মুফতি আব্দুল হান্নান তার মায়ের সাথে মোবাইলে কথা বলার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন। এসময় তিনি সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন। বুধবার সকালে মুফতি হান্নানের সাথে কারাগারে পরিবারের চার সদস্যের সাক্ষাৎ শেষে তার বড়ভাই আলি উজ্জামান কারা ফটকের সামনে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান।

মুফতি হান্নানের ভাই আলিউজ্জামান বলেন, মুফতি হান্নান সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন। মাকে সালাম জানিয়েছেন, তার কাছে দোয়া চেয়েছেন এবং মোবাইলে কথা বলার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন। তিনি তার সন্তানদের প্রতি খেয়াল রাখতে বড় ভাইকে অনুরোধ করেছেন এবং সবার সাথে তাদের মিলেমিশে থাকতে বলেছেন। তার মায়ের সাথে কথা বলার ইচ্ছে প্রকাশ করলে কারা কর্তৃপক্ষ তার মোবাইল নম্বর রেখে দিয়ে বলেছেন, কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে সম্ভব হলে মায়ের সাথে কথা বলিয়ে দেবেন।

আলিউজ্জামান আরও বলেন, মুফতি হান্নানের ফাঁসি কার্যকর করা হলে তার মরদেহ গ্রামের বাড়িতে পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করতে চান। কারা কর্তৃপক্ষকে তিনি এ দাবি জানিয়েছেন। কারা কর্তৃপক্ষ বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করে তাদের সিদ্ধান্ত জানাবেন বলে জানিয়েছে।

সাক্ষাৎকালে মুফতি হান্নান তার স্ত্রীকে বলেন, যে মামলায় তাকে ফাঁসি দেওয়া হচ্ছে এটা মিথ্যা মামলা। তাকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হয়েছে। এসময় তিনি তার পরিবারের সবাইকে ধৈর্য ধরতে বলেন। স্বামীর সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে বুধবার সকাল সোয়া ৮টার দিকে কারা ফটকে তার স্ত্রী জাকিয়া পারভীন সাংবাদিদের এসব কথা বলেন।

এর আগে বুধবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে মুফতি আব্দুল হান্নানের স্ত্রী জাকিয়া পারভীন রুমা, দুই মেয়ে নাজনীন খানম ও নিশি খানম এবং তার বড় ভাই আলী উজ্জামান কারাগারে এসে পৌঁছায়। পরে সকাল ৭টার দিকে কারা কর্তৃপক্ষ তাদের সাক্ষাতের সুযোগ করে দেন। ৮টার দিকে সাক্ষাত শেষে তারা কারাগার থেকে বের হন।

উল্লেখ্য, ২০০৪ সালের ২১ মে সিলেটের হযরত শাহজালালের (র.) মাজারে তৎকালীন ব্রিটিশ হাইকমিশনার আনোয়ার চৌধুরীর ওপর গ্রেনেড হামলা হয়। হামলায় আনোয়ার চৌধুরী, সিলেটের জেলা প্রশাসকসহ অর্ধশতাধিক ব্যক্তি আহত এবং পুলিশের দুই কর্মকর্তাসহ তিনজন নিহত হন।

এ হামলা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি মুফতি হান্নান ও বিপুল কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগার এবং অপর আসামি দেলোয়ার হোসেন রিপন সিলেট জেলা কারাগারে ফাঁসির সেলে বন্দি রয়েছেন।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

স্টাফ রিপোর্টার

Bogra Offce

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com