বিষবায়ু নষ্ট করবে সঙ্গমের ইচ্ছে

৩৭ বার পঠিত

সৃষ্টি বড়ই অদ্ভূত। পৃথিবী জুড়ে এমন অনেক কিছুই রয়েছে, যেগুলি সম্পর্কে ন্যূনতম কোনও ধারণাই আমাদের নেই। বেশি দূরে যেতে হবে না। ‘ঘর হতে শুধু দুই পা ফেলিয়া’ই যে কত সৃষ্টি, কত ঘটনা এদিক-ওদিক ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে, তা-ই অনেক সময় আমাদের গোচরে আসে না। এমনই বহু অজানা-অচেনার খোঁজে আমাদের যাত্রা। এই সফরে প্রতি রবিবার আমরা ধারাবাহিকভাবে এমন কিছু তথ্য তুলে ধরি, যা শুনে তাজ্জব হতে হয়।

এই রবিবারের বিষয় ধোঁয়াশা। রাজধানী দিল্লির এই বায়ুদূষণ কপালে ভাঁজ ফেলে দিয়েছে সমগ্র দেশবাসীর। ধোঁয়াশার প্রভাবে চোখ জ্বালা, শ্বাসকষ্ট এগুলো যে হয় তা বেশ টের পেতে শুরু করেছেন দিল্লিবাসী। তবে শুধু এখানেই শেষ নয়। শরীরের পক্ষে কতটা মারাত্মক হতে পারে এই ধোঁয়াশা, সেদিকে নজর ঘোরালে চোখ কপালে উঠবে। আসুন দেখি…

১. প্রকট এই বায়ু দূষণ মানবজাতির সঙ্গমের ইচ্ছেকে নষ্ট করে। প্রজনন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিষবায়ুর কারণে শরীরে হ্রাস পায় টেস্টোস্টেরন ও ইস্ট্রোজেনের মাত্রা। এর ফলে প্রায় ৩০% পর্যন্ত কমে যায় যৌনক্রিয়ার ক্ষমতা। বিষাক্ত কণা শ্বাস নেওয়ার সময় শরীরে ঢুকে হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট করে। বিষাক্ত করে তোলে শুক্রানুকে। প্রেগনেন্সির জন্যও বিশেষ ক্ষতিকারক এই ধোঁয়াশা।

২. বায়ু দূষণের প্রভাবে শ্বাসকষ্ট ও প্রাণহানিরও আশঙ্কা রয়েছে। এশিয়ায় দ্রুত হারে বাড়ছে বায়ু দূষণের কারণে মৃতের সংখ্যা। এশিয়ার ৬৫% মৃত্যু ও ভারতের ২৫% মৃত্যুই হয় বায়ু দূষণের কারণে।

৩. ভারতে প্রতি বছর বায়ু দূষণের কারণে মৃত্যু হয় ৫,২৭,৭০০ জনের। আমেরিকায় প্রতি বছর বায়ু দূষণে মারা যান ৫০,০০০-এরও বেশি মানুষ।

৪. বায়ু দূষণের কারণে ধোঁয়াশা নতুন কিছু নয়। ১৯৫২ সালে লন্ডনের প্রবল ধোঁয়াশা কেড়ে নিয়েছিল ৮,০০০ মানুষের প্রাণ।

৫. ব্যস্ত রাস্তার কাছাকাছি বসবাসকারী মানুষদের মধ্যে ক্যান্সার, হৃদরোগ, অ্যাস্থমা ও ব্রঙ্কাইটিসের মতো অসুখ হওয়ার ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি। এর অন্যতম কারণ ওই এলাকার তীব্র বায়ু দূষণের মাত্রা।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com