বিমর্ষ হয়ে পড়েছেন সাকা চৌধুরী

নিজস্ব প্রতিবেদক || সালাউদ্দিন কাদের (কাদের) চৌধুরীর সাথে কারাগারে দেখা করতে গিয়ে সেখানে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেছিলেন তার স্ত্রী ব্যারিস্টার ফারহাত কাদের চৌধুরী। এদিকে পরিবারের সদস্যরা চলে যাওয়ার পর থেকে কনডেম সেলে বিষণ্ণ হয়ে পড়েছেন এক সময়ের বাকপটু ও তীর্যক মন্তব্যের জন্য বহুল আলোচিত-সমালোচিত বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী। তার খাদ্য গ্রহণের মাত্রাও কমে গেছে অনেকখানি। 

তবে নিয়মিত নামাজ আদায়ের মধ্যদিয়ে অধিকাংশ সময় পার করছেন জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মুহাম্মদ মুজাহিদ। সালাউদ্দিনের তুলনায় তিনি অনেকখানি দৃঢ় আছেন বলে কারাগার অভ্যন্তরীর একটি বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়।

সূত্রটি আরো জানায়, শুক্রবার দুপুরে সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও আলী আহসান মুহাম্মদ মুজাহিদকে সাধারণ বন্দির মতোই সাদা ভাত, সব্জি, মাছ ও ডাল সরবরাহ করা হয় নির্ধারিত সময়ে। মুজাহিদ খাবার গ্রহণ করেছেন কি না তা জানা না গেলেও সাকা চৌধুরী অধিকাংশ খাবারই ফেরত দিয়েছেন। গত বৃহস্পতিবার সর্বোচ্চ আদালতে তাদের রিভিউ আবেদন খারিজ হয়ে যাওয়ার পর উভয়ের পরিবারের সদস্যরা ভিন্ন ভিন্ন সময়ে তাদের সাথে দেখা করেন।

জানা যায়, পরিবারের সদস্যদের সাথে দেখা করার পর আরো বেশি বিমর্ষ হয়ে পড়েছেন সাকা চৌধুরী। কারা অভ্যন্তরীণ একটি সূত্র জানায়, সাকা চৌধুরীর স্ত্রী ফারহাত কাদের চৌধুরী তার স্বামী সাকা চৌধুরীর কাছে যাওয়ার পর সেখানে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। কিছুক্ষণ পর তার জ্ঞান ফিরলে উভয়ে কিছুক্ষণ একাকী কথা বলেন। এরপর পরিবারে অন্যন্য সদস্যদের সাথে কথা বলেন সাকা চৌধুরী। 

যতোক্ষণ পরিবারের সদস্যরা ছিলেন ততোক্ষণ বেশ দৃঢ়ই ছিলেন সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী। কিন্তু তারা চলে যাওয়ার পর থেকেই একেবারেই নিশ্চুপ হয়ে যান তিনি। বৃহস্পতিবার রাতেও তেমন একটা খাবার খাননি তিনি।

সাকা চৌধুরীর পারিবারিক একটি সূত্র জানায়, পরিবারে বিশেষ করে স্ত্রীর সাথে তার (সাকা চৌধুরী) খুবই ভালো সম্পর্ক। তাদের দু’জনের মধ্যে খুব ভালো বোঝাপড়ার সম্পর্ক সবসময়ই। তিনি দেশের বাইরে থাকলে প্রতিদিন একাধিকবার দীর্ঘসময় ধরে স্ত্রীর সাথে কথা বলতেন।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
২৫ বার পঠিত

সুব্রত দেব নাথ

সিনিয়র নিউজরুম এডিটর

Leave a Reply