,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

ঝিনাইদহের এল,জি,ই,ডি কর্মকর্তা – “নিজের ছেলে কালোও ভালো”

লাইক এবং শেয়ার করুন

জাহিদুর রহমান তারিক, ষ্টাফ রিপোর্টার,ঝিনাইদহ # ঝিনাইদহ সদর উপজেলার ১নং সাধুহাটী ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের মোহাম্মদপুর গ্রামে সম্প্রতি এল,জি ই-ডির তত্বাবধানে ৫ শো মিটার সর্বনিম্ন ইট ও ইটের কুচি দ্বারা পাকা রাস্তা নির্মানের কার্যক্রম চলছে। এ নিয়ে মোহাম্মদপুর এলাকায়, এ-নিয়ে জনমনে মিশ্র প্রতিক্রিয়া জমে উঠেছে। জানা গেছে, মোহাম্মদপুর গ্রামে ৫ শো মিটার পাকা রাস্তা নির্মানে সরকারী সিডিউল বর্হিভূত ভাল ইটের স্থলে সম্পূর্ন নিম্ন মানের ইট ও ইটের কুচি দ্বারা রাস্তা নির্মান চলছে, কিন্তু ৫ শো মিটার পাকা রাস্তা নির্মানের জন্য বরাদ্ধ দেওয়া হয়েছে ২৫ লক্ষ টাকা।

 

সরোজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, শুধু ইটই নয়, ইট কুচির সঙ্গে যে বালি ব্যবহার করা হচ্ছে তাও অর্ধেক মাটি। তাতে পাকা রাস্তার স্থায়িত্ব নিয়েও রয়েছে রীতিমত শংশয়। নির্মাধীন পাকা রাস্তাটির কর্মে নিয়োজিত থাকা কয়েকজন লেবারের সঙ্গে কথা বলতে গেলে তারা ঠিকাদারের কোন হদিস দিতে পারেনি। অবশেষে ঝিনাইদহ সদরের এল,জি, ই,ডি অফিসে যোগাযোগ করা হলে রাস্তাটির তদন্তে থাকা উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাহাবুব হোসেনের সাথে কথা হয়। তিনি জানান, সর্ব সাকুল্যে রাস্তাটি যেভাবেই হোক হচ্ছে সেদিকে লক্ষ না রেখে বরং নিজের ছেলে কালোও ভাল বলে মন্তব্য করেন।

 

অন্যদিকে রাস্তারটির ঠিকাদার রাশেদ-এর নিকট মোবাইলে ফোনে কথা বললে তিনি অনেকটাই রাগান্বিত হয়ে বলেন, এ ব্যাপারে আমি কথা বলতে চায়না। বরং সরকার আমাকে দিয়ে যে ভাবে কাজ করাচ্ছে আমিও সে ভাবেই করছি। তিনি আরো বলেন, লেখালিখি করলে আপনারা সরকারের বিরুদ্ধে করেণ। এ ছাড়াও জানা গেছে, নির্মানাধীন রাস্তাটি পূর্বের সলিংকৃত রাস্তা এবং সেই রাস্তায় ব্যবহৃত নাম্বার বিহীন ইট দ্বারায় নতুন করে পাকা রাস্তা নির্মানের কাজ চলছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন এমনটাই আশা করছেন গ্রামের জন-সাধারন।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আরও অন্যান্য সংবাদ