আজ শুক্রবার, ৭ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং, ১লা মুহাররম, ১৪৩৯ হিজরী, শরৎকাল, সময়ঃ রাত ১০:৫৮ মিনিট | Bangla Font Converter | লাইভ ক্রিকেট

ময়মনসিংহ শহরের ভাড়াটিয়াদের তথ্য সংগ্রহে সহযোগীতা করছে ময়মনসিংহ পৌরসভা

মেহেদী হাসান আবদুল্লাহ্, ময়মনসিংহ প্রতিনিধি # অপরাধ ও নাশকতা বন্ধ করতে ময়মনসিংহ শহরে নির্ধারিত ফরমে বাড়ির মালিক ও ভাড়াটিয়াদের তথ্য সংগ্রহ শুরু করেছে পুলিশ কর্তৃপক্ষ।  ময়মনসিংহ পৌরসভা সবাত্বক সহযোগীতায় এ কাজ দ্রুত অগ্রসরমান। সাম্প্রতিক সময়ে পরিচয় গোপন করে বাসাভাড়া নিয়ে জঙ্গিবাদ ও নাশকতা কার্যক্রম দেশে বেড়েই চলছে। এসব দেশদ্রোহী কার্যক্রম বন্ধ করার প্রত্যয়ে ময়মনসিংহ শহড়ে নির্ধারিত ফরমে বাড়ির মালিক ও ভাড়াটিয়াদের তথ্য সংগ্রহ শুরু করেছে পুলিশ কর্তৃপক্ষ। এছাড়া ভাড়াটিয়াদের তথ্য পুলিশের কাছে জমা দিতে বাড়ির মালিকদের উদ্বুদ্ধ করতে কাউন্সিলর ও কর্মকর্তা-কর্মচারী কাজ করছেন বলে জানিয়েছেন ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র মো. ইকরামুল হক টিটু।

 

বিভিন্ন আবাসিক এলাকার বাসাবাড়ি থেকে শুরু করে মেস, ছাত্রাবাসগুলোয় বসবাসকারীদের খোঁজখবর নিচ্ছেন সংশ্লিষ্ট থানার পুলিশ সদস্যরা। থানা পুলিশ সূত্র জানায়, দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে অপরাধীরা এসে ভুয়া নাম, ঠিকানা ও পরিচয় ব্যবহার করে ময়মনসিংহ শহরের পাড়া-মহল্লায় বাসা-বাড়ি ভাড়া নিয়ে নির্বিঘ্নে বসবাস করছে। এছাড়াও এ সব অপরাধীরা ময়মনসিংহ শহরে থেকে দেশের নানা জায়গায় গিয়ে অপরাধ করে এসে পুনরায় ময়মনসিংহে ভাড়া করা বাসা-বাড়িতে আশ্রয় নিচ্ছে। ফলে সংঘবদ্ধ ওই সব অপরাধীরা সবসময় পুলিশের ধরাছোঁয়ার বাইরে থেকে যাচ্ছে।

 

এ সব অপরাধীকে শনাক্ত করতে কিংবা ধরতে পুলিশকে মারাত্মক হিমশিম খেতে হচ্ছে। তাই সব রকমের অপরাধীকে শনাক্ত করতে এবং তারা যাতে ভবিষ্যতে আর কোন অপরাধমূলক কর্মকান্ড করতে না পারে তা ঠেকাতে থানা পুলিশ ভাড়াটিয়াদের তথ্য সংগ্রহের উদ্যোগ নিয়েছেন। আর ময়মনসিংহ থানা পুলিশের পক্ষ থেকে এ উদ্যোগকে সার্বিক সহযোগিতা দিতে শহরবাসীর প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানানো হয়েছে। জেলার পুলিশ সুপার মঈনুল হক জানান, ভাড়াটিয়াদের তথ্য নেয়া শেষ হলে জঙ্গিবাদ ও নাশকতা প্রতিরোধ এবং অপরাধ নিয়ন্ত্রণ সম্ভব হবে।

 

তিনি বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে পরিচয় গোপন করে বাসা ভাড়া নিয়ে জঙ্গিবাদ ও নাশকতা কার্যক্রম পরিচালনার ঘটনা বাড়ছে। এ অবস্থায় অপরাধ প্রতিরোধ এবং অপরাধীদের শনাক্ত করতে ময়মনসিংহ শহরের ভাড়াটিয়াদের তথ্য সংগ্রহ শুরু করেছে পুলিশ। সরবরাহ করা ফরম পূরণ করে সংশ্লিষ্ট থানায় জমা দেয়ার জন্য বাড়ির মালিক ও ভাড়াটিয়াদের বলা হয়েছে। পুলিশ সুপার জানান, বাড়ির মালিক ও ভাড়াটিয়া মিলে নির্ধারিত ফরম পূরণ করে সংশ্লিষ্ট থানায় জমা দিচ্ছেন। আর ভাড়াটিয়াদের তথ্য থানায় জমা দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করতে সহযোগিতা করছে ময়মনসিংহ পৌরসভা।  ময়মনসিংহ পৌরসভার ২৯ হাজার হোল্ডিংয়ে ভাড়াটিয়ার সংখ্যা প্রায় ২৫ হাজার। এর মধ্যে কোতোয়ালী মডেল থানায় ৫ হাজারের বেশী ভাড়াটিয়ার তথ্য জমা পড়েছে বলে জানা গেছে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com