আজ বৃহস্পতিবার, ৬ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং, ২৯শে জিলহজ্জ, ১৪৩৮ হিজরী, শরৎকাল, সময়ঃ সন্ধ্যা ৬:৩২ মিনিট | Bangla Font Converter | লাইভ ক্রিকেট

সাংবাদিক নাজনীন ক্ষতিপূরণ পাচ্ছেন ২২ লাখ টাকা

পারিবারিক সহিংসতা অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় দৈনিক জনকণ্ঠের সিনিয়র রিপোর্টার নাজনীন আখতার তার সাবেক স্বামী রকিবুল ইসলামের কাছ থেকে ২২ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ পাচ্ছেন। তবে টাকা রকিবুল ইসলাম কিস্তিতে দিতে পারবেন বলে বিচারক তার রায়ে উল্লেখ করেছেন। আর নাজনীন আক্তার ৫০ লাখ ৪৪ হাজার ২০০ টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করেছিলেন মামলায়। 

সোমবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট হাসিবুল হক পারিবারিক সহিংসতা (প্রতিরোধ ও সুরক্ষা) আইনের এক মামলার রায়ে ওই ক্ষতিপূরণ প্রদানের রায় দেন।

বিচারক উভয় পক্ষের আনীত সালিশগনের দাখিলকৃত প্রতিবেদন, আবেদনকারী ও প্রতিপক্ষের সামাজিক মর্যাদা এবং মূল মামলার আবেদনসহ সার্বিক পর্যালোচনায় মামলার বাদীনি নাজনীন আখতারকে ২২ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ প্রদানের জন্য বিবাদি রকিবুল ইসলামকে নির্দেশ দেন।

গত ৩০ নভেম্বর বিচারক এই মামলায় বাদীনির অভিযোগ বিষয়ে প্রকৃত ক্ষতিপূরণ নির্ধারনের জন্য উভয়পক্ষকে তিনজন করে মোট ছয়জনের নাম জমাদানের নির্দেশ দেন।

এরপর ওইদিনই উভয়পক্ষ তিনজন করে মোট ছয়জনের নাম প্রস্তাব করলেও আদালতে একপক্ষ অপরপক্ষের দু’জন করে মোট চারজনের নামে আপত্তি দাখিল করেন। পরে উভয়পক্ষের অনাপত্তিতে বিএফইউজে এর মহাসচিব ও বাসস এর নিউজ এডিটর ওমর ফারুক এবং বিএফইউজের কার্যনির্বাহী পরিষদ সদস্য ও ৭১ টিভির পরিচালক (বার্তা) সৈয়দ ইশতিয়াক রেজাকে ক্ষতিপূরণ নির্ধারণের দায়িত্ব দেয়া হয়।

গত ১০ ডিসেম্বর ওই দুই সাংবাদিক সালিশ বৈঠকে বসার জন্য আদালতে সময় প্রার্থনা করলে বিচারক পনের দিন সময় বর্ধিত করেন।

এরপর গত ২৪ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাবে উভয় পক্ষের সাথে বৈঠকে মিলিত হন ওই দুই সাংবাদিক নেতা।

স্বল্প সময়ের ওই বৈঠকে বিবাদি রকিবুল ইসলাম স্বেচ্ছায় বাদীনিকে ২৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ প্রদানে সম্মত হন।

পরে দায়িত্বপ্রাপ্ত দুই সাংবাদিক নেতা বিবাদির ক্ষতিপূরণ প্রদানে ওই সম্মতির বিষয়টি বাদীনিকে জানান এবং তাকে তা মেনে নেয়ার পরামর্শও দেন।

এরপর বিচারক ১১ জানুয়ারি ক্ষতিপূরণ বিষয়ে তার সিদ্ধান্ত জানানোর জন্য তারিখ ধার্য করেন।

 

উল্লেখ্য, দৈনিক জনকণ্ঠের সিনিয়র রিপোর্টার নাজনীন আখতার তার সাবেক স্বামী রকিবুল ইসলামের (মুকুল) বিরুদ্ধে পারিবারিক সহিংসতার অভিযোগে ৫০ লাখ ৪৪ হাজার ২০০ টাকা ক্ষতিপূরণের মামলা দায়ের করেন। এছাড়াও তিনি তার সাবেক স্বামীর বিরুদ্ধে মিরপুর মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে আরেকটি পৃথক মামলা দায়ের করেছেন যা বর্তমানে ঢাকার ৫ নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালে বিচারাধীন রয়েছে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com