আজ শুক্রবার, ৭ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং, ১লা মুহাররম, ১৪৩৯ হিজরী, শরৎকাল, সময়ঃ বিকাল ৫:৫৪ মিনিট | Bangla Font Converter | লাইভ ক্রিকেট

১০ টাকার পটেটো ২০ টাকায় বিক্রি ॥ সমালোচনার ঝড় ॥ ক্রীড়া সংস্থার কনসার্টে দর্শকদের ক্ষোভ ১৫ হাজার ফ্রুটো গেলো কই?

শেখ মোহাম্মদ তানভীর হোসেন: হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি # প্রাণ ফ্রুটো’র সৌজন্যে হবিগঞ্জ আধুনিক স্টেডিয়ামে জেলা ক্রীড়া সংস্থা আয়োজিত কনসার্টে কর্তৃপক্ষের চরম অব্যবস্থাপনায় ক্ষুব্ধ দর্শকরা। এ ছাড়া প্রতিটি টিকেটের বিপরীতে ২২ টাকা মূল্যের ২৫০ এম এল এর একটি প্রাণ ফ্রুটো দেওয়ার কথা থাকলেও বিশৃঙ্খলার অজুহাতে প্রায় ১৫ হাজার দর্শকের কাউকেই তা দেওয়া হয়নি। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন দর্শকরা। ক্ষোভ প্রকাশের স্ট্যাটাসে ঝড় উঠেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে! শনিবার (৯ জানুয়ারি) আরএফএল এর ওয়াটার পিউরিফায়ার ‘ড্রিংকইট’ এর মোড়ক উন্মোচন উপলক্ষে হবিগঞ্জ আধুনিক স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয় প্রাণ-ফ্রুটো বিজয় আনন্দ কনসার্ট। কনসার্টে সংগীত পরিবেশন করেন ফোক সম্রাজ্ঞী জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী সংসদ সদস্য মমতাজ বেগম, ক্লোজ আপ ওয়ান তারকা রিংকু, পাওয়ার ভয়েজ তারকা সজল ও টিনা মোস্তারী প্রমুখ শিল্পীরা। আরএফএল এর ওয়াটার পিউরিফায়ার ‘ড্রিংকইট’ এর মোড়ক উন্মোচনকালে স্বরচিত কন্ঠের গান পরিবেশন করেন চিত্রনায়িকা মৌসুমীও। এতসব তারকার আগমনে ১৫ সহস্রাধিক দর্শকের উপচেপড়া ভীড়ও ছিল লক্ষ্যণীয়। কিন্তু জেলা ক্রীড়া সংস্থার চরম অব্যবস্থাপনার কারণে কনসার্টের বেশিরভাগ সময়ই অনুষ্ঠান উপভোগ করতে পারেননি ভিআইপি দর্শকসহ মঞ্চের কাছের দর্শকরা। কর্তৃপক্ষের দায়িত্বহীনতার সুযোগে উভয়পাশের দর্শকরা কিছুক্ষণ পরপরই মঞ্চের সামনে এসে দাঁড়িয়ে পড়ে। ফলে পেছনে বসা ভিআইপি সারির দর্শকরা ঠিকমতো অনুষ্ঠান উপভোগ করতে পারেননি। কন্ঠশিল্পী মমতাজ মঞ্চে উঠার আধা ঘন্টা আগেই মঞ্চের সামনের অংশ একেবারেই দখল করে নেয় মঞ্চের উভয়পাশের উশৃঙ্খল লোকজন মঞ্চের চারপাশে শৃঙ্খলার দায়িত্বে নিয়োজিতরা। মাঠের ভিতরে স্থাপিত মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টরগুলো অধিকাংশ সময়ই ছিল বিকল। ফলে এ সময় ভিআইপি টিকেটধারী দর্শকরা শ্রোতার মতো গান শোনা ছাড়া আর কোন উপায় ছিল না। এর মধ্যে ধাক্কাধাক্কিতো আছেই।
এদিকে, প্রতিটি টিকেটের বিপরীতে ২২ টাকা মূল্যের ২৫০ এম এল এর একটি করে প্রাণ ফ্রুটো দেওয়ার কথা থাকলেও ১৫ হাজারেরও অধিক দর্শকের কাউকেই তা দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশে স্ট্যাটাসে ঝড় উঠেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে! একটি সুত্র জানায়, প্রাণ আরএফএল কর্তৃপক্ষ প্রতিটি টিকেটের বিপরীতে একটি করে প্রাণ ফ্রুটো সরবরাহ করলেও বিশৃঙ্খলার অজুহাতে সেই ফ্রুটো দর্শকদের দেননি জেলা ক্রীড়া সংস্থা কর্তৃপক্ষ। তবে, এ ফ্রুটোগুলোরও কোন হদিস নেই।   এদিকে, মাঠের ভিতরে প্রাণের নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় স্থাপিত একমাত্র স্টলটিতেও ছিল অনিয়ম। ওই স্টলে ১০ টাকার পটেটো ক্রেকার্স বিক্রি করা হয় ২০ টাকায়। বিকল্প ব্যবস্থা না থাকায় দর্শককে তা কিনতে হয় বাধ্য হয়ে। জানা যায়, যথারীতি প্রাণ-আরএফএল গ্র“প নির্দিষ্ট পরিমাণ টিকেটের বিপরীতে ‘প্রাণ ফ্রুটো’ জেলা ক্রীড়া সংস্থার কাছে কনসার্টের পূর্বেই হস্তান্তর করেছে। এ ব্যাপারে টিকেটের ইজারাদার জানান- ক্রীড়া সংস্থা কর্তৃপক্ষ তাকে প্রাণ ফ্রুটো না দেওয়ায় তিনি কোন টিকেটধারীকেই তা দিতে পারেননি। শহরের রাজনগর এলাকার সালাউদ্দিন নামে এক দর্শক জানান, আন্তরিকতা থাকলে মাঠে প্রবেশের সময়ই ফ্রুটোগুলো সরবরাহ করতে পারত কর্তৃপক্ষ। কিন্তু এর কোন চেষ্টাই করেনি ক্রীড়া সংস্থা। এ ব্যাপারে জেলা ক্রীড়া সংস্থার এক কর্মকর্তা জানান- উপচে পড়া দর্শকদের ভীড়ে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির কারণে প্রাণ ফ্রুটো সরবরাহ করা সম্ভব হয়নি।
প্রাণ-আরএফএল গ্র“পের মিডিয়া অফিসার তৌহিদুর রহমান সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘এসব ব্যাপারে আমাদের কিছু জানা নিই। হবিগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার কর্মকর্তারাই ভাল বলতে পারবেন।’

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com