নরেন্দ্র মোদির বিদায় ঘণ্টা বেজে গেছে: জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক

২৩ বার পঠিত

পশ্চিমবঙ্গের খাদ্যমন্ত্রী ও সিনিয়র তৃণমূল নেতা জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক আজ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির তীব্র সমালোচনা করেছেন। জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক আজ (শনিবার) উত্তর ২৪ পরগণা জেলার বনগাঁয় দলীয় এক সমাবেশে বলেন, ‘নরেন্দ্র মোদি যে রাজনৈতিক আগুন নিয়ে খেলছেন, সেই আগুনেই তাকে পুড়ে মরতে হবে। এই খেলা ভয়ঙ্কর এবং ভয়াবহ। আমাদের তা নজর রাখতে হবে।’

 

জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, ‘এখানে রাম আর রহিম একসঙ্গে বসবাস করে। এখানে রহিমা, বিশ্বজিৎ এরা মায়ের পেটের ভাই-বোনের মত। এখানে হিন্দু-মুসলমানের লড়াই হয় না। হিন্দু-মুসলমান আমরা এক সঙ্গে সহবস্থান করি। এখানে মুসলিম ভাইয়েরা যখন তাদের রোজা ভাঙ্গে, আমরা তাদের সঙ্গে থাকি, ফলও খাই। আবার যখন দুর্গাপুজো আসে ওরাও নতুন জামা কাপড় পরে উৎসবে শামিল হয়। এভাবেই আমরা পারস্পারিক শান্তি এবং সহবস্থানের মধ্যে বসবাস করে থাকি।’

 

বিজেপি’র নাম উল্লেখ না করে তিনি বলেন, ‘হিন্দু-মুসলমানের দাঙ্গা লাগিয়ে কখনো লাভবান হওয়া যায় না। প্রতিটি দিনই নরেন্দ্র মোদি এক পা এক পা করে পিছিয়ে যাচ্ছেন। নরেন্দ্র মোদি জেনে গেছেন, ২০১৯ সালের নির্বাচনে ওকে চলে যেতে হবে। এখন থেকে উনি জেনে গেছেন, তার ঘণ্টা বেজে গেছে। তিনি জেনে গেছেন আমাকে চলে যেতেই হবে, আমাকে কেউ আটকে রাখতে পারবে না।’ তাকে চলে যেতেই হবে বলেও মন্তব্য করেন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক।

 

তিনি পশ্চিমবঙ্গে সিপিএম এবং কংগ্রেসের মধ্যে সাম্ভাব্য জোট হলে তারা চূড়ান্তভাবে ব্যর্থ হবে বলে মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, সিপিএম-কংগ্রেস যদি জোট হয়, জেনে রেখে দিন উত্তর ২৪ পরগণা জেলায় এক হাজার ভোটও কংগ্রেস পাবে না। সিপিএমের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, কোনো কমরেড যদি মাইকে আমার বক্তব্য শোনেন, তাহলে জেনে রেখে দিন, ২০১৬ সালের নির্বাচনের প্রস্তুতি না নিয়ে ২০৫৬ সালের কথা ভাবুন। ওই সময় আমাদের সঙ্গে লড়াইয়ের কথা ভাববেন। তিনি সিপিএমের উদ্দেশ্যে প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়ে বলেন, ‘২০১৬ সালে ক্ষমতায় আসতে পারবেন তো? আসন সংখ্যায় আপনারা দুই অঙ্কের সংখ্যাও পৌঁছাতে পারবেন না।’

 

তিনি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়কে সর্বকালের, সর্বযুগের, সর্বশ্রেষ্ঠ মুখ্যমন্ত্রী বলে অভিহিত করেন। রাজ্যে যেভাবে গরীব মানুষদের মধ্যে দুই টাকা কেজি দরে চাল বিলি করা হচ্ছে, অভাবি কৃষকদের কাছ থেকে উপযুক্ত মূল্যে কিষাণ মান্ডির মাধ্যমে ধান কেনা হচ্ছে সেসব নিয়ে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন। এসবের পাশাপাশি উত্তর ২৪ পরগণা জেলা পরিষদের সভাধিপতি রহিমা মন্ডলের নেতৃত্বে যেসব উন্নয়ন হচ্ছে এবং সর্বোপরি রাজ্যে যে উন্নয়ন চলছে তা সকলকে জানান। আজকের এই রাজনৈতিক সম্মেলনে জেলা এবং বিভিন্ন ব্লকের শীর্ষ স্থানীয় নেতৃত্ব উপস্থিত ছিলেন।

রেডিও তেহরান

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com