৫ জানুয়ারি ঢাকায় সমাবেশ করতে চায় বিএনপি : মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

৩২ বার পঠিত

৫ জানুয়ারি নির্বাচনের বর্ষপূর্তিতে ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ উপলক্ষে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করতে চায় বিএনপি। একইসঙ্গে সারাদেশে জেলা দফতরগুলোতে প্রতিবাদ সমাবেশ করবে দলটি। এ তথ্য জানিয়ে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, দুই বছর আগে ৫ জানুয়ারি নির্বাচনের নামে গণতন্ত্র হত্যা করা হয়েছে।

 

জনগণের ভোট ছাড়াই নির্বাচন করা হয়েছে। প্রায় সবকটি রাজনৈতিক দল অংশগ্রহণ ছাড়াই যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল সেই নির্বাচনের পর একটা প্রহসনমূলক নাটকের মধ্য দিয়ে সরকার গঠন করা হয়েছিল। সেই সরকার এখনো আছে। এটাকে আমরা গণতন্ত্র হত্যা দিবস বলে চিহ্নিত করেছিলাম। গণতন্ত্রকে সেদিন হত্যা করা হয়েছিল। জনগণ ভোটের মাধ্যমে রায় দিতে পারেনি।

 

আজ (শনিবার) নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক যৌথ সভা শেষে, দুপুরে তিনি এসব কথা বলেন। ১৯ জানুয়ারি দলের প্রতিষ্ঠাতা সাবেক প্রেসিডেন্ট শহীদ জিয়াউর রহমানের ৮০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে এ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে দলটি। মির্জা ফখরুল আরো বলেন, গণতন্ত্র হত্যার ওইদিনকে স্মরণ করতে এবং গণতন্ত্র ফিরে পাওয়ার আন্দোলনের অংশ হিসেবে আগামী ৫ জানুয়ারি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শান্তিপূর্ণ সমাবেশের জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি দিয়েছি। আশা করি তারা সমাবেশ করার জন্য অনুমতি দিবে। মাইক ব্যবহার করার অনুমতি দিবে।

 

পৌর নির্বাচন পরবর্তী নেতাকর্মীদের গ্রেফতারের নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেন, এমন দমন পীড়ন বেশ কয়েক বছর ধরে চলছে। সরকারকে এ থেকে বের হতে হবে। সুষ্ঠু গণতান্ত্রিক পরিবেশ ফিরিয়ে আনার জন্য বিরোধী দলের সঙ্গে আলোচনা করতে হবে। অন্যথায় যে ভয়াবহ আশঙ্কা করা হচ্ছে, উগ্রতা ও জঙ্গিবাদ দমন করা কঠিন হয়ে পড়বে। তাই অবিলম্বে দেশ ও জনগণের স্বার্থে বিরোধী দলের সঙ্গে আলোচনা করে গণতান্ত্রিক পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে সরকারের প্রতি আহবান জানান মির্জা ফখরুল।

 

কর্মসূচি সম্পর্কে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব জানান, জন্মদিন উপলক্ষে ১৯জানুয়ারি সকাল ১০টায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দলের শীর্ষ নেতাদের নিয়ে শেরেবাংলা নগরে অবস্থিত প্রতিষ্ঠাতার সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাবেন। একইদিন বিকেলে রাজধানীতে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। ওইদিন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং সারাদেশের দলীয় কার্যালয় দলের পতাকা উত্তোলন করা হবে। সারাদেশে যথাযোগ্য মর্যাদায় প্রতিষ্ঠাতার জন্মবার্ষিকী পালন করা হবে। এছাড়া জাতীয় দৈনিকে দিবসটি উপলক্ষে বিশেষ ক্রোড়পত্র ও পোস্টারিং করা হবে বলে জানান তিনি।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com