,

AD
নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

প্রচারনার মাঠে দলীয় প্রার্থীরা স্বতন্ত্র প্রতীকের অপেক্ষায়

লাইক এবং শেয়ার করুন

কিশোর কুমার দত্ত, লক্ষ্মীপুর # লক্ষ্মীপুরে পৌর নির্বাচনকে ঘিরে প্রার্থীদের মধ্যে বিপুল উৎসাহ উদ্দিপনা দেখা দিচ্ছে। প্রথম বারের মত দলীয় প্রতিকে ভোট হওয়ায় বেশি সুবিধা পাচ্ছে আওয়ামীলীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি ও ইসলামী আন্দোলনের মনোনিত মেয়র প্রার্থীরা। এদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা প্রতিকের অপেক্ষায় প্রচারনায় নামতে পারছে না। অপরদিকে রায়পুর বিএনপি থেকে নজরুল ইসলাম লিটন এবং রামগঞ্জে আ’লীগ থেকে বেলাল আহম্মেদ বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

জেলার ৪টি পৌর সভার মধ্যে (সদর) ১টিতে প্রশাসনিক ও সীমানা জটিলতার কারনে স্থগিত রয়েছে। বাকি ৩টি (রামগঞ্জ, রামগতি ও রায়পুর) পৌরসভায় নির্বাচন হচ্ছে আগামী ৩০ডিসেম্বর। প্রথম ধাপের এ নির্বাচনে জেলার ৩টি পৌরসভায় ৬৭ হাজার ১শ ৬ জন ভোটার ভোটে অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে। ওই তিন পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে লড়াই করবেন ১৫জন প্রার্থী, কাউন্সিলর পদে ১শ ৪৩ জন ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন ২১জন প্রার্থী।

জেলার ৩টি পৌরসভায় নির্বাচনকে সামনে রেখে ভোটারদের ধারে ধারে ঘুরছেন কাঙ্খিত প্রার্থীরা। জানাচ্ছেন তাদের আশ্বাসের কথাও।

রায়পুর :
রায়পুর পৌরসভায় ভোটার সংখ্যা ২০হাজার ২শ ১১জন। পৌরবাসীর উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি নিয়ে এ পৌরসভায় মেয়র পদে দাঁড়িয়েছেন ৬জন প্রার্থীতা করছেন। এখানে বিএনপি থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন রায়পুর পৌর বিএনপির সভাপতি ও বর্তমান মেয়র এবিএম জিলানী, আ’লীগ থেকে রায়পুর উপজেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ ইসমাইল খোকন, জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন রায়পুর উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারন সম্পাদক আব্দুল ওয়াদুদ মৃধ্যা ও ইসলামী আন্দোলন থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন জাকির হোসেন। রায়পুর পৌরসভায় আ’লীগ থেকে বিদ্রোহী না থাকলেও বিএনপি থেকে বিদ্রোহী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন সাবেক রায়পুর পৌর বিএনপির সাধারন সম্পাদক নজরুল ইসলাম লিটন। এখানে আরেক প্রার্থী মাইনুল ইসলাম ডালিম নির্বাচন করছেন স্বতন্ত্র হিসেবে। রায়পুর পৌরসভায় ৯টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর হিসেবে ভোট করছেন ৩৯জন এবং সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ভোট করছেন ৭জন।

রামগঞ্জ:
রামগঞ্জ পৌরসভায় ২৯ হাজার ৫শ ১৬ জন ভোটারের জন্য মেয়র প্রার্থী হয়েছেন ৬ জন। এই পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে সাধারন কাউন্সিলারের জন্য প্রার্থীতা করবেন ৭০জন ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলারের জন্য ৫জন প্রার্থী। তবে এবার রামগঞ্জ পৌরসভায় ৬ জন মেয়র প্রার্থীর মধ্যে দলীয় প্রার্থী হিসেবে বিএনপি থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন রামগঞ্জ পৌর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মোঃ রোমান পাটওয়ারী, আ’লীগ থেকে দেওয়া হয়েছে পৌর আ’লীগের সভাপতি আবুল খায়ের পাটওয়ারী, জাতীয় পার্টি থেকে পেয়েছেন পৌর জাতীয় পার্টির সাধারন সম্পাদক  মোহাম্মদ মহসিন ও ইসলামী আন্দোলন থেকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে মোঃ জাকির হোসেনকে। তবে বাকী ২ প্রার্থীর মধ্যে খায়েরুল ইসলাম স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে দাঁড়ালেও বর্তমান মেয়র ও পৌর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক বেলাল আহম্মেদ আওয়ামীলীগের মনোনয়ন না পাওয়ায় বিদ্রোহী হিসেবে ভোট করছেন এই পৌরসভায়।

রামগতি :
১৭হাজার ৩শ ৭৬ জন ভোটারের জন্য এবার রামগতি পৌরসভায় মেয়র প্রার্থী হয়েছেন ৩জন। এখানে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে কেউ না থাকলেও আ’লীগ থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন জেলা আ’লীগের তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক এম মেজবাহ উদ্দিন, বিএনপি থেকে রামগতি পৌর বিএনপির সভাপতি ও বর্তমান মেয়র  আলহাজ্ব শাহেদ আলী পুটু ও জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন জাতীয় পার্টিতে সদ্য যোগদান কারী ও সাবেক মেয়র আজাদ উদ্দিন চৌধুরী। রামগতি পৌরসভায় ৯টি ওয়ার্ডে এবার কাউন্সিলর প্রার্থী হয়েছেন ৩৪জন আর ৩টি সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে দাঁড়িয়েছেন ৯জন।

এদিকে জেলা নির্বাচন অফিস জানায়,  রায়পুর পৌর নির্বাচনে রিটার্নিং অফিসারের দায়িত্ব পালন করবেন, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সোহেল সামাদ, রামগঞ্জে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আবু ইউসুফ ও রামগতিতে দ্বায়িত্ব পালন করবেন রামগতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম সফি কামাল।


লাইক এবং শেয়ার করুন
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আরও অন্যান্য সংবাদ