বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে সাকিবের রংপুর রাইডার্সকে ৬ উইকেটে হারালো মাহমুদউল্লাহর বরিশাল বুলস

এই সংবাদ ৩৬ বার পঠিত

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে রংপুর নিয়মিত বিরতিতে ৯ উইকেট হারিয়ে ১০৪ রান সংগ্রহ করে।
১০৫ রানের টার্গেটে বরিশাল ব্যাটিংয়ে নামলেও খেলার ৩.৩ ওভার চলাকালে বৃষ্টি বাধায় তাদের ইনিংস নেমে আসে ১৩ ওভারে। বুলসের সামনে নতুন টার্গেট দাঁড়ায় ৭৫ রান। ৩ বল হাতে রেখেই ৪ উইকেট হারিয়ে ডি/এল মেথড পদ্ধতিতে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় বরিশাল।

দলীয় ১৯ রানে বরিশালে প্রথম উইকেটের পতন ঘটে। ব্যক্তিগত ৪ রান করে ওয়াহাব রিয়াজের বলে এলবিডব্লিউর শিকার হন আসরের প্রথম সেঞ্চুরিয়ান এভিন লুইস। দলীয় ৩০ রানে রনি তালুকদার ব্যক্তিগত ২৩ রান করে আরাফাত সানির বলে মোহাম্মদ নবীর হাতে ক্যাচ দেন। দলীয় ৪২ রানে মেহেদি মারুফকে ব্যক্তিগত ৩ রানে প্যাভিলিয়েনে ফেরান সাকিব। দলীয় ৭২ রানে ১৬ রান করা নাদিফ সানির বলে মিসবাহর হাতে ক্যাচ দেন। এরপর ১ রান করা প্রসন্নকে সাথে নিয়ে ব্যক্তিগত ২৩ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ।

এর আগে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করা রংপুর শুরু থেকেই ধারাবাহিক ভাবে উইকেট হারিয়ে শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে সংগ্রহ করে ১০৪ রান। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ইনিংসের শুরুতেই ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে রংপুর। দলীয় ৮ রানে ব্যক্তিগত শুণ্য রানে সৌম্য আউট হলে উপর্যুপরি উইকেট পতন শুরু হয় রাইডার্সের শিবিরে।

দলীয় ৫৪ রানে ব্যক্তিগত ৯ রান করে পেরেরা আউট হলে প্রথমসারির ৫ ব্যাটসম্যানকে হারায় রংপুর। এর পর মিসবাহ নিজেও দলের হাল ধরতে পারেননি। দলীয় ৬৪ রানে মোহাম্মদ সামির শিকার হন মিসবাহ। দলের অন্যান্য ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সাকিব ১, মোহাম্মদ মিঠুন ২, মোহাম্মদ নবী ৫ ও ওয়াহাব রিয়াজ ১২ রান করেন। এছাড়া মুক্তার আলী ৯ ও আরাফাত সানি শুন্য রানে অপরাজিত থাকলে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১০৪ রানের স্বল্প পুজি গড়ে রংপুর।

বরিশালের হয়ে আল আমিন ৩টি, আমরিত ও মোহাম্মদ সামি ২টি করে উইকেট নেন। ১টি করে উইকেট দখল করেন তাইজুল এবং সেকুজে প্রসন্ন।
বুলসের পক্ষে ৩ উইকেট নিয়ে ম্যান অব দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হন আল-আমিন হোসাইন।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com