অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি সমকামিতার কারণে ঘোড়ার মৃত্যুদণ্ড!

এই সংবাদ ৩২ বার পঠিত

সমকামিতা সামাজিকভাবে খুবই ঘৃণ্য এক কাজ। এর জন্য অনেক দেশে বা সমাজে শাস্তির বিধানও রয়েছে। তবে সেটা মানুষের ক্ষেত্রে। তাই বলে সমকামিতার কারণে ঘোড়ার মৃত্যুদণ্ড! কথাটি শুনে অবিশ্বাস্য বলেও মনে হতে পারে। কিন্তু অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি সৌদি আরবে ‘সমকামিতার অপরাধে’ একটি ঘোড়াকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে। আরব বিশ্বের জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যম গালফ নিউজ এই খবর জানিয়েছে। দৌড়ের জন্য বিখ্যাত এই ঘোড়াটির বাজারমূল্য ছিল প্রায় ১ কোটি ২০ লক্ষ মার্কিন ডলার।

সৌদি আদালতের বরাত গালফ নিউজ জানায়, চার বছর বয়সী এই ঘোড়াটির নাম আল-হাদিয়ে। আরবি এই নামটির অর্থ ‘উপহার’। এর মালিক ছিলেন সৌদি যুবরাজ আলওয়ালাদ-বিন-তালাল। দৌড়ের জন্য বিখ্যাত এই ঘোড়াটি চলতি ঘোড়দৌড়ের বছরেই প্রায় ৪২ কোটি টাকা (ছয় মিলিয়ন ডলার) আয় করেছিল। এটি সৌদি আরবের জাতীয় ঘৌড়দৌড় প্রতিযোগিতা ও কাতারের ‘অ্যারাবিয়ান হর্স শো’তেও অংশ নিয়েছিল। গত সপ্তাহে পুরুষ এই ঘোড়াটিকে আরেকটি ঘোড়ার সঙ্গে সঙ্গম করতে দেখে পরিচর্যাকারী। এরপরই সে বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানায়। এরপর থেকে ঘোড়াটিকে আলাদা করে রাখা হয়। সমকামিতা আইনে ঘোড়াটির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়।

গত শুক্রবার ঘোড়াটির মৃত্যুদণ্ডের রায়ের পর একই দিন তা কার্যকর করা হয়। আরব বিশ্বের আরেক সংবাদমাধ্যম আরব ওয়ার্ল্ড ডটকম রায় স্বাক্ষরের একটি ছবি প্রকাশ করে বলেছে, ওই দেশের সরকারি টেলিভিশনে ঘোড়াটির মৃত্যুদণ্ডের আদেশের বিষয়টি প্রচার করা হয়। যাতে জনগণ বুঝতে পারে সমকামিতার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রযন্ত্র কতটা কঠোর। এমনকি কোনও প্রাণিকেও এই অপরাধে ছাড় দেয়া হয় না!

সৌদি আরবের ধর্মীয় পুলিশ কর্তৃপক্ষ ও ‘সদগুণের বিস্তার এবং অনৈতিকতা প্রতিরোধ কমিটির’ প্রধান শাইখ আবদুর রহমান আল আলসানাদ বলেন, ‘সমকামিতা একটি মারাত্মক রোগ৷ যার সম্পর্কে বিজ্ঞান খুবই কম জানে। আমাদের পবিত্র এই ভূমিকে সম্ভাব্য সকল উপায়ে এই ক্ষতিরোগ থেকে দূরে রাখা হবে। শুধু মানুষ নয়, সকল প্রাণীকেও এই ক্ষতিকর অভ্যাস থেকে মুক্ত রাখতে সব ধরনের কঠোরতার অনুমতি আইনে দেয়া আছে।’

আবদুর রহমান আল আলসানাদ আরও বলেছেন, ‘আমাদের বিদেশি বন্ধুরা হয়তো প্রাণি অধিকার নিয়ে কথা বলবেন। কিন্তু, প্রাণি অধিকারের নামেও আমরা সমকামী প্রাণিকে এই পবিত্র ভূমিতে স্থান দিতে পারি না। সৌদি আরবের কোনও শাসক কোনদিনও এর অনুমতি দেয়নি। আমাদের জনগণও দেয়নি। এদিকে ঘোড়াটি মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার কারণে বিশ্বব্যাপী অনেক মানবাধিকার সংস্থা নিন্দা জানিয়েছে। আমেরিকান সংগঠন পিপল ফর দ্য ইথিক্যাল ট্রিটমেন্ট অব আমেরিকা সংক্ষেপে পিইটিএ নামে পরিচিত। পিইটিএ জানায়, পশুদের স্বার্থ রক্ষার ক্ষেত্রে সৌদির সবচেয়ে খারাপ রেকর্ড রয়েছে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com