আজ বুধবার, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং, ২৮শে জিলহজ্জ, ১৪৩৮ হিজরী, শরৎকাল, সময়ঃ রাত ১০:৪৪ মিনিট | Bangla Font Converter | লাইভ ক্রিকেট

“ফিলিস্তিনি ভাই-বোনদের আত্মনিয়ন্ত্রণ ও রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার ন্যায্য সংগ্রামে বাংলাদেশ : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

পূর্ব জেরুজালেমকে রাজধানী করে একটি স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় সচেষ্ট ফিলিস্তিনি জনগণের প্রতি বাংলাদেশের দ্ব্যর্থহীন সমর্থন পুনর্ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার ‘ফিলিস্তিনি জনগণের সঙ্গে সংহতি প্রকাশের আন্তর্জাতিক দিবস’ উপলক্ষে দেয়া এক বাণীতে প্রধানমন্ত্রী এই সমর্থন পুনর্ব্যক্ত করেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, “ফিলিস্তিনি ভাই-বোনদের আত্মনিয়ন্ত্রণ ও রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার ন্যায্য সংগ্রামে বাংলাদেশ সরকার ও জনগণ অবিচলভাবে সংহতি জানিয়ে যাবে।”

বাংলাদেশ সংবাদসংস্থা বাসসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী বলেন, “সাম্রাজ্যবাদ, উপনিবেশবাদ অথবা বর্ণবাদের বিরুদ্ধে সারা বিশ্বের সংগ্রামরত নির্যাতিত মানুষের প্রতি সমর্থন জানানোর ব্যাপারে আমাদের সাংবিধানিক অঙ্গীকারের অংশ হিসেবে বাংলাদেশ সরকার ও জনগণ স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় সচেষ্ট ফিলিস্তিনি জনগণের ন্যায়সঙ্গত সংগ্রামের প্রতি দ্ব্যর্থহীন সমর্থন পুনর্ব্যক্ত করেছে।”

তিনি বলেন, “দীর্ঘ রাজনৈতিক সংগ্রাম ও ১৯৭১ সালের বীরত্বপূর্ণ মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে আমাদের স্বাধীনতা অর্জনে যেসব মূল্যবোধ, মূলনীতি ও আদর্শ আমাদের অনুপ্রাণিত করেছে, ফিলিস্তিনের জনগণের ন্যায়সঙ্গত সংগ্রামে দৃঢ় সংহতি জানাতে সেগুলোই আমাদের পথ দেখায়।” প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ অধিকৃত ফিলিস্তিন ভূখণ্ডে দখলদার বাহিনীর অব্যাহত জুলুম-নির্যাতন এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনের নিন্দা জানায়।

শেখ হাসিনা বলেন, “বাংলাদেশ বিশ্বাস করে যে, জাতিসংঘ সনদ, রোডম্যাপ, আরব শান্তি পরিকল্পনা এবং কাতারের উদ্যোগ বিদ্যমান ফিলিস্তিন ইস্যুর দীর্ঘমেয়াদি সমাধানের সেরা নির্দেশনা হতে পারে।” প্রধানমন্ত্রী বলেন, “বাংলাদেশ মনে করে, সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে জাতিসংঘ প্রস্তাব, রোডম্যাপ, আরব শান্তি পরিকল্পনা ও চতুর্পক্ষীয় (জাতিসংঘ, যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও রাশিয়া) সিদ্ধান্তগুলি বহুদিনের প্যালেস্টাইনি ইস্যুর দীর্ঘস্থায়ী সমাধানের পথ নির্দেশ করবে।”

মধ্যপ্রাচ্য শান্তি প্রক্রিয়ার প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রস্তাবিত দুই রাষ্ট্র ব্যবস্থার রূপরেখার আওতায় শান্তি প্রক্রিয়া পুনঃস্থাপনের বাস্তব দৃষ্টিভঙ্গি গ্রহণ করতে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। আমরা স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় সচেষ্ট ফিলিস্তিনি জনগণের ন্যায়সঙ্গত সংগ্রাম ও আকাঙ্ক্ষার প্রতি সমর্থন এবং তাদের পক্ষে কাজ করার জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতিও আহ্বান জানাচ্ছি।” আগামীকাল রোববার সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশেও ‘ফিলিস্তিনি জনগণের সঙ্গে সংহতি প্রকাশের আন্তর্জাতিক দিবস’ পালিত হবে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com