বাগেরহাটে শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধে পুলিশের লাঠিচার্জ : অর্ধশতাধিক আহত

৮৮ বার পঠিত

মোহাম্মদ রাহাদ রাজা,খুলনা বিভাগীয় স্টাফ রিপোর্টারঃ বাগেরহাট মেডিকেল এ্যাসিস্ট্যান্ট ট্রেনিং স্কুলের (ম্যাটস) শিক্ষার্থীরা বাগেরহাট-খুলনা মহাসড়কের বাসস্ট্যান্ড মোড়ে অবরোধকালে পুলিশের বেপরোয়া লাঠিচার্জে অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। এ সময় পুলিশ কয়েক শিক্ষার্থীকে আটক করলেও পরে ছেড়ে দেয়।  এর আগে বঙ্গবন্ধু’র ঘোষণা অনুযায়ী উচ্চ শিক্ষার ব্যবস্থাসহ ৪ দফা দাবিতে দেশব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে গতকাল বুধবার সকালে শিক্ষার্থীরা শহরে বিক্ষোভ মিছিল করে।

জানা যায়, সকালে ম্যাটস্ এর সকল শিক্ষার্থী তাদের ৪ দফা দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে। পরে বেলা  ১২টার দিকে মিছিল সহকারে বাগেরহাট-খুলনা মহাসড়কের বাসস্ট্যান্ডের মোড়ে অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ করে। এ সময়ে পুলিশ প্রথমে তাদেরকে অবরোধ তুলে নিতে বললে শিক্ষার্থীরা বেপরোয়া হয়ে ওঠে। একপর্যায়ে পুলিশের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে পুলিশ তাদের উপর লাঠিচার্জ শুরু  করে। এতে ম্যাটস্ এর অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী আহত হয়। পরে ম্যাটসের শিক্ষার্থীরা বাগেরহাট জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে পথসভা করে। পথসভায় বক্তৃতা করেন, ম্যাটস্ এর সভাপতি মোঃ গোলাম রব্বানী, সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইয়ার মাহমুদ, মোঃ মাসুদ রানা, আইরিন সুলতানা ইতি, তানজিলা আক্তার প্রমুখ।

ম্যাটস্ এর দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে উচ্চ শিক্ষার ব্যবস্থা, মেডিকেল এডুকেশন বোর্ড অব বাংলাদেশ নামে স্বতন্ত্র বোর্ড গঠন, কমিউনিটি ক্লিনিকে সরকারি ভাবে ১০ম গ্রেডে নিয়োগ ও বেসরকারি ক্লিনিক ও হাসপাতালে ম্যাটস থেকে পাশকৃত ডিপ্লোমা চিকিৎসকদের পদ সৃষ্টি ও বাস্তবায়ন করাসহ ইন্টার্নশীপে ভাতা প্রদান। এসব দাবিতে দেশব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে মেডিকেল এ্যাসিস্ট্যান্ট ট্রেনিং স্কুল (ম্যাটস্) শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে।

বাগেরহাটের পুলিশ  সুপার পংকজ চন্দ্র রায় সাংবাদিকদের মোবাইলফোনে বলেন, “ম্যাটস্ এর আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করলে তাদেরকে প্রথমে শান্তিপূর্ণভাবে অবস্থান কর্মসূচি প্রত্যাহার করতে বলা হয়। তখন তারা কর্মসূচি প্রত্যাহার না করলে পুলিশ তাদেরকে মহাসড়ক ত্যাগ করতে বাধ্য করে। তবে এই ঘটনায় কাউকে আটক করা হয়নি। তাদের উপর লাঠিচার্জের কোন প্রশ্নই আসে না বরং তাদের সাথে কোন ধরনের  অসৌজন্যমূলক আচারণ করা হয়নি।”  

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com