বাংলাদেশের পাশে ভারত সব সময় থাকবে: মোদি

১৭ বার পঠিত

অনলাইন ডেস্ক | সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পাশে ভারত সব সময় থাকবেবলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি বলেন, নিজেকে কখনো একা ভাববেন না, এমন পরীক্ষার সময় (সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই) ভারত আপনার পাশেই আছে।

 

আজ বৃহস্পতিবার বেনাপোল স্থলবন্দরের সংযোগ সড়ক দিয়ে ভারতের নবনির্মিত পেট্রাপোল স্থলবন্দরের ইন্টিগ্রেটেড চেকপোস্টের আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্যের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। ভারতের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে যোগ দেন নরেন্দ্র মোদি। সেখানে দেওয়া বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।
ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও যুক্ত ছিলেন।

ভিডিও কনফারেন্সের শুরুতে কিছু কথা বাংলায় বলে পশ্চিমবঙ্গের মানুষ ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে শুভেচ্ছা জানান নরেন্দ্র মোদি। এরপরই বাংলায় বাংলাদেশের মানুষকে ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছাও জানান তিনি। পবিত্র রমজান মাসে ঢাকা ও কিশোরগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলা, মন্দিরে, পুরোহিত, সাধারণ মানুষের ওপর সন্ত্রাসী হামলারও নিন্দা জানান মোদি। হামলায় হতাহত নিরীহ মানুষের সঙ্গে পুরো ভারতের মানুষের সমবেদনা রয়েছে বলেও জানান তিনি।

পরে হিন্দিতে বক্তব্যে দেন নরেন্দ্র মোদি। তিনি শেখ হাসিনাকে উদ্দেশে করে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, এই পরীক্ষার সময় পুরো ভারত আপনার সঙ্গেই আছে। এই কঠিন পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বের মাধ্যমে যেভাবে ধৈর্যের সঙ্গে নেতৃত্ব দিয়েছেন, তাতে আমি মন থেকে আপনাকে অভিনন্দন জানাই। আপনার নেতৃত্ব পুরো অঞ্চলের জন্য একটি উদাহরণস্বরূপ। সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে নিজের এই লড়াইয়ে আপনি কখনো নিজেকে একা ভাববেন না, ভারতের পূর্ণ সমর্থন আপনার সঙ্গে আছে। আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে এটাও আশ্বাস দিতে চাই যে, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে আপনার এই যে লড়াই তাতে ভারত আপনাকে সব ধরনের সহায়তা দিতে সব সময় প্রস্তুত। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আমরা এখন এমন এক জায়গায় দাঁড়িয়ে আছি, যেখান শুধু আমাদের চ্যালেঞ্জগুলোই এক নয়, আমাদের বিকাশের পথও একসঙ্গে জড়িত। সেই সঙ্গে আমাদের সমান সম্ভাবনাও রয়েছে।

বেনাপোল-পেট্রাপোল পুরো দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় স্থলবন্দর বলে উল্লেখ করেন নরেন্দ্র মোদি। শুধু এখানে নয়, এর আগে আগরতলায়ও ইন্টিগ্রেটেড চেকপোস্ট তৈরির কাজ শুরু হয়েছে বলে জানান তিনি। নরেন্দ্র মোদি বলেন, আমি মনে করি আর্থিক বিকাশ ও কানেক্টিভিটি একে অন্যের সঙ্গে জড়িত। এই বন্দর শুধু বাণিজ্যকে না বরং আমাদের দুই দেশের মানুষের মধ্যেও সম্পর্কের বিকাশ ঘটাবে।

বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক বিকাশে শেখ হাসিনার ভূমিকার প্রশংসা করেন নরেন্দ্র মোদি। এই বন্দর দুই দেশের মানুষের জন্য অত্যন্ত লাভজনক হবে বলে মনে করেন তিনি।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সুব্রত দেব নাথ

সিনিয়র নিউজরুম এডিটর

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com