ফেসবুক বন্ধের প্রশ্নই আসে না: তারানা হালিম

৯৯ বার পঠিত

ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক বন্ধের প্রশ্নই আসে না। এক মুহূর্তের জন্যেও ফেসবুক বন্ধ করা হবে না।’ সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এমন কোনো সিদ্ধান্ত কখনোই নেয়া হয়নি জানিয়ে তারানা বলেন, ‘এমন কি বিষয়টি নিয়ে কোনো বিবেচনাও করা হয়নি।’ মধ্যরাতে ফেসবুক বন্ধের খবর প্রকাশের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে মঙ্গলবার (০৪ এপ্রিল) ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী।

তারানা হালিম বলেন, ‘সরকার আমাদের কাছ থেকে বিষয়টি নিয়ে জানতে চেয়েছিল। আমরা আমাদের মতামত জানিয়েছি। সেখানে ফেসবুক বন্ধ না করার জন্যই বলা হয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘অনেক সংবাদমাধ্যমে ফেসবুক বন্ধ করা নিয়ে সেসব খবর বেরিয়েছে তা অত্যন্ত দুঃখজনক। আমরা বিটিআরসিকে জানিয়েছি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য ফেইসবুক বন্ধ করা কোনোভাবেই সম্ভব নয়।’ ভবিষ্যতে এ ইস্যু নিয়ে নিউজ করার আগে সাংবাদিকদের তার সঙ্গে সরাসরি কথা বলার পরামর্শ দিয়ে তারানা হালিম বলেন, ‘ফেসবুক বন্ধের বিষয়ে ফেসবুকে যেসব মন্তব্য, প্রতি মন্তব্য ও স্ট্যাটাস দেওয়া হয়েছে, তা ভিত্তিহীন তথ্যের ভিত্তিতে দেওয়া হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ফেসবুক বন্ধ করা নিয়ে মন্ত্রণালয় কোনো আলোচনা করেছে বা সিদ্ধান্ত নিয়েছে, এমন কোনো কাগজপত্র কেউ দেখাতে পারবেন না। আশা করি, এ নিয়ে সবার সংশয় দূর হবে।’ এর আগে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনায় ক্ষতি হচ্ছে জানিয়ে রাত বারোটার পর থেকে ভোর ছয়টা পর্যন্ত ফেইসবুক বন্ধ রাখার বিষয়ে টেলিযোগযোগ বিভাগকে অনুরোধ করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। গত সপ্তাহে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এ প্রস্তাব পাঠায়। টেলিযোগযোগ বিভাগ এ বিষয়ে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বিটিআরসির মতামত চায়। পরে বিটিআরসি ফেইসবুক এভাবে বন্ধ সম্ভব নয় বলে চিঠিতে মন্ত্রিপরিষদকে জানায়।

প্রসঙ্গত, এর আগে দেশে দু’বার ফেসবুক বন্ধ করেছিল সরকার। ২০১৫ সালের ১৮ নভেম্বর দেশে নিরাপত্তাজনিত কারণে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অনুরোধে ফেসবুকসহ কয়েকটি অ্যাপভিত্তিক যোগাযোগ মাধ্যম বন্ধের নির্দেশনা জারি করে বিটিআরসি। টানা ২২ দিন বন্ধ থাকার পর ১০ ডিসেম্বর খুলে দেওয়া হয় ফেসবুক। এর আগে ২০১৩ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি একদিনের জন্য বন্ধ রাখা হয় ফেসবুক। যদিও বিটিআরসি তখন বলেছিল, কারিগরি সমস্যার কারণে কিছুক্ষণের জন্য ঢোকা যায়নি সামাজিক যোগাযোগের এ মাধ্যমটিতে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com