নানা আয়োজনে ট্রাম্পের শপথ

৬৬ বার পঠিত
বিশ্বের ক্ষমতাধর যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫ তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন বহুল আলোচিত-সমালোচিত রিপাবলিকান দল থেকে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন মাইক পেন্স। শুক্রবার স্থানীয় সময় বেলা ১১টা ৫৫ মিনিটে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি জন রবার্টস ট্রাম্পকে শপথ বাক্য পাঠ করান। ট্রাম্পের আগে মাইক পেন্স ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন। ভাইস প্রেসিডেন্টকে শপথ বাক্য পাঠ করান সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি ক্ল্যারেন্স থমাস। তিনিই প্রথম আফ্রিকান-আমেরিকান যিনি মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্টকে শপথ বাক্য পাঠ করান। খবর সিএনএনের।

 

দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট রোনাল্ড রিগ্যান যে বাইবেল নিয়ে শপথ পাঠ করেছিলেন সেই বাইবেলই এবারের শপথ অনুষ্ঠানে ব্যবহার করা হয়েছে।
শপথ গ্রহণের পর জনসমুদ্রে দাঁড়িয়ে ট্রাম্প ‘মেক আমেরিকা গ্রেট এগেইন’ শ্লোগানকে বাস্তব করতে মার্কিন সমাজে ঐক্য প্রতিষ্ঠার প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেন। এ সময় সুসজ্জিত মঞ্চে দাঁড়িয়ে হাত নেড়ে সমর্থকদের শুভেচ্ছা জানান তিনি।এর আগে অনুষ্ঠানস্থলে আসেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা, ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা, দুই কন্যা মালিহা ও শাশা, বিদায়ী  ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন প্রমুখ।


অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত ভাষণ দেন প্রেসিডেন্ট অভিষেক কমিটির সভাপতি। সঙ্গীত আয়োজনের পরই মঞ্চে আসেন প্রধান বিচারপতি। এরপর শপথ নেন ট্রাম্প। শপথ শেষ হবার পরই কামানের তোপধ্বনি বেজে ওঠে। এরপর ট্রাম্প তার ভাষণের শুরুতে জনগণকে ধন্যবাদ জানান। ট্রাম্প বলেন, ‘আমরা আমাদের দেশ ও সমাজকে ঐক্যবদ্ধ করব। সব মানুষের জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে ফের বিখ্যাত হিসেবে গড়ে তুলব। দেশের সবাই এর সুবিধা পাবেন। পরিবর্তন আসবে।’

জনসমুদ্রে ভাষণ শেষে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স সস্ত্রীক অংশ নেন প্যারেডে। এরপর প্রেসিডেন্ট মোটর শোভাযাত্রা সহকারে হোয়াইট হাউসে যান। প্রথা অনুযায়ী ২০ জানুয়ারি নতুন মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসাবে ক্যাপিটল হিলে শপথ নিয়েছেন ট্রাম্প। শপথ অনুষ্ঠানে ৯ লাখ লোখেরও বেশি লোকের সমাগম হয়েছে। এ সময় পরিবারের সদস্য ও হোয়াইট হাউসের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

শপথ অনুষ্ঠানে সাবেক প্রেসিডেন্ট জিমি কার্টার, বিল ক্লিনটন এবং জর্জ ডাব্লিউ বুশ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে তাদের স্ত্রী তথা সাবেক ফার্স্ট লেডি যথাক্রমে রোজালিন কার্টার, হিলারি ক্লিনটন এবং লরা বুশ। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পর এই প্রথম হিলারি ক্লিনটন ট্রাম্পের মুখোমুখি হন। এছাড়া বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকরা, ওবামা প্রশাসন এবং ট্রাম্পের প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

গত ৮ নভেম্বর মার্কিন নির্বাচনে রিপাবলিকান দলের মনোনীত পার্থী হিসেবে ডেমোক্রেট পার্থী হিলারির সঙ্গে লড়াই করে যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫ তম প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন তিনি। শপথ অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন শীর্ষ পপ তারকারা। এদিকে, যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে ব্যয়বহুল এবং নজিরবিহীন নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন ট্রাম্প ও ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক প্রেন্স। রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসির ক্যাপিটল হিলের পশ্চিম প্রান্তে জমকালো আয়োজনের মধ্যে দিয়ে শুরু হয় এ শপথ অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানস্থলের আশপাশের প্রায় ২ দশমিক ৭ বর্গমাইল এলাকায় রাস্তা ব্যারিকেড দিয়ে ব্লক করে রাখা হয়। জমকালো ওই অনুষ্ঠানের খরচ ধরা হয়েছে ৮০০ কোটি টাকা (১০০ মিলিয়ন ডলার)।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com